E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

পিরোজপুরে স্কুলছাত্রকে হত্যার দায়ে দুই ভাইয়ের ফাঁসি

২০১৭ জুন ০৮ ১৪:০৮:২৭
পিরোজপুরে স্কুলছাত্রকে হত্যার দায়ে দুই ভাইয়ের ফাঁসি

পিরোজপুর প্রতিনিধি : পিরোজপুরে চার বছর আগে স্কুলছাত্র সাদনাম সাকিব প্রিন্স (১৪) হত্যার দায়ে দুই ভাইয়ের ফাঁসির রায় দিয়েছে আদালত।পিরোজপুর জেলা ও দায়রা জজ গোলাম কিবরিয়া বুধবার এ রায় ঘোষণা করেন। দন্ডিতরা হলেন-পিরোজপুর শহরের আদর্শপাড়ার শফিকুল আলম হাওলাদারের বড় ছেলে নাজমুল হাসান নাঈম ও ছোট ছেলে নাফিজ হাসান নাহিদ।রায় ঘোষণার সময় নাহিদ আদালতে উপস্থিত ছিলেন। নাঈম পলাতক রয়েছেন।একইসঙ্গে তাদের সাত বছরের কারাদ- ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেওয়া হয়েছে।

মামলার সরকার পক্ষের আইনজীবী খান মো: আলাউদ্দিন (পিপি) জানান, ২০১৩ সালের ২৯ আগষ্ট আসামী নাহিদ আদর্শপাড়া বাসা থেকে প্রিন্সকে ডেকে তাদের বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে আসামী নাহিদের সাথে ক্রিকেট খেলা নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে নাহিদ প্রিন্সের মুখমন্ডল ও চোখ বরাবরে কিল-ঘুষি মারলে প্রিন্স পাশে থাকা খাটের উপরে পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পেয়ে অজ্ঞান হয়ে যায়।

পরে নাহিদ বিষয়টি ঘরে থাকা তার বড় ভাই নাঈম কে জানালে দুই জনে মিলে তাদের ব্যবহৃত লুঙ্গি, জামা ও গামছা দিয়ে প্রিন্সের মুখমন্ডল ও হাত-পা বেঁধে ঘরের খাটের নিচে ফেলে রাখে। পরে প্রিন্সের মৃত্যু নিশ্চিত হবার পরে রাতে নাহিদ ও নাঈম দুজনে একটি কাঠের ফ্রেমের সাথে প্রিন্সের মৃতদেহ বেঁধে ইট দিয়ে বাসার পাশে সিআইপাড়ার রায় পুকুরে লাশ গুম করার জন্য ডুবিয়ে দেয়। ওইদিন অনেক খোঁজা-খুজিঁর পরে প্রিন্সকে না পেয়ে প্রিন্সের বাবা মো: জাকির হোসেন পিরোজপুর সদর থানায় একটি সাধারণ ডাইরী করেন। ঘটনার দুই দিন পরে ১ সেপ্টেম্বর পুকুরের ঘাটের পাশে প্রিন্সের লাশটি ভেসে ওঠলে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়।

পুলিশ লাশটি উদ্ধার করলে স্থানীয়রা এটি প্রিন্সের লাশ বলে শনাক্ত করে। ২ সেপ্টেম্বর প্রিন্সের বাবা মো: জাকির হোসেন সরদার পিরোজপুর সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। দীর্ঘ তদন্ত শেষে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস.আই মো: মনিরুজ্জামান ২০১৪ সালের ২৪ জুলাই শহরের আদর্শপাড়া শফিকুল আলম হাওলাদার এবং তার ছোট ছেলে নাফিজ হাসান নাহিদ ও বড় ছেলে নাজমুল হাসান নাঈমকে আসামী করে চার্জশীট দাখিল করেন।

এ মামলায় মোট বাদীসহ ১৪ জনের সাক্ষী শেষে অপরাধ প্রমানিত হওয়ায় বিচারকজেলা ও দায়রা জজ মো: গোলাম কিবরিয়া দুই ভাই নাফিজ হাসান নাহিদ ও নাজমুল হাসান নাঈম কে ফাঁসির আদেশ এবং তাদের বাবা শফিকুল আলম হাওলাদারকে মামলা দিয়ে অব্যাহতি দেন। রায় ঘোষণার সময় আসামী নাহিদ উপস্থিত থাকলেও অপর আসামী নাঈম পলাতক রয়েছে।

(ওএস/এএস/জুন ০৮, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

১৮ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test