E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে সিআইপি হলেন শামীম আহসান

২০১৮ সেপ্টেম্বর ০৫ ১৩:৪৩:৪৭
তথ্যপ্রযুক্তি খাতে সিআইপি হলেন শামীম আহসান

স্টাফ রিপোর্টার : দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিশেষ অবদানের জন্য ইজেনারেশন গ্রুপের চেয়ারম্যান ও ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বারস অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (এফবিসিসিআই) পরিচালক শামীম আহসানকে সিআইপি (রফতানি) কার্ড প্রদান করেছে সরকার।

সম্প্রতি রাজধানীর রেডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনে শামীম আহসান এর হাতে সিআইপি কার্ড তুলে দেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। ২০১৫ সালের বাণিজ্যিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ’ ব্যক্তি হিসেবে তাকে এ কার্ড প্রদান করা হয়।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সিআইপি (রফতানি) নীতিমালা-২০১৩ অনুযায়ী, ২০১৫ সালের জন্য ১৭৮ জন ব্যবসায়ীকে সিআইপি কার্ড প্রদান করা হয়। এর মধ্যে ১৯টি পণ্যখাতে ১৩৬ জন রফতানিকারক এবং পদাধিকারবলে ৪২ জন ব্যবসায়ী নেতাকে সিআইপি সিআইপি কার্ড দিয়ে সম্মানিত করেছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

শামীম আহসান দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে গত এক দশক ধরে গুরুত্বপূর্ণ নীতিমালা তৈরি ও বাস্তবায়নে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন। সিলিকন ভ্যালিভিত্তিক ১.৫ বিলিয়ন ফান্ডের বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটালের জেনারেল পার্টনারও তিনি। সাবেক এই বেসিস সভাপতি বর্তমানে এফবিসিসিআই এর পরিচালক, অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালক এবং ভেঞ্চার ক্যাপিটাল অ্যান্ড প্রাইভেট ইকুইটি অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ভিসিপিয়াব) এর চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তার প্রতিষ্ঠান ই-জেনারেশন গ্রুপ দেশের অন্যতম বৃহৎ তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে এসব প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে নেতৃত্ব দিয়ে অবদান রাখায় এই কার্ড পান তিনি।

এক প্রতিক্রিয়ায় শামীম আহসান বলেন, আমি সিআইপি মর্যাদায় সম্মানিত অনুভব করছি এবং এটি আমাকে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে আরও কঠোর পরিশ্রম করতে বড় ধরনের অনুপ্রেরণা দেবে।

সরকারি এক গেজেটের তথ্য অনুযায়ী, সিআইপি হিসেবে নির্বাচিত ব্যবসায়ীরা সচিবালয়ে প্রবেশে পাস, গাড়ির স্টিকার, জাতীয় অনুষ্ঠান ও সিটি কর্পোরেশনের নাগরিক সংবর্ধনায় আমন্ত্রণ পাবেন। বিমান, সড়ক, রেলপথ ও জলপথে সরকারি যানবাহনে আসন সংরক্ষণে অগ্রাধিকার থাকবে। এ ছাড়া বিভিন্ন জাতীয় অনুষ্ঠান ও মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনায় আমন্ত্রণ পাবেন। একই সঙ্গে সিআইপিদের জন্য ব্যবসায় সংক্রান্ত কাজে বিদেশ ভ্রমণের ক্ষেত্রে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ভিসা প্রাপ্তির জন্য সংশ্লিষ্ট দূতাবাসকে উদ্দেশ্য করে ‘লেটার অব ইনট্রোডাকশন’ ইস্যু করবে। সিআইপিরা বিমানবন্দরে ভিআইপি লাউঞ্জ-২ ব্যবহারের সুবিধা পাবেন। সিআইপি ব্যক্তিদের স্ত্রী, পুত্র, কন্যা ও নিজের চিকিৎসার জন্য সরকারি হাসপাতালে কেবিন সুবিধার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন।

বাণিজ্য সচিব শুভাশীষ বসুর সভাপতিত্বে কার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, ইপিবির ভাইস চেয়ারম্যান বিজয় ভট্টাচার্য।

(ওএস/এসপি/সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test