Pasteurized and Homogenized Full Cream Liquid Milk
E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

হিগুয়াইনের লাল কার্ড, রোনালদোর গোল

২০১৮ নভেম্বর ১২ ১৪:২৩:৩২
হিগুয়াইনের লাল কার্ড, রোনালদোর গোল

স্পোর্টস ডেস্ক : সুপার সানডেতে সবচেয়ে বেশি যে ম্যাচটি নিয়ে আগ্রহ ছিল সবার, নিঃসন্দেহে সেটি ম্যানচেস্টার ডার্বি। ম্যানইউ এবং ম্যানসিটির ম্যাচটি নিযে যতটা আগ্রহ, তার চেয়ে কম ছিল না ইতালিয়ান সিরি-আ’তে জুভেন্টাস আর এসি মিলানের ম্যাচ নিয়ে। এক সময়ের বিশ্ব কাঁপানো এসি মিলান এবং বর্তমান ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস।

উপভোগ্য ম্যাচ। দর্শকদের সব আশাই হয়তো পূরণ করতে পেরেছেন দু’দলের ফুটবলাররা। গোল পেয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোও; কিন্তু এই ম্যাচে খলনায়কে পরিণত হয়েছেন আর্জেন্টাইন তারকা গঞ্জালো হিগুয়াইন। লাল কার্ড দেশে মাঠ থেকে বহিস্কার হতে হয়েছে তাকে। নাটকীয়তায় পূর্ণ ম্যাচটিতে শেষ পর্যন্ত জয় পেয়েছে জুভেন্টাস, ব্যবধান ২-০ গোলের।

সিরি ‘এ’তে দু’দলের গত ১১ বারের মুখোমুখি সাক্ষাতে ১০ বারই ম্যাচের ফল ছিল জুভেন্টাসের পক্ষে। তাই অ্যাওয়ে ম্যাচ হলেও পরিষ্কার ফেভারিট হিসেবেই রোববার সানসিরোয় খেলতে নেমেছিল ম্যাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রির ছেলেরা। ঘরের মাঠে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কাছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে হারের ধাক্কা কাটিয়ে আবারও নিজেদের মেলে ধরলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোরা।

এসি মিলানকে ২-০ গোলে হারিয়ে পরিষ্কার ছয় পয়েন্টে এগিয়ে থেকে লিগের শীর্ষে বসে আছে এখন জুভেন্টাস। দুই অর্ধে মানজুকিচ এবং রোনালদোর করা দু’গোলে মিলান জয় করলো জুভেন্টাস। অন্যদিকে উল্টোদিকে পেনাল্টি মিস এবং লাল কার্ড দেখে হাইভোল্টেজ ম্যাচে ‘খলনায়ক’ হয়ে গেলেন এসি মিলানের গঞ্জালো হিগুয়াইন।

কিক-অফের বাঁশি বাজার পর থেকেই মিলান রক্ষণে ত্রাসের সঞ্চার করেন দিবালা, মানজুকিচ, রোনালদোরা। জুভেন্টাসের এগিয়ে যাওয়া ছিল সময়ের অপেক্ষা। সেই অপেক্ষা খুব একটা দীর্ঘায়িত হতে দিলেন না ‘সুপার মারিও’ মানজুকিচ। ম্যাচের ৮ মিনিটের মাথায় এক ডিফেন্ডারকে টপকে বাঁ-দিক থেকে অ্যালেক্স সান্দ্রোর পিনপয়েন্ট ক্রস দুরন্ত হেডে পোস্টে জড়িয়ে দেন এই ক্রোয়াট স্ট্রাইকার।

পিছিয়ে পড়ে প্রথমার্ধজুড়ে ম্যাচে ফেরার চেষ্টা চালিয়ে যায় এসি মিলান; কিন্তু পাসিংয়ে দক্ষতার অভাব ছন্দ নষ্ট করে মিলানের খেলায়। তবু বিরতির ঠিক আগেই লাইফলাইন পায় তারা। সুসোর বাড়ানো বল হিগুয়াইন চিপ করতে গেলে বক্সের মধ্যে তা হাতে লাগিয়ে ফেলেন জুভে ডিফেন্ডার মাহদি বেনাতিয়া। ভিএআরের সাহায্য নিয়ে এসি মিলানকে পেনাল্টি নেয়ার নির্দেশ দেন রেফারি; কিন্তু গ্যালারির হতাশা দ্বিগুণ করে স্পটকিক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন হিগুয়াইন। বলা চলে দুরন্ত অ্যাক্রোবেটিক ডাইভে আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকারের প্রয়াস রুখে দেন জুভেন্তাস গোলরক্ষক সেজনি।

বিরতির পর ৮১ মিনিটে জুভেন্তাসের জার্সি গায়ে সিরি ‘এ’র আট নম্বর গোলটি করেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। বক্সের মধ্যে ক্যানসেলোর জোরালো শট মিলান গোলরক্ষক রুখে দিলে সুযোগসন্ধানী রোনালদো ফিরতি বল জালে জড়ান।

জুভেন্টাসের জয় নিশ্চিত হলেও ম্যাচে নাটক বাকি ছিল তখনও। জুভেন্টাসের দ্বিতীয় গোলের দুই মিনিট বাদে বেনাতিয়াকে ফাউল করে বসেন হিগুয়াইন। রেফারি হলুদ কার্ড দেখালে সিদ্ধান্তের তীব্র অসন্তোষ জানান আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।

তবে প্রতিবাদ মাত্রা অতিক্রম করলে তাকে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড অর্থাৎ লাল কার্ড দেখান রেফারি। পেনাল্টি নষ্টের পর লাল কার্ড দেখে স্বভাবতই সমর্থকদের চোখে ‘খলনায়ক’ বনে যান এই আর্জেন্তাইন। এমনকি মাঠ ছাড়ার সময় হতাশায় জুভেন্টাসের ফুটবলারদের সঙ্গে কথা কাটাকাটিতেও জড়িয়ে পড়েন তিনি।

২-০ গোলে ম্যাচ জিতে ১২ ম্যাচে ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রইলেন রোনালদোরা। সমান সংখ্যক ম্যাচ খেলে দ্বিতীয়স্থানে থাকা ন্যাপোলির পয়েন্ট ২৮।

(ওএস/এসপি/নভেম্বর ১২, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test