E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

বাংলাদেশে বিনিয়োগে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র : শিল্পমন্ত্রী

২০২০ ফেব্রুয়ারি ২৭ ১৬:৫০:২৯
বাংলাদেশে বিনিয়োগে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র : শিল্পমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশে বিনিয়োগকারী দেশগুলোর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র শীর্ষ স্থানে রয়েছে বলে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন। বৃহস্পতিবার রাজধানীর প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে ‘ইউএস ট্রেড শো-২০২০’ উদ্বোধনকালে তিনি এ কথা জানান।

আমেরিকান চেম্বার অব কমার্স (অ্যামচেম) এবং মার্কিন দূতাবাসের যৌথ উদ্যোগে এ মেলার আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে ঢাকায় নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাসের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স জোয়ানে ওয়েগনার, অ্যামচেমের সভাপতি সৈয়দ এরশাদ আহমেদ, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের ( বিডা) নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের ৫২তম বৃহৎ বাণিজ্যিক অংশীদার বাংলাদেশ। ২০১৯ সালে মোট বাণিজ্যের পরিমাণ ৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি ছিল। যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের দ্বি-পাক্ষিক বাণিজ্যের পরিমাণ ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং বাণিজ্য ঘাটতি ধীরে ধীরে কমে আসছে।

জানা গেছে, বাংলাদেশের মোট বাণিজ্যের ৯ শতাংশের বেশি হয় যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে। গত অর্থবছরে এই বাণিজ্যের আকার ছিল ৯ দশমিক ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

শিল্পমন্ত্রী জানান, শিল্পনীতি ২০১৬-এ দেশের সর্বত্র বিশেষত রফতানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলে বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষণের জন্য বিশেষ ইনসেন্টিভ ও সুবিধা রয়েছে। নীতিতে জ্বালানি, অবকাঠামো, যোগাযোগ, কৃষি ব্যবসা, আইসিটি, শিক্ষা, পর্যটন, রিয়েল এস্টেটসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে প্রচুর সুযোগ নিশ্চিত করা হয়েছে। পাশাপশি দেশে বৈদেশিক বিনিয়োগকে আকৃষ্ট করতে বাণিজ্য ব্যবস্থার উদারীকরণ করা হয়েছে এবং নন-শুল্ক বিধিনিষেধকে উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বৈচিত্র্যময় শিল্পখাতে বিদ্যমান বিশাল সম্ভাবনার সন্ধানের জন্য সরকার ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের কাজ চলমান রয়েছে। সে সঙ্গে রাসায়নিক, প্লাস্টিক, চামড়া, সিরামিক, অটোমোবাইল, খাদ্য এবং অন্যান্য অনেক শিল্প স্থাপনের কাজ চলমান রয়েছে।

শিল্পমন্ত্রী দ্বি-পাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে দু’দেশের ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের মধ্য পারস্পরিক যোগাযোগ আরও বাড়ানোর আহ্বান জানান শিল্পমন্ত্রী।

ইউএস ট্রেড শো দু’দেশের অর্থনৈতিক সম্ভাবনা এবং সুযোগগুলোকে কাজে লাগিয়ে বিদ্যমান বাণিজ্যিক সম্পর্ক সম্প্রসারণে ভূমিকা রাখবে বলে আশা প্রকাশ করেন নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন।

অনুষ্ঠানে ট্রেড শো আয়োজকরা জানান, ট্রেড শোর ২৭তম এই আসরে ৪৬টি প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য ও সেবা প্রদর্শন করছে। শোর দ্বিতীয় দিনে ‘যুক্তরাষ্ট্রে উচ্চশিক্ষা’ ও ’যুক্তরাষ্ট্রে বাণিজ্য’ এবং তৃতীয় দিনে ইউএসএইডের কর্মকাণ্ড ও ‘যুক্তরাষ্ট্রের ইন্দো-প্যাসিফিক ইকোনমিক ভিশন’ নিয়ে সেমিনার হবে।

তিন দিনব্যাপী এ ইউএস ট্রেড শো চলবে আগামী ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা চলবে এই শো; প্রবেশ ফি ৩০ টাকা। তবে শিক্ষার্থীদের জন্য প্রবেশ মূল্য ফ্রি করা হয়েছে।

(ওএস/এসপি/ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০)

পাঠকের মতামত:

০৬ এপ্রিল ২০২০

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test