E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Walton New
Mobile Version

সাকিবকে কেকেআরের অধিনায়ক না করায় বিস্মিত সাবেক কোচ

২০২৩ এপ্রিল ০১ ১৬:৩৬:৪৯
সাকিবকে কেকেআরের অধিনায়ক না করায় বিস্মিত সাবেক কোচ

স্পোর্টস ডেস্ক : এখনও আইপিএলে খেলার ছাড়পত্রই পাননি বিসিবি থেকে। অথচ, সাকিব আল হাসানকে কেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের অধিনায়ক করা হলো না, তা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন ফ্রাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টটিতে ১২ বছর কোচিং করানোর অভিজ্ঞতাসম্পন্ন টম মুডি। সানরাইজার্স হায়দরাবাদের সাবেক এই কোচের মতে, শ্রেয়াস আয়ারের দলে না থাকায় যে ধাক্কা পেয়েছে কেকেআর, সেটা সামলানোর মতো ক্রিকেটার হলেন সাকিব আল হাসান।

চোট সমস্যার কারণে অধিনায়ক শ্রেয়াস আয়ারকে এবারের আইপিএলে পাচ্ছে না কেকেআর। তার পরিবর্তে কাকে অধিনায়ক করা হবে তা নিয়ে সরগরম ছিল আইপিএল। শেষ পর্যন্ত নিতিশ রানাকেই অধিনায়ক হিসেবে বেছে নিয়েছে শাহরুখ খানের দল।

টম মুডির মতে সাকিব বিদেশি হলেও, তার ওপর নির্ভর করতে পারে কেকেআর। আইপিএলে হায়দরাবাদ ছাড়াও কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা রয়েছে মুডির। সানরাইজার্সে সাকিবেরও কোচ ছিলেন তিনি।

আইপিএলের প্রথম বছর থেকেই এই প্রতিযোগিতার সঙ্গে যুক্ত তিনি। অস্ট্রেলিয়ার সাবেক এই ব্যাটার বলেন, ‘সাকিব দক্ষ ব্যাটার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের যথেষ্ট অভিজ্ঞতা রয়েছে তার। শুধু কি বিদেশি বলে ওকে দায়িত্ব দেওয়া হল না? সাকিব এমন একজন ক্রিকেটার, যার উপর ভরসা রাখা যায়। দল নির্ভর করতে পারে।’

বাংলাদেশের অভিজ্ঞ এই অলরাউন্ডারকে ব্যাটিং অর্ডারের চার নম্বরে খেলানো উচিত বলে মনে করেন মুডি। তার মতে, কেকেআরের উচিত সাকিবকে বিশেষজ্ঞ ব্যাটার হিসাবে ব্যবহার করা। প্রয়োজন হলে স্পিনার সাকিবকে ব্যবহার করা যেতে পারে। মুডি বলেন, ‘সাকিবকে সব সময়ই অতিরিক্ত বিদেশি হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে। যখন খেলেছে, তখনও ওকে ঠিকভাবে ব্যবহার করা হয়নি। ওকে চার নম্বরে খেলালে খেলার গতি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে। সাকিবকে বলা উচিত, তুমি মূলত ব্যাটার হিসাবে খেল। প্রয়োজন হলে বল করবে। কেকেআরে যথেষ্ট স্পিনার রয়েছে। বোলার সাকিব বাড়তি সুবিধা দেবে ওদের।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্পিনার সুনিল নারিনকে কেকেআর ওপেনার হিসাবে ব্যবহার করে। এবার এই কৌশলের পরিবর্তন করা উচিত বলে মনে করেন মুডি। তিনি বলেছেন, ‘মনে হয় না নারিন এবারেও ওপেন করবে। ওটা একটা পরীক্ষা ছিল। আইপিএলের একাধিক দল এবং বিশ্বের অন্যত্রও ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে ওকে আটকানোর উপায় বের করে ফেলেছে। নারিন সাত বা আট নম্বরে বেশি কার্যকর হতে পারে।’

শ্রেয়াসের চোট কেকেআরে সবচেয়ে বড় সমস্যা বলে মনে করেন পাঞ্জাব এবং হায়দরাবাদের সাবেক কোচ। মুডির বক্তব্য, ‘সব দলের মধ্যে কেকেআরের সমস্যাই সবচেয়ে বড়। শ্রেয়াসের চোট সত্যিই বড় সমস্যা। ওর অনুপস্থিতি দলের ভারসাম্য নষ্ট করবে। তবে বিকল্প ভারসাম্য তৈরির করার মতো ক্রিকেটার রয়েছে কেকেআরের। আন্দ্রে রাসেল এবং নারিনকে ওরা সব সময় প্রথম একাদশে রাখে। মাথায় রাখা উচিত এখন ওরা প্রতিযোগিতার তরুণ ক্রিকেটারদের মধ্যে পড়ে না।’

(ওএস/এসপি/এপ্রিল ০১, ২০২৩)

পাঠকের মতামত:

১৮ জুন ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test