E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

রাজনৈতিক মাঠ দখলে রাখার ঘোষণা নাসিমের

২০১৮ সেপ্টেম্বর ২৫ ১৬:২৭:০৩
রাজনৈতিক মাঠ দখলে রাখার ঘোষণা নাসিমের

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীতে বিরোধী দুই রাজনৈতিক শক্তির সমাবেশের আগে ঢাকা দখলে রাখার ঘোষণা দিয়েছে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোট।

জোটের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, চক্রান্তকারীরা মাঠে নামবে। আমরা দেখবো কারা মাঠে নামবে আর কে না নামে?

মঙ্গলবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আগামী শনিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) মহানগর ১৪ দলের সমাবেশের প্রস্তুতি সভায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও ১৪ দলীয় জোটের মূখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম এ কথা বলেন।

নাসিম বলেন, 'আগে থেকেই ঢাকা দখলে ছিল, ইনশাল্লাহ আগামীতেও ঢাকা দখলে থাকবে। শুধু ঢাকা নয় সারা দেশ শেখ হাসিনার দখলে থাকবে বলে ঘোষণা দেন নাসিম।

জোট নেতাকর্মীদের যে কোনো চক্রান্তের বিরুদ্ধে সজাগ থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, 'আপনারা প্রস্তুত থাকবেন, যেন ওই (বিএনপি) অপশক্তি মাঠে নামতে না পারে। ওদের মাঠে প্রতিহত করবেন, রাস্তায় প্রতিহত করবেন। চক্রান্তকারীরা মাঠে নামবে। আমরা দেখবো কারা মাঠে নামবে আর কে নামবে না। আগামী এক মাস আপনাদের কোনো কাজ নেই। ১৪ দলের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে নিয়ে পাড়া-মহল্লায় সজাগ থাকবেন। কোনো চক্রান্ত নৈরাজ্য হলে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে ইনশাল্লাহ আমরা প্রতিহত করা হবে।'

আওয়ামী লীগ ও ১৪ দল নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হয়েছে জানিয়ে নাসিম বলেন, 'নির্বাচনী প্রচারের কাজ শুরু হয়েছে। সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে ইতিমধ্যে জেলা উপজেলায় নির্বাচনী প্রচারের কাজ শুরু হয়েছে। ১৪ দলের শরিক দলগুলো দেশের বিভিন্ন জায়গায় নির্বাচনী প্রচারের কাজ শুরু করেছে। এবার চাই প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচন হোক। কিন্তু আবারও সেই অসৎ চক্রান্ত শুরু হয়েছে।

২৯ সেপ্টেম্বরের সমাবেশ সফল করার আহ্বান জানিয়ে নাসিম বলেন, 'আপনারা ১৪ দলের প্রোগ্রামে আসবেন। সেখানে আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ ও ১৪ দলের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখবেন। ঢাকার প্রতিটি ঘরে ঘরে এ বার্তা পৌঁছে দিতে হবে। ২৯ সেপ্টেম্বর ১৪ দলের সমাবেশ। আপনারা আপনাদের এমপিকে নিয়ে ঘরে ঘরে পৌঁছে যান।'

তিনি বলেন, 'আমরা এতদিন দেখেছি খেলায় খেলোয়াড় ভাড়া করা হয়। এখন দেখছি ড. কামাল হোসেনের মত নেতারাও ভাড়ায় যাচ্ছেন। আমাদের সঙ্গে খেলবেন খেলেন কোনো সমস্যা নেই, তবে ভাড়াটে খেলোয়াড় দিয়ে কি কখনো জয় পাওয়া যায়? যায় না। যাদের নিজেদেরই অস্তিত্ব নেই তারা অন্য দলে গিয়ে কি অস্তিত্ব পাবে।'

যারা জাতীয় ঐক্যের ঘোষণা দিচ্ছে তাদের প্রতি মানুষের আস্থা নেই জানিয়ে নাসিম বলেন, 'আপনারা (যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার নেতা) বর্ণচোরা, আপনাদের প্রতি জনগণের আস্থা নেই। আপনাদের কর্মীদেরও আপনাদের প্রতি আস্থা নেই।'

নির্বাচন বানচালের কোনো চেষ্টা সফল হবে না মন্তব্য করে তিনি বলেন, 'সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এখানে যে কোনো দল অংশ নিতে পারে। এ বিষয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া দেয়ার প্রয়োজন নেই। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক হল, ওই সমস্ত চেনা মুখগুলো যখন গণতন্ত্রের কথা বলে মাঠে নামে তখন মানুষের মধ্যে শঙ্কার সৃষ্টি হয়। যখনই গণতন্ত্রের জন্য লড়াই হয়েছে, এই চেনা মুখগুলো নির্বাচনকে বিলম্বিত করতে বারবার চেষ্টা করেছে।'

নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের নামে সেনাবাহিনীকে উত্তেজিত করা হচ্ছে দাবি করে আওয়ামী লীগের সিনিয়র এ নেতা বলেন, 'সকলের মনে আছে ২০০১ সালে কিভাবে একটি দলকে পরাজিত করার চক্রান্ত করা হয়েছিল। পৃথিবীর কোনো দেশে সেনাবাহিনীকে এভাবে ব্যবহার করা হয় না। আমরা দেখেছি কিভাবে সেনাবাহিনীকে ব্যবহার করে অতীতে গণতন্ত্রকে ধ্বংস করা হয়েছে। সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীই যথেষ্ট। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নির্বাচন কমিশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী কাজ করবে।'

(ওএস/এসপি/সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১১ ডিসেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test