Pasteurized and Homogenized Full Cream Liquid Milk
E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

চুলের সব সমস্যার সমাধান এই দশ খাবারে

২০১৯ এপ্রিল ০৩ ১৪:২৯:১১
চুলের সব সমস্যার সমাধান এই দশ খাবারে

লাইফস্টাইল ডেস্ক : চুল নিয়ে সমস্যায় ভুগেন নারী পুরুষ সকলেই। তবে এ ব্যাপারে নারীদের সমস্যা এবং বেশি চিন্তিত দেখা যায়। চুল পড়া থেকে শুরু করে চুলের ডগা ফেটে যাওয়া, শুষ্ক চুল, পাতলা চুল রুক্ষ চুল- সমস্যার শেষ নেই! আমাদের ত্বকের পাশাপাশি চুলের যত্নেও অতিরিক্ত সময় এবং যত্নের প্রয়োজন হয়। দূষণ, রাসায়নিকভাবে চাষ করা ফল এবং সবজি, দূষিত জল, মানসিক চাপ, অনুপযুক্ত পুষ্টি, পর্যাপ্ত ঘুমের অভাব, কম পানি খাওয়া, ব্যায়ামের অভাব - এসবের প্রভাব পড়ে চুলে।

চুলের এসব সমস্যায় কয়েকটি খাবার নিয়মিত খেলেই দ্রুত সমাধান পাওয়া যায়। এই খাবারগুলো কিছুকালের মধ্যেই চুলের মানে উল্লেখযোগ্য উন্নতি করে। খাবারগুলো হলো-

কুমড়ো বীজ

কুমড়া বীজ দস্তা সমৃদ্ধ এবং এটি সেলুলার উৎপাদন, কোষ বিভাগ বৃদ্ধি এবং নতুন চুল তৈরি করে এমন একটি প্রোটিন কেরাটিন গঠন করতে সাহায্য করে।

অ্যাভোকাডো

চুলের বৃদ্ধি ও ঘনত্বেরর জন্য চমৎকার কাজ করে অ্যাভাকাডো। এতে উচ্চ পরিমাণে তামা রয়েছে যা কোলাজেন এবং এলাস্টিন তৈরি করে। এছাড়া শোল মাছ, গাঢ় সবুজ শাক, সবজি এবং মেথি হরমোনের ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে যাতে চুলগুলি শক্তিশালী হয়।

ডিম

ডিম চুলের বৃদ্ধি উন্নীত করে। ডিম প্রোটিন এবং বায়োটিনের সংমিশ্রণ হওয়ায় তা চুলের জন্য স্বাস্থ্যকর।

ফ্যাটি মাছ

ম্যাকেরেল, স্যালমন এবং হেরিংয়ের মতো মাছ প্রচুর পরিমাণে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ। স্যালমনে ভিটামিন ডি এবং প্রোটিনের থাকায় তা চুল শক্তিশালী করে, চুলের গোঁড়া মজবুত করে।

বেরি

অ্যান্টিঅক্সিডেন্টসে ঠাসা বেরি চুলের জন্য দুর্দান্ত। স্ট্রবেরি, ব্লুবেরি, এবং ক্র্যানবেরি ভিটামিন সি সমৃদ্ধ, যা কোলোজেন উৎপাদন এবং লোহার শোষণে সহায়তা করে, যা চুল বৃদ্ধি বাড়ায়।

মিষ্টি আলু

মাঝারি মাপের মিষ্টি আলুতে ভিটামিন এ মসরবরাহকারী পর্যাপ্ত বিটা-ক্যারোটিন রয়েছে। আপনার খাদ্যতালিকায় এই সবজি অন্তর্ভুক্ত করুন এবং চুলের উন্নতি ঘটান।

শাক

ভিটামিন এ এবং সি, লোহা এবং ফোলেটের মতো উপাদান থাকে শাকে। লাল রক্ত কোষগুলিকে সারা শরীর জুড়ে অক্সিজেন বহন করতে সাহায্য করে এবং চুলের উন্নতি ও মেরামত করে। গাঢ় সবুজ পাতাতে পাওয়া ভিটামিন এ সিবাম উৎপাদন করতে সহায়তা করে, যা চুলের গোড়া স্বাস্থ্যকর রাখে।

সয়াবিন

সয়াবিনে থাকা স্পার্মিডাইন চুলের বৃদ্ধির জন্য পুষ্টিকর। চুলের বৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য উন্নতি দেখতে চাইলে আপনার ডায়েটে নিয়মিত স্ট্যু, স্যুপ বা সালাদ রাখুন।

তামার পাত্রে পানি পান

ধাতব এবং খনিজ পদার্থ সবসময় শরীরের উপর প্রভাব ফেলে। আগেকার দিনে মানুষ রূপো, সোনা, তামা ও কাঁসার তৈরি পাত্রেই খেত। সারা রাত যদি পানি কাঁসার গ্লাসে রাখা যায় তাহলে সকালে খালি পেতে সেই জল খেলে চুলের বৃদ্ধি এবং শরীরের উপকার হয়।

মাংস

চুলের বৃদ্ধির জন্য একেবারে অপরিহার্য প্রোটিনের উৎস হল মাংস। বিশেষ করে রেড মিট লোহার সমৃদ্ধ উৎস, যা চুলের বৃদ্ধিকে সহায়তা করে।

(ওএস/এএস/এপ্রিল ০৩, ২০১৯)

পাঠকের মতামত:

২৪ এপ্রিল ২০১৯

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test