E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

শিরোনাম:

১২৩ রানে অলআউট, খেলা শেষ! 

২০১৮ ফেব্রুয়ারি ১০ ১৪:৪০:২০
১২৩ রানে অলআউট, খেলা শেষ! 

স্পোর্টস ডেস্ক : ঢাকা টেস্ট শেষ হলো তিন দিনে। লজ্জাজনকভাবে হেরে গেল বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে ১১০ রানে অলআউট হওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসে ১২৩ রানে অলআউট হলো স্বাগতিকরা। ফলে সফরকারীরা ম্যাচটি জিতে নিল ২১৫ রানে। সেই সাথে দুই ম্যাচের সিরিজটি লঙ্কানরা জিতে নিল ১-০ ব্যবধানে। চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত সিরিজের প্রথম ম্যাচটি ড্র হয়েছিল।

আজ সকালে শ্রীলঙ্কার দ্বিতীয় ইনিংস শেষ হয় ২২৬ রানে। প্রথম ইনিংস শেষে তারা এগিয়ে ছিল ১১২ রানে। তাই বাংলাদেশের সামনে জয়ের জন্য লক্ষ্যমাত্রা দাঁড়ায় ৩৩৯ রান। কিন্তু বাংলাদেশ ১২৩ রান সংগ্রহ করে অলআউট হয়ে যায়। দিনের দ্বিতীয় সেশনেই ম্যাচ শেষ হয়ে যায়।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৩ রান করেন মুমিনুল হক। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৫ রান করেন মুশফিকুর রহিম। শ্রীলঙ্কার পক্ষে আকিলা ধনঞ্জয়া পাঁচ ওভার বল করে ২৪ রান দিয়ে পাঁচটি উইকেট নেন। ১১.৩ ওভার বল করে ৪৯ রান দিয়ে চারটি উইকেট নেন রঙ্গনা হেরাথ। এছাড়া দিলরুয়ান পেরেরা নেন একটি উইকেট।

বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় তিন রানে ওপেনার তামিম ইকবালকে হারায়। দিলরুয়ান পেরেরার বলে এলবিডব্লিউ হন তিনি। দলীয় ৪৯ রানে রঙ্গনা হেরাথের বলে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ হন ইমরুল কায়েস। তিনি করেন ১৭ রান।

দলীয় ৬৪ রানে রঙ্গনা হেরাথের বলে উইকেরক্ষকের হাতে ক্যাচ হন মুমিনুল হক। তার ব্যাট থেকে আসে ৩৩ রান। দলের রান যখন ৭৮ তখন আকিলা ধনঞ্জয়ার বলে কুসল মেন্ডিসের হাতে ধরা পড়েন লিটন দাস।

দলীয় ১০০ রানে আকিলা ধনঞ্জয়ার বলে দিমুথ করুণারত্নের হাতেস ক্যাচ হন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দলের রান যখন ১০২ তখন রঙ্গনা হেরাথের বলে স্ট্যাম্পিং হন মুশফিকুর রহিম।

ইনিংসের ২৭তম ওভারে আকিলা ধনঞ্জয়ার বলে ফিরে যান সাব্বির রহমান ও আব্দুর রাজ্জাক। ২৯তম ওভারে মেহেদী হাসান মিরাজকে ফেরান ধনঞ্জয়া। ৩০তম ওভারে রঙ্গনা হেরাথের বলে দানুশকা গুনাথিলাকার হাতে ক্যাচ হন তাইজুল ইসলাম।

মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে গত বৃহস্পতিবার শুরু হয় বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের শেষ ম্যাচ। বৃহস্পতিবার টস জিতে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ইনিংসে ২২২ রান সংগ্রহ করে অলআউট হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা।

দলের পক্ষে দুই ব্যাটসম্যান হাফ সেঞ্চুরি করেন। কুসল মেন্ডিস করেন ৬৮ রান। রোশেন সিলভা করেন ৫৬ রান। বাংলাদেশের পক্ষে আব্দুর রাজ্জাক ৪টি, তাইজুল ইসলাম ৪টি ও মোস্তাফিজুর রহমান ২টি করে উইকেট নেন।

