E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Technomedia Limited
Mobile Version

‘অসত্য-অন্যায়-অসুন্দরের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে হবে’

২০২২ অক্টোবর ০৩ ০১:১৫:১২
‘অসত্য-অন্যায়-অসুন্দরের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে হবে’

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দেবী দুর্গার আবির্ভাব হয়েছিল অসত্যকে পরাজিত করার জন্য। অসুন্দরের বিরুদ্ধে সুন্দরকে প্রতিষ্ঠিত করা এবং অন্যায়ের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করার জন্য। আজকে আমাদেরকেও একইভাবে অসত্য, অন্যায় ও অসুন্দরের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে হবে।

রবিবার (২ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সঙ্গে শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় বিএনপির মিডিয়া সেলের সদস্য শায়রুল কবির খানসহ পূজা উদযাপন পরিষদের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আজকে আমাদের প্রত্যাশা হচ্ছে- ভবিষ্যৎ ও তরুণ প্রজন্মের জন্য বাস উপযোগী বাংলাদেশ উপহার দেওয়া। ১৯৭১ সালে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম। লক্ষ্য ছিল সাম্প্রদায়িক শক্তি ও পাকিস্তানি বাহিনীর বিরুদ্ধে এবং এ রাষ্ট্রকে একটি নতুন ভূখণ্ড তৈরি করে একটি গণতান্ত্রিক ও মুক্তসমাজ গড়ে তুলবো। যেখানে হিন্দু-মুসলমান-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান সবাই মিলেমিশে থাকবো। সবার অধিকার এখানে প্রতিষ্ঠিত হবে। মোটা কাপড়, মোটা চালের ভাত খেয়ে মাথার ওপর একটি ছাদ নিয়ে সবাই মিলে আমরা একটি সমৃদ্ধ সমাজ গড়ে তুলবো।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকে স্বাধীনতার ৫০ বছর পরও আমাদের অনেকেই প্রশ্ন করেন যে, আমরা কি সত্যিকার অর্থেই এ বাংলাদেশ চেয়েছিলাম, সম্ভবত না। সত্যিকার অর্থেই আমরা অসাম্প্রদায়িক ও গণতান্ত্রিক এবং মানবাধিকার রক্ষার বাংলাদেশ দেখতে চাই। সর্বোপরি একটি সমৃদ্ধ বাংলাদেশ দেখতে চাই। আজকে সেই উৎসবের দিনে সবাইকে শুভেচ্ছা।

তিনি আরও বলেন, হাজার বছর ধরে এ ভূখণ্ডে হিন্দু-মুসলমান-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান সব সম্প্রদায়ের মানুষ একই বৃন্তে নতুন ফুলের মতো প্রস্ফুটিত ও বিকশিত হয়েছি। বাস করেছি মিলেমিশে। আমরা সেই সমাজ ও দেশকে নষ্ট হতে দেবো না। আমাদের এখন বয়স হয়ে গেছে, আমরা যাওয়ার পথে। আজকে বাংলাদেশকে গণতান্ত্রিক দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠার জন্য তরুণ ও যুবক সমাজের দায়িত্ব অনেক বেশি। সবার অধিকারকে রক্ষা করা আমাদের দায়িত্ব।

(ওএস/এএস/অক্টোবর ০৩, ২০২২)

পাঠকের মতামত:

৩০ নভেম্বর ২০২২

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test