E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

প্রিয় মানুষ গোলাপ

২০১৪ এপ্রিল ০২ ১৭:৩৫:৪৬
প্রিয় মানুষ গোলাপ

এ.এইচ.হাসান : ড. আবদুস সোবহান গোলাপ ১৯৫৬ সালে ১১ অক্টোবর কালকিনি গ্রামারে এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। পিতা মৃত আলহাজ্ব মোঃ তৈয়ব আলী মিয়া ও মাতা মৃত আলহাজ্ব মিসেস আনারন নেছা। ৫ ভাই ২ বোনের মধ্যে তিনি দ্বিতীয়। ১৯৯২ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী, ছাত্রলীগ নেত্রী গুলশান আরা’র সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন এবং বর্তমানে তিনি ২ ছেলে ও ১ কণ্যা সন্তানের জনক।

১৯৮৩ সালে দেশরত্ন, জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বিদেশ গমন করে নরওয়ে ট্রন্ডহেইম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বৃত্তি নিয়ে এম.এস ডিগ্রিসহ ভাষাতত্ত্ব এবং নরওয়েজিয়ান ভাষার ওপর ডিপ্লোমা ডিগ্রি লাভ করেন। পরবর্তীতে যুক্তরাষ্ট্র নিউইয়র্ক সিটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম.এস ডিগ্রিও তার শিক্ষা জীবনের ঝুড়িতে জমা হয়। এছাড়া তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালফোনিয়াস্থ, ‘আমেরিকান ওয়ার্ল্ড ইউনির্ভাসিটি থেকে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ এন্ড সোস্যাল চেঞ্জেস’- এর ওপর পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন।

উল্লেখ্য, দশম শ্রেনীর ছাত্র অবস্থায় তিনি চরম সাহসিকতার পরিচয় দিয়ে মাতৃভূমিকে রক্ষার জন্য ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশ্রগ্রহন করেন। স্কুলে পড়া অবস্থাতেই তিনি বঞ্চিত ও মেহনতী মানুষের অধিকার আদায়ের জন্য ছাত্র রাজনীতির মাধ্যমে রাজপথে সক্রিয় ভূমিকা রাখেন।

ড. আবদুস সোবহান গোলাপ সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, মহান স্বাধীনতার স্থপিত, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শের নির্ভীক সৈনিক। তিনি ১৯৮১ সালের ১৭ ই মে জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী হিসেবে স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের প্রাক্কালেই তার স্নেহের সংস্পর্শ ও সান্নিধ্য লাভ করেন। ২০০১ সালের জাতীয় নির্বাচনের পর জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে নির্বাচনের সার্বিক মূল্যায়ন ও বিশ্লেষণ নিমিত্তে বিভিন্ন জেলায় ঘুরে তিনি তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করে রিপোর্ট প্রদান করেন। এছাড়াও তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সফরসঙ্গী হয়ে দলীয় ও রাষ্ট্রীয়ভাবে বহুবার দেশ-বিদেশ ভ্রমণ করেন।

ড. আবদুস সোবহান গোলাপ-এর উদ্যোগে সরকারি সহায়তায় মাদারীপুর-৩, কালকিনি উপজেলায় বিভিন্ন উন্নয়নমুলক কাজ যেমন- রাস্তা, কালভার্ট ও কালকিনি ইসলামিক মিশন হাসপাতাল নির্মাণ কাজ অব্যাহত রয়েছে। তার উদ্যোগে বর্তমানে কালকিনি উপজেলার রমজানপুর ইউনিয়নে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সহায়তায় বিনামূল্যে চক্ষু চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম চলছে।

রাজপথে আওয়ামী লীগ লড়াকু সৈনিক বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. আবদুস সোবহান গোলাপ যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন জাতি, ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে গণমানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখবেন বলে তিনি দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

পাঠকের মতামত:

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test