E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

রাশিয়ান সংস্থার বৃত্তি পেয়েছে সাত বাংলাদেশি ছাত্র

২০১৮ এপ্রিল ১৬ ১৬:৩৭:৪৭
রাশিয়ান সংস্থার বৃত্তি পেয়েছে সাত বাংলাদেশি ছাত্র

বারেক কায়সার, মস্কো (রাশিয়া) : রাশিয়াতে অধ্যয়নরত সাত বাংলাদেশি মেধাবী ছাত্রকে বৃত্তি দিয়েছে রাশিয়ান সমাজ কল্যাণ সংস্থা ‘দব্রি মির’। রবিবার মস্কোর একটি রেস্টুরেন্ট আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন শেষে সংস্থাটি এ বৃত্তি প্রদান করে। 

বৃত্তি প্রাপ্তরা হলেন- পিপলস ফ্রেন্ডশীপ ইউনিভার্সিটির সৌমিত্র নিলয় বসাক ও ফয়সাল আলম, রোড অ্যান্ড অটোমোবাইল স্টেট ইউনিভার্সিটির তানজিল কবির, চুবাস স্টেট ইউনিভার্সিটির মো. নাজমুল হাসান, হায়ার স্কুল অব ইকোনোমিসের সফিকুল ইসলাম, লোবাসহেভসকু স্টেট ইউনিভার্সিটির সজীব মিয়া ও টুলা স্টেট ইউনিভার্সিটির কাদির কিবরিয়া।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, বৃত্তি প্রদানের লক্ষে সম্প্রতি রাশিয়ায় অনার্স এবং মাস্টার্সে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে আবেদন আহবান করা হয়। আবেদনকারীদের সকল পরীক্ষার নম্বরপত্র জমা দিতে বলা হয়।

এছাড়া সৃজনশীলতা প্রমাণের জন্য রাশিয়ার শিক্ষা, রাশিয়া-বাংলাদেশ সম্পর্ক এবং রাশিয়াতে বাংলাদেশি ছাত্রকল্যাণ বিষয়ে চার পৃষ্ঠার প্রবন্ধ লিখতে বলা হয়। এসব মেনে ২২ জন ছাত্রছাত্রী বৃত্তির জন্য আবেদন করে। সেখান থেকে বিজ্ঞজনদের বোর্ড বাছাই করে সাত জনকে মনোনিত করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে মূল বক্তব্য পাঠ করেন সংস্থার বোর্ড চেয়ারম্যান মামুনুল হক। উপস্থিত ছিলেন সংস্থার উপদেষ্টা সফিকুল আলম রিপন, বাংলা প্রেসক্লাব রাশিয়ার সভাপতি বারেক কায়সার, সাধারণ সম্পাদক স্বরুপ দেব, সহ-সভাপতি আকিকুল লিয়ন, রহমতউল্লাহ প্রমুখ।

সংস্থার বোর্ড চেয়ারম্যান মামুনুল হক বলেন, যারা বৃত্তির জন্য মনোনিত হয়েছেন সবাইকে শুভেচ্ছা জানাই। প্রত্যাশা করছি- বাংলাদেশি এসব ছাত্র সামনের দিনে সাফল্য ধরে রাখবে। আগামী দিনগুলিতে বৃত্তির সংখ্যা আরো বাড়ানো হবে। বাংলাদেশে অধ্যয়নরত ছাত্রছাত্রীদেরও বৃত্তি প্রদান করা হবে। এছাড়া শান্তিময় পৃথিবী গড়ার লক্ষে সবাইকে কাজ করার আহবান জানান তিনি।

উল্লেখ্য, দব্রি মির মানে হচ্ছে ‘শান্তিময় পৃথিবী’। এটি একটি অরাজনৈতিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। জাতি, ধর্ম, বর্ণ, দল মত নির্বিশেষে সবার প্রয়োজনে বা বিপদে পাশে দাঁড়ানো এই সংগঠনের প্রধান উদ্দেশ্য। হাতে হাত মিলিয়ে, কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলার পথে যখন আমরা সবাই উপলব্ধি করবো মানুষ মানুষের জন্য তখন থেকেই আমরা দেখবো একটা নতুন পৃথিবী। সেটিই হবে শান্তিময় পৃথিবী। যে পৃথিবীর রুশ নাম ‘দব্রি মির’।

(বিবি/এসপি/এপ্রিল ১৬, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test