Pasteurized and Homogenized Full Cream Liquid Milk
E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

বাণিজ্য সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় নিতে চায় ভুটান

২০১৯ এপ্রিল ১২ ২২:২২:৪৪
বাণিজ্য সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় নিতে চায় ভুটান

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশের সঙ্গে বিদ্যমান বাণিজ্য সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে ভুটান। এ লক্ষ্যে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের সম্ভাবনাগুলো খুঁজে দেখা এবং আরও কার্যকর যোগাযোগের ওপর গুরুত্ব দিয়েছে দেশটি।

ভুটানের প্রধানমন্ত্রী মি. লোতে ছেরিং বাংলাদেশের শীর্ষ ব্যবসায়ীদের সঙ্গে এক আলোচনা সভায় এই কথা জানিয়েছেন। চার দিনের সফরে তিনি শুক্রবার ঢাকায় এসেছেন।

সন্ধ্যায় রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে ভুটানের ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদের সঙ্গে বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিন হয়।

দ্য ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। ভুটানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. টান্ডি দর্জি, ভুটানের রাষ্ট্রদূত মি. সোনাম তোবদেন রাবগে, ভুটান চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি মিস ফুব জাম এবং সেদেশের ২৬ সদস্যের একটি বাণিজ্য প্রতিনিধিদল অনুষ্ঠানে অংশ নেয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী।

এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ আলোচনায় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রী এনামুর রহমান, এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি ও পরিচালকবৃন্দসহ দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ী নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় ভুটান থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানির বিষয়ে ভারতকে সম্পৃক্ত করার ওপরে গুরুত্ব দেয়া হয়। ভুটানের প্রধানমন্ত্রীও জলবিদ্যুৎ প্রকল্পে ত্রিপাক্ষিক আয়োজনের ওপর গুরুত্ব দেন।

ভুটানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য উন্নয়নের বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে।’ তিনি কার্যকর যোগাযোগের মাধ্যমে বন্ধুপ্রতীম এ দেশ দুটির সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেন, ‘বাংলাদেশ এবং ভুটান উভয় দেশের সরকারই দারিদ্র্য বিমোচন এবং জনগণের কল্যাণে কাজ করে চলেছে।’

অনুষ্ঠানে এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, ‘প্রতিবেশী এ দেশ দুটির মধ্যকার বাণিজ্য সম্পর্ক উন্নয়নের বিপুল সম্ভাবনা থাকা সত্ত্বেও এখনো তা কাঙ্ক্ষিত পর্যায়ে উন্নীত হয়নি।’ এ প্রসঙ্গে তিনি বস্ত্রখাত, তথ্য প্রযুক্তি, নির্মাণ ইত্যাদি খাতে কাজ করার সম্ভাবনা তুলে ধরেন।

এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি মুনতাকিম আশরাফ বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতি, বিনিয়োগ পরিস্থিতি এবং ভুটানের সঙ্গে বাণিজ্য উন্নয়নের পন্থা নিয়ে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন দেন।

অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে ‘জয়েন্ট বিজনেস কাউন্সিল’গঠনের লক্ষ্যে এফবিসিসিআই এবং ভুটান চেম্বার অব কমার্সের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক সই হয়। এফবিসিসিআই সভাপতি এবং ভুটান চেম্বারের সভাপতি মিস ফুব জাম স্ব স্ব চেম্বারের পক্ষে স্মারকটিতে সই করেন।

অনুষ্ঠানে ভুটান থেকে নির্মাণ খাত, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, ভোগ্যপণ্য এবং পর্যটন ও সেবা খাতের ব্যবসায়ী নেতারা অংশ নেন। এসব খাত থেকে আসা বাংলাদেশি প্রতিনিধিরা অনুষ্ঠানে তাদের ভুটান কাউন্টারপার্টদের সঙ্গে আলোচনা করেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বাংলাদেশ ৩.৭২ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের পণ্য ভুটানে রপ্তানি করে এবং ভুটান থেকে ১৮.১০ মিলিয়ন ডলারের পণ্য আমদানি করে। ভুটানে বাংলাদেশের রপ্তানিযোগ্য পণ্যগুলো হচ্ছে কৃষিপণ্য, আকরিক, স্ল্যাগ , ওভেন গার্মেন্টস, প্লাস্টিক ও প্লাস্টিক সামগ্রী এবং ওষুধ পণ্য। আর ভুটান থেকে মূলত খনিজ পণ্য, সবজি, আয়রন ও স্টিল এবং টেক্সটাইল সামগ্রী আমদানি করা হয়।

(ওএস/পিএস/এপ্রিল ১২, ২০১৯)

পাঠকের মতামত:

২০ এপ্রিল ২০১৯

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test