Ena Properties
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

জরিমানা পরিশোধে বাধ্য হলো বাটা সু

২০১৭ ডিসেম্বর ০৭ ১৭:৩৫:১০
জরিমানা পরিশোধে বাধ্য হলো বাটা সু

স্টাফ রিপোর্টার : গ্রাহক প্রতারণার অভিযোগে করা জরিমানার অর্থ পরিশোধে বাধ্য হলো বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান বাটা সু কোম্পানি (বাংলাদেশ) লিমিটেড।

বুধবার জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরে জরিমানার এক লাখ টাকার একটি চেক দিয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন অধিদফতরের উপ-পরিচালক শাহীন আরা মমতাজ।

তিনি জানান, ভোক্তার সঙ্গে একাধিকবার প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করায় গত ২৯ নভেম্বর বাটাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। আইন অনুযায়ী ৬ ডিসেম্বরের মধ্যে জরিমানার এ অর্থ পরিশোধের সুযোগ দেয়া হয়। কিন্তু তারা জরিমানা পরিশোধ না করে উল্টো মওকুফের আবেদন করলে অধিদফত তা খারিজ করে দেয়। আর নির্ধারিত সময়ে জরিমানা পরিশোধ না করায় আইন অনুযায়ী জরিমানার সমপরিমাণ অর্থের সম্পত্তি ক্রোক করতে বুধবার (৭ ডিসেমম্বর) বাটার টঙ্গীর প্রধান কার্যালয়ে অভিযানে যান ভোক্তা অধিদফতরের কর্মকর্তারা। পরে সম্পত্তি রক্ষায় জরিমানার অর্থ পরিশোধ করে বাটা কর্তৃপক্ষ।

অধিদফতর সূত্র জানায়, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯ অনুযায়ী কোনো প্রতিষ্ঠান জরিমানার অর্থ পরিশোধ না করলে সমপরিমাণ অর্থের সম্পদ ক্রোকের বিধান রয়েছে। আইনে প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করে দেয়ারও ক্ষমতা দেয়া হয়েছে।

অধিদফতর সূত্র জানায়, প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে ভোক্তাদের একই অভিযোগ বার বার আসায় ও তা প্রমাণ হওয়ায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ অনুসারে তাদেরকে দ্বিগুণ (এক লাখ টাকা) জরিমানা করা হয়।

জানা গেছে, আসিফ আহম্মেদ নামের এক ক্রেতা বাটা জুতা কেনার পর ৩০ দিনের মধ্যে ছিঁড়ে গেলে তা ফেরত দেয়ার প্রতিশ্রুতি ছিল। কিন্তু বাটা সু কোম্পানি বরাবরই তাদের এ প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে। ভোক্তাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিষয়টি শুনানিতে প্রমাণ হওয়ায় এবার তাদের বিরুদ্ধে এ জারিমানা করা হয়। ৬ ডিসেম্বরের মধ্যে জরিমানার পরিশোধ করতে কোম্পানিকে বলা হয়। এর আগে গত ৮ আগস্ট একই অভিযোগে বাটাকে জরিমানা করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

অভিযোগ বর্ণনায় দেখা যায়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. এনামুল হক গত ২০ জুন বসুন্ধরা সিটির বাটা মেগা সিটি স্টোর থেকে ৩৪৯০ টাকা দিয়ে এক জোড়া জুতা কেনেন। একদিন পর অর্থাৎ ২১ জুন তা ছিঁড়ে যায়। পরে তিনি জুতাটি পরিবর্তনের জন্য নিয়ে যান। কিন্তু বিক্রেতারা তাতে সম্মত হননি। যদিও ক্যাশ মেমোতে লেখা ছিল ৩০ দিনের মধ্যে পণ্যের কোনো সমস্যা হলে পরিবর্তন বা মেরামত করে দেয়া হবে। পরে তিনি ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরে অভিযোগ করেন। বিষয়টি প্রমাণ হওয়ায় বাটাকে জরিমানা করা হয়।

(ওএস/এসপি/ডিসেম্বর ০৭, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

১১ ডিসেম্বর ২০১৭

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test