E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Walton New
Mobile Version

‘মীরজাফর’ আখ্যা দিয়ে বিএনপির ১৯ নেতাকর্মীকে আজীবন বহিষ্কার

২০২৩ জুন ০৪ ১৬:২৬:৫৮
‘মীরজাফর’ আখ্যা দিয়ে বিএনপির ১৯ নেতাকর্মীকে আজীবন বহিষ্কার

স্টাফ রিপোর্টার : দলীয় সিদ্ধান্ত ভঙ্গ করে বরিশাল সিটি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করায় স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী কামরুল আহসান রুপনসহ ১৮ কাউন্সিলর প্রার্থীকে ‘মীরজাফর’ আখ্যা দিয়ে আজীবন বহিষ্কার করেছে কেন্দ্রীয় বিএনপি।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী সই করা আলাদা আলাদা সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ১৯ নেতাকর্মীকে আজীবন বহিষ্কারের বিষয়টি জানানো হয়।

রবিবার (৪ জুন) দুপুর ১২টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরিশাল মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক মো. মনিরুজ্জামান খান।

তিনি বলেন, নির্বাচনে অংশ নিয়ে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে কেন্দ্র সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাদের আগেই সতর্ক করা হয়েছিল। কিন্তু তারা তা অমান্য করায় তাদের বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

বিএনপির ১৯ নেতাকর্মীকে আজীবন বহিষ্কারের চিঠিতে বলা হয়, বরিশাল সিটি করপোরেশনে প্রহসনের নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে আপনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। দলীয় সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার জন্য আপনাকে গত ১ জুন কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়। কিন্তু নির্ধারিত সময় অতিক্রান্ত হলেও অনেকে নোটিশের জবাব দেননি বা অনেকের জবাব সন্তোষজনক হয়নি। নির্বাচনে প্রার্থিতা প্রত্যাহার না করে গত ১৫ বছর ধরে চলমান গণতান্ত্রিক আন্দোলনে অত্যাচারী শাসকগোষ্ঠীর দ্বারা যারা গুম-খুন ও পৈশাচিক নিপীড়নের শিকার হয়েছেন তাদের পরিবারসহ দেশের গণতন্ত্রকামী বিপুল জনগোষ্ঠীর আকাঙ্ক্ষার প্রতি আপনি বিশ্বাসঘাতকতা করেছেন।

এতে আরও বলা হয়, দলীয় সিদ্ধান্ত ও নির্দেশনাকে এভাবে অবজ্ঞা ও ঔদ্ধত্যের জন্য বিএনপির গঠনতন্ত্রের বিধান অনুযায়ী দলের প্রাথমিক সদস্য পদসহ সব পর্যায়ের পদ থেকে নির্দেশক্রমে আপনাকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হলো। গণতন্ত্র উদ্ধারের ইতিহাসে আপনার নাম একজন বেইমান, বিশ্বাসঘাতক ও মীরজাফর হিসেবে উচ্চারিত হবে।

বহিষ্কৃতরা হলেন স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী কামরুল আহসান রুপন, বরিশাল মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির তিন যুগ্ম-আহ্বায়ক ৬ নম্বর ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর প্রার্থী হাবিবুর রহমান টিপু, ৯ নম্বর ওয়ার্ডের হারুন অর রশিদ, ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের শাহ আমিনুল ইসলাম আমিন, মহানগর বিএনপির বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সেলিম হাওলাদার, সংরক্ষিত ২ নম্বর ওয়ার্ডের জাহানারা বেগম, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সেলিনা বেগম, ১০ নম্বর ওয়ার্ডের রাশিদা পারভীন, নগরীর ১৮ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সদস্য সচিব জিয়াউল হক মাসুম, একই ওয়ার্ডের প্রার্থী দক্ষিণ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক জাবের আব্দুল্লাহ সাদি, একই ওয়ার্ডের প্রার্থী বরিশাল জেলা তাঁতি দলের সাবেক সভাপতি কাজী মোহাম্মদ শাহীন, ১৮ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুল ইসলাম, নগরীর ৩ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সিনিয়র সভাপতি হাবিবুর রহমান ফারুক, ৯ নম্বর ওয়ার্ড যুবদলের সিনিয়র সহসভাপতি সৈয়দ হুমায়ন কবির লিংকু, ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সহ-সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, ২২ নম্বর ওয়ার্ড মহিলা দলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জেসমিন সামাদ, ২৪ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সভাপতি ও মহানগরের সাবেক সহসভাপতি ফিরোজ আহম্মেদ, ২৬ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সভাপতি ফরিদউদ্দিন হাওলাদার এবং ২৮ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক হুমায়ন কবির।

(ওএস/এসপি/জুন ০৪, ২০২৩)

পাঠকের মতামত:

২২ জুন ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test