E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

এটিএম শামসুজ্জামানের মৃত্যুতে তারকাদের শোক

২০২১ ফেব্রুয়ারি ২০ ১৫:৩২:১৯
এটিএম শামসুজ্জামানের মৃত্যুতে তারকাদের শোক

বিনোদন প্রতিবেদক : বরেণ্য চলচ্চিত্র অভিনেতা এ টি এম শামসুজ্জামানের ইন্তেকালে  সংস্কৃতি অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বাংলা সিনেমার বর্ষীয়ান এই অভিনেতার মৃত্যুতে গভীর শোক ও তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন বিভিন্ন অঙ্গনের শিল্প-কলাকুশলীরা।

সুবর্ণা মুস্তফা লিখেন, আপনি আমাদের চাঁদ ভাই হিসাবে ছেড়ে যেতে এই দিনটি বেছে নিয়েছেন। এটিএম চাচা আপনি সর্বদা আমাদের সাথে থাকবেন। শান্তিতে বিশ্রাম করুন স্যার।

রোকেয়া প্রচী লিখেন, আমাদের মাঝ থেকে চলে গেলেন চিরদিনের জন্য তিনি। বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের কার্যকরী সভাপতি একুশে পদক প্রাপ্ত খ্যাতিমান অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান। অতুলনীয় এই মানুষ শ্রদ্ধায় আজীবন থাকবেন আমাদের হৃদয়ে। রাজ পথে, চলচ্চিত্রে অসাধারণ শিল্পী হয়ে তিনি থাকবেন ভালোবাসায় চিরস্মরণীয় হয়ে। দেখা হবে না আর কোনো মানববন্ধনে আপনার সাথে। শান্তিতে থাকুন।

ওমর সানী লিখেন, কিংবদন্তি চলচ্চিত্র অভিনেতা এবং চলচ্চিত্র পরিচালক, চিত্রনাট্যকার, কাহিনীকার ও নাট্যঅভিনেতা বহু গুণে গুণান্বিত একজন চলচ্চিত্রপ্রেমী সত্যি সত্যি আজ আমাদের ছেড়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) উনার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি যেন মহান আল্লাহ পাক বেহেশত নসিব করেন, আমিন।

জায়েদ খান লিখেছেন, চলে গেলেন আমাদের সকলের প্রিয় অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান। তার আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি। আল্লাহ তাকে বেহেস্ত নসিব করুন, আমীন। শিল্পী সমিতি গভীরভাবে শোকাহত।

চিত্রনায়ক তানভীর তনু লিখেছেন, না ফেরার দেশে চলে গেলেন শক্তিমান চলচ্চিত্র অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান। আপনাকে ভক্তকুল তথা বাংলার মানুষ আপনার অভিনয়ের মাধ্যমে আজীবন মনে রাখবে। বিদায় কিংবদন্তি। ওপারে ভালো থাকবেন।

চিত্রনায়ক নাদিম লিখেছেন, চলে গেলেন আমাদের সবার প্রিয় অভিনেতা এ টি এম শামসুজ্জামান স্যার। মহান আল্লাহ আপনাকে জান্নাত দান করুন।

জয়া আহসান লিখেন, আরেকজন কিংবদন্তি শিল্পীকে আজ আমরা হারালাম। তিনি ছিলেন অত্যন্ত জ্ঞানী, বিচক্ষণ এবং দূরদৃষ্টি সম্পন্ন একজন মানুষ। গেরিলা এবং চোরাবালি চলচ্চিত্রে একসাথে কাজ করার আমার সৌভাগ্য হয়েছিল। অনেক কথা অনেক স্মৃতি। সেই সময় তাঁর অফুরন্ত জ্ঞান এবং শুটিংয়ের সময় তাঁর অভিজ্ঞতা আমাকে শিল্পী এবং মানুষ হিসেবেও অনেক পরিণত করেছে। ওপারে ভালো থাকবেন এটিএম শামসুজ্জামান স্যার। আপনার শৈল্পিক গুনে ফুটিয়ে তোলা প্রতিটি চরিত্র উজ্জ্বল হয়ে থাকবে আমাদের মনে।

চিত্রনায়িকা চমক তারা লিখেন, চলে গেলেন আমাদের সবার প্রিয় অভিনেতা এ টি এম শামসুজ্জামান স্যার। মহান আল্লাহ আপনাকে জান্নাত দান করুন।

