E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

নিলামে সুযোগ পেয়েও কোহলিকে দলে নেয়নি দিল্লি

২০২০ জুন ২৬ ১৪:২৫:২৩
নিলামে সুযোগ পেয়েও কোহলিকে দলে নেয়নি দিল্লি

স্পোর্টস ডেস্ক : ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের প্রথম আসর থেকে এখনও পর্যন্ত রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুতেই (আরসিবি) খেলছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের বর্তমান অধিনায়ক বিরাট কোহলি। এরই মধ্যে আইপিএল ইতিহাসের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকও হয়েছেন তিনি।

অথচ কোহলিকে চাইলেই কিনতে পারতো দিল্লি ডেয়ারডেভিল (বর্তমানে দিল্লি ক্যাপিট্যালস)। ২০০৮ সালে আইপিএলের প্রথম আসরের আগে হওয়া নিলামে দিল্লির সামনে সুযোগ ছিল কোহলিকে দলে নেয়ার। কিন্তু তারা কোহলিকে না নিয়ে সবাইকে অবাক করে কিনে নিয়েছিল বাঁহাতি পেসার প্রদীপ সাঙওয়ানকে।

প্রায় এক যুগ পর সেই ঘটনার কথা জানিয়েছেন আইপিএলের সাবেক শীর্ষ কর্মকর্তা সুন্দর রমন। তিনি সামনে থেকেই সেদিন দেখেছিলেন নিলামের সকল ঘটনা। কোহলিকে না কেনার ঘটনায় সবার মতো অবাক হয়েছিলেন রমন নিজেও।

সম্প্রতি এক পডকাস্টে তিনি বলেছেন, ‘২০০৮ সালের আইপিএল নিলামের এক মাস আগেই ভারতীয় অনূর্ধ্ব-১৯ দল বিশ্বকাপ জিতেছিল। সেই দলের অধিনায়ক ছিলেন বিরাট কোহলি। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম যে যুব দলের খেলোয়াড়দের জন্য আলাদা একটি ড্রাফট থাকবে। সে মোতাবেক হওয়া ড্রাফট থেকে সুযোগ পাওয়া প্রথম খেলোয়াড় কিন্তু কোহলি ছিলেন না।’

রমন আরও যোগ করেন, ‘সবাইকে অবাক করে দিয়েন দিল্লি কোহলিকে না নিয়ে প্রদীপ সাঙওয়ানকে নেয়। তারা বলেছিল যে, দলে আর কোন ব্যাটসম্যান দরকার নেই। আসলেই হয়তো তাদের দরকার ছিল না। কারণ ভিরেন্দর শেবাগ ও এবি ডি ভিলিয়ার্সকে নিয়েছিল তারা। পরে আরসিবি নেয় কোহলিকে, বাকি গল্প তো সবারই জানা।’

সেই প্রথম আসর থেকে এখনও পর্যন্ত আরসিবিতেই রয়েছেন কোহলি। টুর্নামেন্টের ১২ আসরে ১৬৯ ইনিংসে ব্যাট করে ৩৭ গড়ে আইপিএল ইতিহাসের সর্বোচ্চ ৫৪১২ রান করেছেন তিনি। আইপিএলের ২০১৬ সালের আসরে ৪ সেঞ্চুরিসহ মোট ৯৭২ রান করেছিলেন কোহলি। যা এক আসরে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরি ও রানের রেকর্ড।

অন্যদিকে প্রদীপ সাঙওয়ানের কাছ থেকে তেমন কিছুই পায়নি দিল্লি। আইপিএলে মাত্র ৩৯ ম্যাচ খেলে ৩৫ উইকেট শিকার করতে পেরেছেন প্রদীপ, ইকোনমি রেটও প্রায় ৯ ছুঁইছুঁই। এর মধ্যে আবার ডোপ টেস্টে পজিটিভ হয়ে নিষিদ্ধও ছিলেন ১৫ মাস। ২০১১ সালে তাকে ছেড়ে দেয় দিল্লি।

(ওএস/এসপি/জুন ২৬, ২০২০)

পাঠকের মতামত:

০৬ জুলাই ২০২০

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test