E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

আল ইসলামের হ্যাটট্রিকে ঢাকা ডায়নামাইটসের জয়

২০১৯ জানুয়ারি ১১ ১৮:১৯:৫৩
আল ইসলামের হ্যাটট্রিকে ঢাকা ডায়নামাইটসের জয়

স্পোর্টস ডেস্ক : বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) এবারের আসরের রংপুর রাইডার্সের টানা তৃতীয় জয়ের সামনে বাধা হয়ে দাঁড়ায় ১৮৪ রান। যদিও ঢাকা ডায়নামাইটসের শুরুটা যে গতিতে হয়েছে লক্ষ্যটা আরও বড় হওয়ার সম্ভাবনা ছিল। তবে এই সংগ্রহ নিয়েই ২ রানে জয় পায় ঢাকা।

১৮৪ রানের বড় লক্ষ্যে খেলতে নেমে রংপুরের দুই ওপেনার বিশ্ব তারকা ক্রিস গেইল ও মেহেদি মারুফের শুরুটা হয় খুবই ধীর গতির। গেইলের কাছ থেকে ধুমধারাক্কা ব্যাটিং দেখার অপেক্ষায় থাকা দর্শকদের এবারও হতাশ করেন এই ক্যারিবিয়ান। এক ছক্কা হাঁকালেও ৮ বলেই ফেরেন তিনি। কিন্তু ম্যাচে উত্তেজনা ছড়িয়ে দিয়ে যান। তাকে আউট করতে যে ক্যাচটি নিলেন তার স্বদেশী আদ্রে রাসেল তা অনেকদিন ঢাকার দর্শকদের মনে গেঁথে থাকবে।

শুভগত হোমের করা ইনিংসের তৃতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে এলবির আবেদন করেন গেইলের বিরুদ্ধে। কিন্তু গেইল রিভিউ নিয়ে বসেন। তৃতীয় আম্পায়ার দেখে-শুনে-বুঝে নট আউট ঘোষণা করেন গেইলকে। পরের বলেই হাঁকিয়ে বসেন সজোরে। কিন্তু দুর্ভাগ্যই বলতে হবে এই ইউনিভার্সাল বসের। আন্দ্রে রাসেল ও পোলার্ডের যৌথ প্রচেষ্টার এক দুর্দান্ত ক্যাচে ফিরতে হয় তাকে।

বর্ডার লাইনে দাঁড়ানো রাসেল বলটি ধরে ফেলেন ঠিকই কিন্তু নিজেকে সামলাতে না পেরে সীমানার বাইরে পড়ে যান। তবে পড়ে যাওয়ার আগে বলটি শূন্যে ছুড়ে দেন যা লুফে নেন পোলার্ড। ৯ বলে ৮ রান করেই ফিরতে হয় গেইলকে। তার ফেরার পরের ওভারেই ১০ বলে ১০ রান করে বিদায় নেন আরেক ওপেনার মারুফ। রাসেলের বলে উইকেটের পেছনে নুরুল হাসান সোহানের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি।

তবে রানের চাকা দারুণভাবে সচল রাখেন রাইলি রুশো ও মোহাম্মদ মিঠুন। সুনীল নারাইনের করা এক ওভারেই দুজনে নিয়ে নেন ২২ রান।

দুর্দান্ত খেলেন রুশো। দলকে টেনে নিয়ে যান ১৪৩ রানে। বোলারদের এক প্রকার তুলোধুনো করে দ্রুতই হাফসেঞ্চুরি তুলে নিয়ে এগোতে থাকেন সেঞ্চুরির দিকে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবেই স্ট্যাম্পিং হয়ে ফেরেন তিনি। ভাঙ্গে ১২১ রানের জুটি। যাওয়ার আগে ৪৪ বলে ৮৩ রানের বড় ইনিংস খেলেন রুশো। যা বিপিএলের ষষ্ঠ আসরের এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর।

রংপুরের আরেক নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান রবি বোপারা অবশ্য টিকতে পারলেন না বেশি সময়। ৪ বলে ৩ রান করে ঢাকা অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের বলে ফেরেন তিনি।

রুশোর সঙ্গে মিলে দারণভাবে ব্যাট চালান মিঠুনও। তবে হাফ সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ১ রান দূরে থাকতেই আলিস ইসলামের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন তিনি। রংপুর অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা খেলতে পারলেন মাত্র এক বল। আলিসের বলে শূন্য রানে বোল্ড হয়ে ফেরেন তিনিও।

সবাইকে অবাক করে দিয়ে বিপিএল ষষ্ঠ আসরের প্রথম হ্যাটট্রিকের মালিক হয়ে গেলেন আলিস। মিঠুন, মাশরাফির পর ফরহাদ রেজাকেও ফেরান এই অফস্পিনার। এই ধ্বসের পর আর কোনোভাবেই ম্যাচে ফিরতে পারেনি রংপুর।

শেষের দিকে হাওয়েলের ৮ বলে ১৩ রান কিছুটা জয়ের আশা দেখালেও, নারাইনের বল বোল্ড হয়ে ফেরার পর তা আর সম্ভব হয়নি। ৯ রানে শফিউল ইসলাম আর ১ রানে নাজমুল ইসলাম অপু অপরাজিত থাকেন।