বৃহস্পতিবার দিনের শেষ সেশনে বাংলাদেশ ব্যাট করতে নেমে চার উইকেট হারিয়ে ৫৬ রান সংগ্রহ করে দিনের খেলা শেষ করে। শুক্রবার সকালে আবার ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। প্রথম সেশনেই স্বাগতিকরা ১১০ রান সংগ্রহ করে অলআউট হয়ে যায়। অর্থাৎ, প্রথম ইনিংস শেষে ১১২ রানের লিডে থাকে শ্রীলঙ্কা।

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের কোনও ব্যাটসম্যানই হাফ সেঞ্চুরি করতে পারেনি। সর্বোচ্চ ৩৮ রান করে অপরাজিত থাকেন মেহেদী হাসান মিরাজ। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৫ রান করেন লিটন দাস। শ্রীলঙ্কার পক্ষে সুরঙ্গা লাকমল ৩টি, আকিলা ধনঞ্জয়া ৩টি ও দিলরুয়ান পেরেরা ২টি করে উইকেট নেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

ফল: ২১৫ রানে জয়ী বাংলাদেশ।

শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংস: ২২২ (৬৫.৩ ওভার)

(কুসল মেন্ডিস ৬৮, দিমুথ করুণারত্নে ৩, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ১৯, দানুশকা গুনাথিলাকা ১৩, দিনেশ চান্দিমাল ০, রোশেন সিলভা, নিরোশান ডিকওয়েলা ১, দিলরুয়ান পেরেরা ৩১, আকিলা ধনঞ্জয়া ২০, রঙ্গনা হেরাথ ২, সুরঙ্গা লাকমল ৪*; মেহেদী হাসান মিরাজ ০/৫৪, আব্দুর রাজ্জাক ৪/৬৩, তাইজুল ইসলাম ৪/৮৩, মোস্তাফিজুর রহমান ২/১৭)।

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ১১০ (৪৫.৪ ওভার)

(তামিম ইকবাল ৪, ইমরুল কায়েস ১৯, মুমিনুল হক ০, মুশফিকুর রহিম ১, লিটন দাস ২৫, মেহেদী হাসান মিরাজ ৩৮*, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ১৭, সাব্বির রহমান ০, আব্দুর রাজ্জাক ১, তাইজুল ইসলাম ১, মোস্তাফিজুর রহমান ০; সুরঙ্গা লাকমল ৩/২৫, দিলরুয়ান পেরেরা ২/৩২, আকিলা ধনঞ্জয়া ৩/২০, রঙ্গনা হেরাথ ০/৩১)।

শ্রীলঙ্কা দ্বিতীয় ইনিংস: ২২৬ (৭৩.৫ ওভার)

(দিমুথ করুণারত্নে ৩২, কুসল মেন্ডিস ৭, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ২৮, দানুশকা গুনাথিলাকা ১৭, দিনেশ চান্দিমাল ৩০, রোশেন সিলভা ৭০*, নিরোশান ডিকওয়েলা ১০, দিলরুয়ান পেরেরা ৭, আকিলা ধনঞ্জয়া ০, সুরঙ্গা লাকমল ২১, রঙ্গনা হেরাথ ০; আব্দুর রাজ্জাক ১/৬০, মোস্তাফিজুর রহমান ৩/৪৯, তাইজুল ইসলাম ৪/৭৬, মেহেদী হাসান মিরাজ ২/৩৭)।

বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংস: ১২৩ (২৯.৫ ওভার)

(তামিম ইকবাল ২, ইমরুল কায়েস ১৭, মুমিনুল হক ৩৩, মুশিফিকুর রহিম ২৫, লিটন দাস ১২, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ৬, সাব্বির রহমান ১, মেহেদী হাসান মিরাজ ৭, আব্দুর রাজ্জাক ২, তাইজুল ইসলাম ৬*, মোস্তাফিজুর রহমান ৫; সুরঙ্গা লাকমল ০/১১, দিলরুয়ান পেরেরা ১/৩২, রঙ্গনা হেরাথ ৪/৪৯, আকিলা ধনঞ্জয়া ৫/২৪)।

প্লেয়ার অব দ্য ম্যাচ: রোশেন সিলভা (শ্রীলঙ্কা)।

প্লেয়ার অব দ্য সিরিজ: রোশেন সিলভা (শ্রীলঙ্কা)।

(ওএস/এসপি/ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test