E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

শশুর বাড়ীতে জামাই খুন, আত্মহত্যা বলে চালানোর অভিযোগ

২০১৭ সেপ্টেম্বর ১৬ ১৩:১৪:৪৪
শশুর বাড়ীতে জামাই খুন, আত্মহত্যা বলে চালানোর অভিযোগ

নোয়াখালী প্রতিনিধি : নোয়াখালীতে অমানুষিক নির্যাতন ও গাছের সাথে বেধে ৩ দিন ব্যাপি বেধড়ক মারপিট করে খুন করে গাছের সাথে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সরজমিনে গিয়ে জানাযায়, সুবর্ণচর উপজেলার চর কাজী মোখলেছ গ্রামের মৃত কাশেম মিয়ার পুত্র মোহাম্মদ ফারুক (২২) এর সাথে ১ মাস আগে সামাজিক ভাবে বিয়ে হয় সদর উপজেলার ধর্মপুর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের বাটিরট্যাক গ্রামের বাসিন্দা গিয়াস উদ্দিনের কন্যা জুলেখা খাতুন (১৯) এর সাথে । বিয়ের কিছুদিন পর ফারুক জুলেখার নামে রামগতি চৌধুরীর হাট নামক স্থানে ১৮ ডিসিমেল জায়গা ক্রয় করেন এতে ৫০ হাজার টাকা কম হওয়ায় ফারুক তার শশুর গিয়াস উদ্দিনের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা ধার নেন, পরে ফারুক তার কর্মস্থল চট্রগ্রামে চলে যান।

গত ৮ সেপ্টেম্বর ফারুককে তার শশুর জরুরী কাজ আছে বলে ফারুককে আসতে বলে, এতে ফারুক বাড়ীতে আসলে তার শশুর গিয়াস উদ্দিন সহ বাড়ীর লোকজন তাকে আটক কওে, পরে গাছের সাথে বেঁধে এবং তার বড় ভাই লিটনকে ফোন করে মুক্তিপন দাবী কওে, ৩ দিনের সময় নিয়ে গত ১১ তারিখ লিটন ৩০ হাজার টাকা ও প্রতিবেশী মেহেরাজ কে সাথ তার শশুরের হাতে তুলে দেন এতে পরো টাকার দাবী করে পুনরায় উপস্থিত সকলের সামনে ফারুককে গাছের সাথে বেঁধে এলোপাতাড়ি পিটাতে থাকেন ফারুকের শশুর ও ফারুকের ভায়েরা খলিল, জব্বার আকবরসহ ভাটিয়া একটি লাঠিয়াল বাহিনী এতে ফারুক অজ্ঞান হয়ে যান।

এ দৃশ্য দেখে বাকি টাকার জন্য আরো ২ দিন সময় নেন নিহত ফারুকের পরিবার গত ১৩ তারিখ বেলা ১২ টার সময় নিহত ফারুকের শশুর ফারুকের পরিবারকে জানাই ফারুক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। সাথে সাথে ফারুকের পরিবার ও বাড়ীতে গেলে বাড়ীতে কাউকে পায়নি তারা। বিকেলে নিহত ফারুকের শশুর সদর থানার পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে যান। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে।

নিহত ফারুককের বড় ভাই লিটন অভিযোগ করে বলেন, আমার ভাই ফারুককে অমানুষিক নির্যাতন করে মেরে পেলেছে তার শশুরসহ তার ভায়েরাসহ অজ্ঞাত কিছু ব্যাক্তি । বাঁচার জন্য তারা এখন আত্মহত্যা বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে।

এই ঘটনায় নিহত ফারুকের ভাই বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। ময়নাতদন্ত শেষ করে ফারুকের লাশ তার গ্রামের বাড়ী চরকাজি মোখলেসে দাফন করা হয়।

এ ব্যপারে মুঠো ফোনে জানতে চাইলে সদর থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, লাশ ময়নাতদন্ত শেষ হয়ছে। রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর বিস্তারিত জানা যাবে।

এদিকে ফারুকের মৃত্যুর সংবাদে এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া। নিহত ফারুকের মা ছেলের শোকে জ্ঞান হারাচ্ছেন বার বার। স্থানীয়রা হত্যাকারিদের দৃষ্টিান্ত মূলক শাস্থির দাবি করছেন।

(আইইউএস/এসপি/সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test