ঢাকার হয়ে হ্যাটট্রিক করা আলিস নেন ৪ উইকেট। এছাড়া দুই উইকেট নেন নারাইন। একটি করে উইকেট নেন সাকিব, রাসেল ও হোম।

আগের দুই ম্যাচে নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি ঢাকা ডায়নামাইটসের ক্যারিবীয় দানব কাইরন পোলার্ড। কিন্তু রংপুরের বিপক্ষে তার ব্যাটে যেন স্ট্রোকের ফুলঝুরি ছুটলো। শুরুটা কিছুটা দেখেশুনে করলেও খোলস ছেড়ে বের হতে বেশি সময় নেননি এই বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান। চলতি আসরের দ্রুততম ফিফটি হাঁকিয়ে দলকে এনে দিয়েছেন বড় সংগ্রহ। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৯ উইকেট হারিয়ে রংপুরকে ১৮৪ রানের টার্গেট দিয়েছে ঢাকা।

আগের দুই ম্যাচে ঢাকার দুই ওপেনার হজরতুল্লাহ জাজাই ও সুনীল নারাইন ব্যাট হাতে ঝড় তুললেও আজকের ম্যাচে দুজনেই বিদায় নেন দলীয় ১৯ রানের মধ্যেই। ৩ বলে ১ রান করে রংপুর রাইডার্সের স্পিনার সোহাগ গাজীর বলে বোল্ড হয়ে ফিরেছেন আফগান তারকা জাজাই। আর ৯ বলে ৮ রান করে মাশরাফি বিন মর্তুজার বলে রবি বোপারার হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নিয়েছেন নারাইন।

নারাইনের পর ক্রিজে আসা রনি তালুকদার কিছুটা আগ্রাসী শুরু করেন। কিন্তু ইনিংস বড় করতে পারেননি। ৮ বলে ২ চার ও ১ ছক্কায় ১৮ রান করে সোহাগ গাজীর দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফেরেন তিনি। এরপর অধিনায়ক সাকিব আল হাসান দলের হাল ধরেন। কিন্তু দলীয় ৬৪ রানে তার সঙ্গী মিজানুর রহমানকে (১৫) লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে বিদায় করেন বেনি হওয়েল।

মিজানুরের বিদায়ে ক্রিজে আসা কাইরন পোলার্ড বোলারদের উপর রীতিমত ধ্বংসযজ্ঞ চালান। তার আগ্রাসী ব্যাটিংয়ের বড় শিকার হয়েছেন নাজমুল ইসলাম অপু। এই বাঁহাতি স্পিনারের এক ওভারেই ৩ ছক্কা হাঁকিয়েছেন ক্যারিবীয় দানব। এরপর মাত্র ২১ বলে তুলে নিয়েছেন এবারের আসরে তার প্রথম ফিফটি। চলতি আসরের দ্রুততম ফিফটি এটি। আগের কীর্তিটি ছিল তারই সতীর্থ জাজাইয়ের (২২ বলে)।
শেষ পর্যন্ত দলের পঞ্চম উইকেট হিসেবে বিদায় নেওয়ার আগে মাত্র ২৬ বলে ৫ চার আর ৪ বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ৬২ রান সংগ্রহ করেন পোলার্ড। স্ট্রাইক রেট ২৩৮.৪৬! বেনি হওয়েলের বলে তুলে মারতে গিয়ে ডিপ মিড উইকেটে থাকা মেহেদি মারুফের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি। দলের সংগ্রহ তখন ১৫.১ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৪২ রান।

পোলার্ডের বিদায়ের পরের ওভারে ফরহাদ রেজার বলে উইকেটরক্ষক মোহাম্মদ মিঠুনের হাতে সহজ কাচ দিয়ে বিদায় নেন সাকিব। আউট হওয়ার আগে ৩৭ বলে ৪ চারে ৩৬ রানের কার্যকরী ইনিংস উপহার দেন ঢাকা অধিনায়ক। শেষদিকে আরেক ক্যারিবীয় তারকা আন্দ্রে রাসেলও ঝড় তোলেন। ১৩ বলে ৩ ছক্কায় তার ২৩ রানের ইনিংসটি শেষ হয় শফিউল ইসলামের বলে। ইনিংসের ওই শেষ ওভারেই ঢাকার আরও ২ উইকেট তুলে নিয়েছেন শফিউল।

রংপুর রাইডার্সের হয়ে ৪ ওভারে ৩৫ রান খরচে ৩ উইকেট নিয়েছেন শফিউল ইসলাম। সমান ওভারে ২৫ রান খরচে ২ উইকেট তুলে নিয়েছেন বেনি হওয়েল। ২ উইকেট ঝুলিতে পুরেছেন সোহাগ গাজীও। আর ৪ ওভারে ২২ রান খরচে ১ উইকেট তুলে নিয়েছেন অধিনায়ক মাশরাফি। বাকি উইকেট গেছে ফরহাদ রেজার দখলে।

এর আগে শুক্রবার (১১ জানুয়ারি) মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে ফিল্ডিং বেছে নেন রংপুর রাইডার্সের অধিনায়ক মাশরাফি।

এখন পর্যন্ত কোনো ম্যাচ না হারা ঢাকা ডায়নামাইটস বিপিএলের বর্তমান পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে অবস্থান করছে।

(ওএস/এসপি/জানুয়ারি ১১, ২০১৯)

পাঠকের মতামত:

২৪ জানুয়ারি ২০১৯

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test