চিত্রনায়িকা পূজা চেরি লিখেছেন ,আপনি চলে গেলেন ?? ওপারে ভালো থাকবেন। কিংবদন্তিরা মারা গেলে মেনে নিতে খুব কষ্ট হয়।

আশনা হাবিব ভাবনা লিখেন, মনুষ্যত্বের মূলে আর একটি প্রকাণ্ড দ্বন্দ্ব আছে; তাকে বলা যেতে পারে প্রকৃতি এবং আত্মার দ্বন্দ্ব। স্বার্থের দিক এবং পরমার্থের দিক, বন্ধনের দিক এবং মুক্তির দিক, সীমার দিক এবং অনন্তের দিক–এই দুইকে মিলিয়ে চলতে হবে মানুষকে। এটিম আংকেল ভালো থাকুন আপনার আদর সব-সময় পেয়েছি। শুটিংয়ের সময়গুলো মনে পড়ছে খুব।

গোলাম ফরিদা ছন্দা লিখেন, একটি সকালের ঝলমলে আলো হঠাৎ স্তিমিত হয়ে গেল! কখন, কেউ টের পেলো না! এটিএম শামসুজ্জামান আংকেল কিছু বলার ভাষা নেই, বিদায়! চির শান্তিময় হোক এ নিদ্রা।

রওনক হাসান লিখেন, এই স্নেহ, আদর, ভালোবাসা আর আশীর্বাদ আর পাবো না! আর দেখা হবে না! আহহহ! আপনার আত্মার শান্তিতে থাকুক। ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা কিংবদন্তি অভিনেতা ও অভিভাবক।

চঞ্চল চৌধুরী লিখেন, শেষ পর্যন্ত সত্যটা হলো এটিএম ভাই চলে গেলেন। আর হলো না দেখা। কত সময়, কত স্মৃতি আবেগ তাড়িত হচ্ছি খুব। অপার শ্রদ্ধা শান্তিতে থাকুন আপন মানুষ এটিএম শামসুজ্জামান।

শাহনাজ খুশি লিখেন, আমাদের অতি প্রিয় সহকর্মী, প্রিয় বন্ধু, প্রিয় গুরুজন, প্রিয় অভিভাবক, বরেণ্য অভিনেতা শ্রদ্ধেয় এটিএম শামছুজ্জামান আর নেই! গভীর শোক এবং শ্রদ্ধা। খুব বেশী কষ্ট হচ্ছে কিছু লেখার ভাষা নাই।

আইরিন সুলতানা লিখেছেন, চলে গেলেন আমাদের সবার প্রিয় অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান স্যার (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মহান আল্লাহ আপনাকে জান্নাত দান করুন।

বুবলী লিখেন, বিনোদনের প্রত্যেকটি জায়গায় ছিলো আপনার পদচারণা এবং সর্বত্রই আপনি সফলতার আলো ছড়িয়েছেন আপনার দুর্দান্ত অভিনয় ক্ষমতা দিয়ে। কতটা বিচক্ষণ, দক্ষ, মেধাবী এবং পরিশ্রমী অভিনয় শিল্পী আপনি ছিলেন তা হয়তো শুধু মাত্র লেখায় প্রকাশ করা সম্ভব নয়।

জাহার মিতু লিখেন, অভিনেতারা অভিনয় করার চেষ্টা করে; আর আপনি আপনার চরিত্রকে বাস্তবে পরিণত করতেন। ছোটবেলায় আপনার জাদরেল অভিনয় দেখে আপনাকে ঘৃণা করেছি আবার কমেডি চরিত্রে দেখে হেসে লুটোপুটি হয়েছি। যখন আপনি কাঁদতেন সাথে আমরাও কেঁদেছি। আর যেদিন শুনেছি নিজের এক সন্তানকে হত্যার দায়ে আপনি অন্য সন্তানের বিচার চেয়ে কাঠগড়ায় দাঁড়িয়েছেন, সত্যি বলছি পর্দার আড়ালের সেই মানুষটার নৈতিকতা, কঠোরতা, নিষ্ঠা আর আবেগ সম্পর্কে সেদিন বুঝেছি। কি এক জ্বলন্ত উদাহরণ আপনি একজন মানুষ হিসেবে, বাবা হিসেবে, অভিনেতা হিসেবে। দুঃখ-কষ্ট সবারই থাকে তবে এমন বর্ণাঢ্য জীবন কজন পায়? আপনি থাকবেন আমাদের দোয়ায়।

(এম/এসপি/ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test