E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্তর জন্মোৎসব

২০১৮ নভেম্বর ০৪ ১৫:৩১:৫০
শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্তর জন্মোৎসব

শিতাংশু গুহ, নিউইয়র্ক : স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায়, শহীদ হাসান এবং বিশিষ্ট শিল্পী শুভ্রা গোস্বামীর গলায় ‘আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালবাসি--’ জাতীয় সঙ্গীতের মধ্যে দিয়ে প্রবাসে এই প্রথমবারের মত ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত জন্মোৎসব পালিত হয়েছে। নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে ২রা নভেম্বর সন্ধ্যায় এ উৎসবের আয়োজন করে সদ্য গঠিত ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত পরিষদ, ইউএসএ।  এসময় সকল শ্রোতা-দর্শক  তাদের সাথে জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে ওঠেন। 

জাতীয় সংগীতের পরপরই শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত-র প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। প্রথমে প্রদীপ প্রজ্বলন এবং পরে একেক করে সবাই ফুল দিয়ে এই জাতির এই মহান মানুষটির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। সংগঠনের সভাপতি শিতাংশু গুহ’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি গ্রন্থনা, উপস্থাপনা এবং পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল লিটন। অনুষ্ঠানটি পরিকল্পনা করেন গোপাল স্যান্যাল।

শিতাংশু গুহ তার বক্তব্যে বলেন, আজ একটি ঐতিহাসিক ঘটনার জন্ম হলো, প্রবাসে শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত-র জন্মোৎসব পালন করে আপনারা সবাই একটি ইতিহাসের অংশীদার ও সাক্ষী হয়ে থাকলেন। সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি জানান, ২১শে এপ্রিল রোববার জুইস সেন্টারে প্রথম ‘শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত’ সমাৰোক বক্ত্রিতা অনুষ্ঠিত হবে। তিনি বলেন, শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্বাধীনতা পুরস্কার পেয়েছেন, তার একুশে পদক পাওয়া উচিত। এরপর ঢাকা থেকে শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত-র নাতনী এরোমা দত্ত’র শুভেচ্ছা পথ করে শোনান বাবুল রোজারিও।

সৈয়দ শামসুল হকের ‘আমার পরিচয়’ কবিতাটি অনবদ্য আবৃতি করেন বাচিক শিল্পী গোপন সাহা। এ সময় ‘বীণে স্বদেশী ভাষা মিটে কি আশা’ গানটি পরিবেশন করেন শুভ্রা গোস্বামী। অনুষ্ঠানে শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত-র ওপর একটি প্রভাষণ পাঠ করেন মিথুন আহমদ। তার পরিবেশনা ছিলো চমৎকার এবং শ্রোতারা মন্ত্রমুগ্ধের মত তার কথা শুনেন। ওবায়দুল্লাহ মামুন এরপর শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত ঠিক কি প্রস্তাবটি পাকিস্তান গণপরিষদে তুলেছিলেন তা পাঠ করে শোনান। এটিও বেশ সমাদৃত হয়।

সবশেষে সৈয়দ মোহাম্মদুল্ল্যাহ সমাপনী ভাষণ দেন এবং অনুষ্ঠাটির ভূয়সী প্রশংসা করেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত-সহ সকল শহীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা নিবেন করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। পুরো অনুষ্ঠানটি ছিলো সাজানো-গোছানো এবং মাত্র এক ঘন্টার।

হলভর্তি মানুষ পুরো অনুষ্ঠানটির ভূয়সী প্রশংসা করেন। অনেকদিন পর নিউইয়র্কে একটি সুন্দর পরিচ্ছন্ন হয়েছে বলে মনিকা রায়, নাসরিন চৌধুরী, বেলাল বেগ, ফজলুর রহমান, নিনি ওয়াহেদ, প্রিয়তোষ দে, রেজাউল বারী, ফাহিম রেজা নূর, সুশীল সাহা, মোহাম্মদ আলম, বিশ্বজিৎ সাহা, প্রতিপ দাশগুপ্ত, অধ্যাপিকা হোসনেআরা বেগম, প্রকাশ গুপ্ত, বিভাস মল্লিক, প্রদীপ সাহা ও অন্যান্যরা তাৎক্ষণিকভাবে প্রশংসা করেন।

(এস/এসপি/নভেম্বর ০৪, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১৩ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test