E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

প্রতিবন্ধীদের কয়েক লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র

২০১৭ জুন ০৯ ১২:৩৮:১৩
প্রতিবন্ধীদের কয়েক লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক চক্র

গোলাম কবির বিলু, পীরগঞ্জ (রংপুর) : পীরগঞ্জে এবার প্রতিবন্ধীদেরকে আর্থিক সহায়তা প্রদানের নামে একটি সংস্থা ফরম বিতরন করে প্রতারনার মাধ্যমে প্রতিবন্ধী পরিবারের কাছ কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে চম্পট দিয়েছে। প্রতারনার শিকার পরিবারের সদস্যরা উপজেলা পরিষদ চত্বরে এসে সংস্থাটির অফিস খুঁজে না পেয়ে হতাশ হয়ে ফিরে গেছে। এর আগেও বয়স্কভাতা প্রদানের নামে একটি চক্র মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সম্প্রতি একটি চক্র গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার অনুমোদিত রেজিঃ নং- ২০৮৬৫১ দিয়ে সবুজ কাগজে বিভিন্ন তথ্য সম্বলিত ছাপানো একটি ফরমে ‘বিদেশী সংস্থা সৌদিআরব সিসিডিবি অনুদানের তালিকা’য় নাম দিয়ে প্রতিবন্ধীদের মাঝে বিতরন করে।

গত ৩০ মে চক্রটি তাদের ফাঁদে ফেলে বেশকিছু প্রতিবন্ধী পরিবারগুলোর কাছ থেকে তাৎক্ষনিকভাবে ১ হাজার টাকা থেকে ৩ হাজার টাকা পর্যন্ত নিয়ে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। চক্রটি তাদেরকে বলে, পীরগঞ্জের ইউএনও অফিসের ২য় তলায় সিসিডিবির অফিসে গিয়ে ফরম জমা দিলে ১৫ হাজার টাকা করে দেয়া হবে। এরমধ্যে ৩ হাজার টাকা কর্তন করা হবে বলেও চক্রটি জানায়।

এ ব্যাপারে প্রতারনার শিকার উপজেলার বড়দরগা ইউনিয়নের ভগবানপুরের প্রতিবন্ধী সুখেন্দু উরাও কে আর্থিক সহায়তার কথা বলে ওই ফরমে নাম-ঠিকানা লিখে দিয়ে ৩ হাজার নিয়েছে বলে সুখেন্দুর স্ত্রী তারা মনি জানায়।

তারা মনি আরও জানায়, আমার স্বামী শারীরিক প্রতিবন্ধী। ৭ বছর আগে একসাথে আমার ৩ কন্যার জন্ম হয়েছে। ৩ কন্যা নীলা, সুমি ও পূর্নিমাকে নিয়ে খুব কষ্টে জীবনযাপন করছি। সাহায্যের কথা বলে আমার কাছে টাকা নিয়ে ইউএনও অফিসের ২য় তলায় আসতে বলেছে। আমি অফিস পাচ্ছি না। একইভাবে প্রতারনার শিকার হয়েছেন বড়দরগা ইউপির গুর্জিপাড়ার রইচ উদ্দিনের ছেলে আব্দুর রশিদ মিয়াও।

গত বৃহষ্পতিবার উপজেলা সমাজসেবা অফিসে তাদের মতো আরও কয়েকজন এসে খোঁজ নিয়ে বুঝতে পারেন যে তারা প্রতারিত হয়েছেন। টাকা ফিরে পেতে প্রতারিত পরিবারের সদস্যরা বিভিন্ন অফিসও সাংবাদিকসহ বিভিন্ন জনের কাছে যাচ্ছে।

উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা জয়নাল আবেদীন বলেন, এর আগেও বয়ষ্ক ভাতা প্রদানের নামে একটি চক্র উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে মোটা অংকের টাকা প্রতারনার করে হাতিয়ে নিয়েছে। ওই ঘটনায় আমরাও নজরদারী করেছিলাম। এবারে গ্রামের হতদরিদ্র প্রতিবন্ধীদেরকে আর্থিক সহায়তা প্রদানের নামে ফরম ছাপিয়ে নাম রেজিষ্ট্রেশন করে প্রতিবন্ধীদের পরিবারের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নিয়ে চক্রটি চম্পট দিয়েছে। মনে হচ্ছে একই চক্র বারবার সাধারন মানুষকে ধোকা দিয়ে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।

ইউএনও কমল কুমার ঘোষ বলেন, এ ধরনের সাহায্য প্রদানের ব্যাপারে আমি কোন সংস্থার চিঠি পাইনি, অভিযোগও পাইনি।

(জিকেবি/এসপি/জুন ০৯, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

১৪ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test