Pasteurized and Homogenized Full Cream Liquid Milk
E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

ম্যাচে তিনদিনেই ফল আসা সম্ভব : রোডস

২০১৯ মার্চ ০৯ ১৫:৪৫:২৪
ম্যাচে তিনদিনেই ফল আসা সম্ভব : রোডস

স্পোর্টস ডেস্ক : ওয়েলিংটন টেস্টের প্রথম দুইদিনই ভেসে গিয়েছে বৃষ্টিতে। প্রকৃতির মন খারাপের ভাব এতোই প্রকট ছিলো যে দুইদিনেও ম্যাচের টস করা যায়নি। আবহাওয়ার পূর্ভাবাস বলছে ম্যাচের বাকি তিন দিন বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। পুরোদমেই মাঠে গড়াবে খেলা।

এদিকে দুই আম্পায়ার কিছুক্ষণ অপেক্ষা করলে দ্বিতীয় দিনের শেষ বিকেলেও মিনিট ত্রিশেকের জন্য মাঠে নামাতে পারতেন দুই দলকে। কিন্তু বৃষ্টির সম্ভাবনা মাথায় রেখে তা করেননি ম্যাচের দুই আম্পায়ার পল রেইফেল এবং রুচিরা পাল্লিয়াগুরুগে। টস ছাড়াই ‘স্টাম্পস’ ঘোষণা করে দেন দ্বিতীয় দিনেরও।

আম্পায়ারদের এমন সিদ্ধান্তের প্রতি সাধুবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের প্রধান কোচ স্টিভ রোডস। তার মতে প্রায় দুইদিন বৃষ্টির কারণে কভারের নিচে থাকা উইকেটে ৩০-৪০ মিনিটের জন্য খেলতে নামা দুই দলের জন্যই হতে পারত সমান বিপদের। তাই দ্বিতীয় দিনের খেলা না হওয়ায় অসন্তুষ্ট নন রোডস।

বেসিন রিজার্ভে উপস্থিত সাংবাদিকদের রোডস বলেন, ‘আমি মনে করি দ্বিতীয় দিনে খেলা না হওয়াটা দুই দলের জন্যই ভালো হয়েছে। কারণ এমন পরিবেশে ৪০ মিনিটের জন্য ব্যাটিং করতে নামাটা যেকোনো দলের জন্যই অন্যায় হতো।’

দ্বিতীয় দিনেও খেলা না হওয়ায় ম্যাচের দৈর্ঘ্য কমে এসেছে তিন দিনে। টাইগার কোচ মনে করছেন তিনদিনেও ম্যাচের ফল আসা খুব সম্ভব। তিনি বলেন, ‘ক্রিকেট মূলত অদ্ভুত এক খেলা। আপনি প্রায়ই অনেক দুই দিন, তিন দিনের ম্যাচ দেখে থাকবেন। তাই এখনো ম্যাচে ফল আসা খুবই সম্ভব বলে মনে করি আমি। দেখা যাবে আগামীকাল প্রকৃতি আমাদের কেমন আবহাওয়া উপহার দেয়।’

তবে আবহাওয়া যেমনই হোক, ম্যাচে টসে জিতলে আগে বোলিং করবে বাংলাদেশ- তা একপ্রকার নিশ্চিতই করে দিলেন রোডস। তিনি বলেন, ‘আশা করছি আগামীকাল আমরা টসে জিতবো এবং শুরুতেই নিউজিল্যান্ডের কিছু উইকেট তুলে নিতে পারব। যদি তা না হয় তাহলে দেখেশুনে কিছু রান করতে হবে।’

টস কিংবা খেলা না হলেও দ্বিতীয় দিন বৃষ্টি থামার পর ওঠানো হয়েছিল পিচের কভার। ফলে প্রথমবারের মতো দেখা মেলে দ্বিতীয় টেস্টের উইকেটের। যেখানে ঘাসের আধিক্য এত বেশি যে আউটফিল্ডের সঙ্গে উইকেটকে আলাদা করা বেশ মুশকিল কাজই বটে। এ উইকেটে দুই দলের পেসাররাই হবেন ম্যাচের গতি নির্ধারক- তা বলে দেয়াই যায়।

তবু এমন উইকেটে খেলার অভিজ্ঞতা থাকায় সেটি কাজে আসবে বলে মনে করেন রোডস। তিনি বলেন, ‘সৌভাগ্যবশত আমাদের দলে বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় আছে যারা এখানে গত সফরে খেলে গিয়েছে। আমি তামিম ইকবালের সঙ্গে কথা বলেছি, সে জানিয়েছে গতবারের মতোই উইকেটটা। যারা প্রথমবারের মতো যারা খেলবে তাদের জন্য আমার বার্তা হলো উইকেট খালি চোখে যেমন দেখায়, তার বেশি বৈচিত্র উপহার দেয়। তাই রান করতে হলে ইতিবাচক ব্যাটিং করতে হবে।’

(ওএস/এসপি/মার্চ ০৯, ২০১৯)

পাঠকের মতামত:

২৩ মার্চ ২০১৯

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test