E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

বায়ু দূষণে মানুষের বুদ্ধি কমে

২০১৮ সেপ্টেম্বর ০৫ ১৭:২৮:২৩
বায়ু দূষণে মানুষের বুদ্ধি কমে

লাইফস্টাইল ডেস্ক : তীব্র বায়ু দূষণের সাথে মানুষের বুদ্ধি কমে যাবার সম্পর্ক থাকতে পারে বলে এক নতুন গবেষণায় উঠে এসেছে। নতুন গবেষণাটি পরিচালিত হয়েছে চীনে। চার বছরব্যাপী চীনের ২০ হাজার মানুষের উপর এ গবেষণা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র এবং চীনের যৌথ গবেষণার মাধ্যমে।

গবেষকরা মনে করেন, এ গবেষণাটি বিশ্বব্যাপী প্রাসঙ্গিক। বিশ্বজুড়ে শহরাঞ্চলের ৮০ শতাংশ মানুষ অনিরাপদ বায়ু দূষণের মধ্যে বসবাস করছে।

বায়ু দূষণের শিকার ব্যক্তিদের গণিত এবং মৌখিক কিছু পরীক্ষা দেয়া হয়েছিল। এর উদ্দেশ্য ছিল তাদের বুদ্ধিমত্তা যাচাই করা। গবেষেকরা দেখেছেন যে যারা বায়ু দূষণের শিকার তারা সেসব পরীক্ষায় ভালো করতে পারেনি।

পরীক্ষায় ভালো না করা এবং বায়ু দূষণের মধ্যে সংযোগ থাকলেও, এর কারণ এবং প্রভাব নিয়ে কোন কিছু প্রমাণ হয়নি এ গবেষণায়। চীনের পিকিং ইউনিভার্সিটি এবং আমেরিকার ইয়েল ইউনিভার্সিটির গবেষকরা এ দলে অন্তর্ভুক্ত ছিলেন।

এ গবেষণায় তারা বায়ুতে সালফার ডাই-অক্সাইড, নাইট্রোজেন ডাই-অক্সাইড এবং ১০ মাইক্রোমিটারের ছোট ধূলিকণা পরিমাপ করেছেন। তবে এ তিনটি দূষিত কণার মধ্যে কে কতটা দায়ী সেটি এখনো পরিষ্কার নয়। কার্বন মনোক্সাইড, ওজন এবং বড় ধরনের কণাগুলো এ গবেষণায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরেছে বিবিসি বাংলা।

ওই প্রতিবেদনে বায়ু দূষণকে অদৃশ্য ঘাতক হিসেবে বর্ণনা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলেছে প্রতি বছর বিশ্বজুড়ে ৭০ লাখ মানুষ অপরিণত বয়সে মারা যায়। বায়ু দূষণের কারণে আলজেইমারস এবং স্মৃতি ভ্রমের ঝুঁকি তৈরি করে।

ইয়েল স্কুল অব পাবলিক হেলথের গবেষক শি চেন বলেন, ‘গবেষণায় আমরা যেসব নমুনা সংগ্রহ করেছি তার মাধ্যমে আমরা বোঝার চেষ্টা করেছি যে কোন বয়সের মানুষের উপর বায়ু দূষণ কতটা প্রভাব ফেলে। আমাদের প্রাপ্ত তথ্য নতুন একটি বিষয়।’

এ গবেষণার সময় ২০১০ সালে থেক ২০১৪ সাল সময়ের মধ্যে ১০ বছর এবং তার চেয়ে বেশি বয়সী মানুষের উপর পরীক্ষা চালানো হয়। তাদের বুদ্ধিমত্তা যাচাই করার জন্য ২৪টি গণিত এবং ৩৪টি শব্দ চিহ্নিত করার প্রশ্ন দেয়া হয়েছিল।

এর আগের গবেষণায় দেখা গিয়েছিল যে বায়ু দূষণের কারণে শিক্ষার্থীদের বুদ্ধিমত্তা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। গবেষকরা বলছেন পূর্বের গবেষণার ফলাফলের সাথে সাম্প্রতিক গবেষণার ফলাফল মিলে গেছে।

যারা বায়ু দূষণের শিকার হচ্ছেন তাদের মগজ নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। বায়ুতে যেসব দূষণ কণিকা থাকে সেগুলো ছোট রাস্তা দিয়ে সরাসরি মগজে গিয়ে পৌঁছে। দূষণের শিকার অনেকের মাঝে মানসিক সমস্যাও তৈরি করতে পারে। এদের মধ্যে অনেকে মানসিক চাপে ভুগতে থাকে।

বিশ্বজুড়ে বায়ু দূষণের চিত্র:

১. বায়ু দূষণের কারণে প্রতি বছর ৭০ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়।

২. পৃথিবীর ৯১ শতাংশ মানুষ এমন জায়গায় বসবাস করে যেখানে বায়ু দূষণের মাত্রা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদিত মাত্রার চেয়ে বেশি।

৩. পৃথিবীর যে ২০টি শহর সবচেয়ে বেশি বায়ু দূষণের মধ্যে আছে তার মধ্যে ভারতের ১৪টি শহর রয়েছে। উত্তরাঞলের কানপুর শহর এ তালিকায় সবচেয়ে উপরে।

৪. বিশ্বজুড়ে প্রতি ১০জনের মধ্যে নয়জন দূষিত বায়ু সেবন করে।

গবেষকরা বলছেন, যেসব বয়স্ক মানুষের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা কম তারা সবচেয়ে বেশি বায়ু দূষণের ঝুঁকিতে আছেন। কারণ তারা প্রায়ই ঘরের বাইরে নানা ধরণের কাজের সাথে সম্পৃক্ত থাকেন।

বয়স্ক মানুষের ক্ষেত্রে বায়ু দূষণের ঝুঁকি কমানো বেশ কঠিন কাজ বলে বলে উল্লেখ করেছেন গবেষকরা। এ বিষয়টিকে বেশ উদ্বেগের বলে বর্ণনা করেছেন গবেষকরা। কারণ বৃদ্ধ বয়সে মানুষকে নানা ধরণের আর্থিক সিদ্ধান্ত নিতে হয়।

(ওএস/এসপি/সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test