E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

ধোনির কথায় দুইবার টস হয়েছিল বিশ্বকাপ ফাইনালে

২০২০ মে ২৯ ১৮:০৯:১২
ধোনির কথায় দুইবার টস হয়েছিল বিশ্বকাপ ফাইনালে

স্পোর্টস ডেস্ক : দীর্ঘ ২৮ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে ২০১১ সালে দ্বিতীয়বারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপের শিরোপা জিতেছিল ভারত। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ফাইনাল ম্যাচে অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির ছক্কার মারে ৬ উইকেটে সেদিন জয় পেয়েছিল স্বাগতিকরা।

তবে সেই ম্যাচ শুরুর আগেই দেখা দিয়েছিল খানিক বিতর্ক। সাধারণত টস একবার হলেও, সেই ফাইনালে টস করতে হয়েছিল দুইবার। এর পেছনে কারণ ছিলেন ভারতীয় অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। তিনি ঠিক বুঝতে পারেননি কী কল দিয়েছেন লঙ্কান অধিনায়ক কুমার সাঙ্গাকারা। তাই তার কথায় টস করতে হয় আবার।

প্রায় এক দশক পর সেই ম্যাচের স্মৃতিচারণ করেছেন সাঙ্গাকারা। ভারতীয় অফস্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিনের সঙ্গে এক ইন্সটাগ্রাম লাইভে তিনি জানিয়েছেন কীভাবে ধোনির কারণে টস করতে হয়েছিল দুইবার।

মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে টসের আগে থেকেই গ্যালারি ছিল দর্শকে পরিপূর্ণ। ফলে সাঙ্গাকারা টসের সময় হেড ডাকলেও, ধোনি মনে করেছিলেন টেইল। পড়ে দেখা যায় টসে এসেছে হেড। ম্যাচ রেফারিও রায় দেন সাঙ্গাকারার পক্ষে। কিন্তু তা মানতে রাজি ছিলেন না ধোনি। ফলে টস করতে হয় দ্বিতীয়বার।

সে কথা জানিয়ে সাঙ্গাকারা বলেন, ‘সেদিন মাঠে প্রচুর দর্শক ছিল। শ্রীলঙ্কায় এমন হয় না সাধারণত। একবার ইডেন গার্ডেনসে এত দর্শক আর এত আওয়াজ ছিল যে আমি প্রথম স্লিপে দাঁড়ানো ফিল্ডারের সঙ্গেও কথা বলতে পারছিলাম না।’

‘ওয়াংখেড়ের টসের ঘটনাও আমার মনে আছে। সেদিন মাহি (ধোনি) নিশ্চিত ছিলো না। সে আমাকে বললো যে, আমি টেইল ডেকেছি। আমি বললাম যে, না আমি হেডই ডেকেছি। ম্যাচ রেফারিও বললেন যে আমি জিতেছি। কিন্তু মাহি বললো যে না। ফলে একটা দ্বিধাদ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়। তাই আবার টস করতে হয়।’

দ্বিতীয়বার টসেও জিতেছিলেন সাঙ্গাকারা, ‘আমি জানি না, হয়তো সৌভাগ্যবশত দ্বিতীয়বারও আমি টসে জিতি। আমার বিশ্বাস, হয়তোবা ভারত টস জিতলে তারাই আগে ব্যাটিং করতো।’

সেদিন টস জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন সাঙ্গাকারা। তবে ম্যাচ জিততে পারেননি। এ বিষয়ে বলেন, ‘আমরা জিতি অথবা হারি, যেকোন জয়-পরাজয়ে সমানভাবে প্রতিক্রিয়া দেখানোর ভারসাম্য আছে আমাদের। হাসির আড়ালে অনেক দুঃখ, হতাশা লুকিয়ে ছিল। শ্রীলঙ্কা ২ কোটি মানুষ আমাদের জেতার অপেক্ষায় ছিল। তাদের অপেক্ষাটা সেই ১৯৯৬ সাল থেকে চলছে।’

(ওএস/এসপি/মে ২৯, ২০২০)

পাঠকের মতামত:

০৮ জুলাই ২০২০

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test