Occasion Banner
Pasteurized and Homogenized Full Cream Liquid Milk
E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

যুক্তরাষ্ট্রে ৫০ বছর পর 'সুপার বোল' চ্যাম্পিয়ন কানসাস সিটি  

২০২০ ফেব্রুয়ারি ০৩ ১৬:০৬:৩৯
যুক্তরাষ্ট্রে ৫০ বছর পর 'সুপার বোল' চ্যাম্পিয়ন কানসাস সিটি  

প্রবাস ডেস্ক : দীর্ঘ ৫০ বছর অপেক্ষার পর যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় 'সুপার বোল' খেলায় অবশেষে জয়ের মুখ দেখলো কানসাস সিটি চিপস। গত রবিবার অনুষ্ঠিত যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় এ ৫৪তম 'সুপার বোল' খেলায় সান ফ্রান্সিস্কো ফোরটি নাইন ইআরএস ৩১-২০ পয়েন্টে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হন কানসাস সিটি চিপস। সচরাচর রবিবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনেই ন্যাশনাল ফুটবল লীগের (এনএফএল) বাৎসরিক এ খেলা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। খেলার সময় যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় সবগুলো শহরেই ফাঁকা হয়ে যায়। সবাই খেলা দেখতেই মত্ত হয়ে ওঠে। খবর বাংলা প্রেস।

প্রতিবছর ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম রোববার সুপার বোল খেলা হয়ে থাকে। যুক্তরাষ্ট্রের মেইন থেকে ফ্লোরিডা পর্যন্ত প্রায় সকল মার্কিনিসহ বিভিন্ন দেশীয় মানুষ 'সুপার বোল' খেলার জ্বরে ভোগে এক সপ্তাহ আগে থেকেই। স্পোর্টস বারে বড় পর্দার টিভিতে এই খেলা দেখার জন্য ভিড় জমে যায়। এ খেলাকে ঘিরে বাড়িতে বাড়িতে আয়োজন করা হয় নানা ধরনের পার্টির। সবাই খেলা দেখে ভুঁড়ি ভোজ মেতে ওঠেন। বাংলাদেশে এক সময়কার আবাহনী-মোহামেডানের খেলায় এমন উত্তেজনা দেখা যেত। তবে 'সুপার বোল' সুপার বোল তার শতগুণে বড় আকারের।

সুপার বোলকে মার্কিনিরা ফুটবল বলেই ডাকেন। অথচ এ খেলাটি খেলতে হাত দিয়ে। কিন্তু কেন ফুটবল নামকরণ হয়েছে তা জানা যায়নি। এ খেলায় সব কমিউনিটির মানুষের মধ্যেও প্রাণের চঞ্চল্যতা দেখা যায়। তারাও মার্কিনিদের মতো সব কাজ ফেলে রেখে ঘরে বসে খেলা দেখেন। খেলার নিয়ম জানলে বেশ আনন্দ উপভোগ করা যায়। পৃথিবীর সব চেয়ে ব্যয়বহুল খেলা এটি। এই খেলায়ও প্রতি দলে ফুটবলের মতো ১১ জন করে মাঠে থাকে। কিন্তু একেক দলে ৩৯ জন খেলোয়াড় থাকে।

রবিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড় ৬টায় ফ্লোরিডার মায়ামি হার্ড রক স্টেডিয়ামে শুরু হয়ে প্রায় ৩ ঘন্টাব্যাপী চলে এ খেলা। কানসাস সিটি চিপস এবং সান ফ্রান্সিস্কো ফোরটি নাইন ইআরএস-এর মধ্যে চলে খেলা। খেলায় সান ফ্রান্সিস্কো ফোরটি নাইন ইআরএস ৩১-২০ হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হন কানসাস সিটি চিপস। ফ্লোরিডার মায়ামি হার্ড রক স্টেডিয়ামে ৬৭ হাজার ৪শত ১৭জন দর্শক সরাসরি উপভোগ করেন এ খেলা।

এ ছাড়াও ১শত ১৪ দশমিক ৪ মিলিয়ন দর্শক টেলিভিশনে এ খেলা উপভোগ করেছেন। টিকিটের দাম প্রায় ৪ হাজার ৫০০ ডলার থেকে ৬ হাজার ডলার পর্যন্ত। খেলার সময় ৩০ সেকেন্ড টিভি বিজ্ঞাপনের দাম ৫ দশমিক ৬ মিলিয়ন ডলার নির্ধারন করা হয়। এ খেলাকে কেন্দ্র করে গোটা যুক্তরাষ্ট্রব্যাপী বৈধভাবে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলারের জুয়া খেলাও চলে। খেলার মাঝে বিরতির সময় নৃত্য ও গান পরিবেশ্ন করেন বিশ্বখ্যাত দুই গায়িকা জেনিফার লোপেজ ও সারিকা।

(পিআর/এসপি/ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০২০)

পাঠকের মতামত:

২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test