E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

ঢাবি ছাত্রদলে নেতৃত্বে আসছেন যারা

২০১৪ মার্চ ১২ ২০:১১:২২
ঢাবি ছাত্রদলে নেতৃত্বে আসছেন যারা

ঢাবি: নতুন করে রাজপথরে আন্দোলনকে চাঙ্গা করতে নিয়মিত ছাত্রদের দিয়ে ছাত্রদলের কমিটিকে ঢেলে সাজানোর সিদ্ধান্ত আগেই নিয়েছেন দলটির সাংগঠনিক নেত্রী ও বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

সেই ধারাবাহিকতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) কমিটি ও অধিভুক্ত হলের কমিটির জন্য নিদের্শ দিয়েছেন তিনি। ছাত্রদের দিয়ে কমিটি গঠন করতে ঢাবি শিক্ষকদের দায়িত্বও দিয়েছেন।

কয়েকটি সূত্র জানায়, ছাত্রদলরে নতুন কমিটির ব্যাপারে ঢাবি শিক্ষকদের দায়িত্ব দেয়ার পর তারা ইতোমধ্যে কাজ শুরু করেছেন। এক্ষেত্রে কমিটিতে পদ পেতে যারা যোগ্য ও দক্ষ নানাভাবে তাদরে তালিকা করা হচ্ছে বলেও জানা গেছে। তবে পরবর্তীতে সব তালিকা থেকে সমন্বয় করে অতীত, ত্যাগ ও ছাত্রত্ব যাচাই করে বেগম জিয়ার কাছে সুপারিশ করা হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও হল কমিটি করার ক্ষেত্রে অনেকেরই নাম নির্ভরযোগ্য সূত্রের মাধ্যমে পাওয়া গেছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কমিটির নেতৃত্বে যারা আসতে পারনে:
সরদার আমিরুল ইসলাম সাগর (সমাজকল্যাণ), মেহেদী হাসান (অ্যাকাউন্টিং), মাইনুল ইসলাম (বাংলা), মো. রওনকুল হাসান শ্রাবণ (বাংলা), ফজলুর রহমান খোকন (সমাজবিজ্ঞান), বিশ্বজিৎ ভদ্র (সংস্কৃত), এম মুহিনউদ্দিন রাজু, (সমাজবিজ্ঞান), শহীদ মল্লাকি (ইসলামরে ইতিহাস), মো. জুয়লে হাওলাদার (বাংলা), আরফি, রুবেল, মো. আলী হাসান (বাংলা)।

এর বাইরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান কমিটি থেকেও বেশ কয়েকজন মূল নেতৃত্বে আসতে পারে।

হল কমিটিতে থাকতে পারেন যারা:
সলিমুল্লাহ মুসলিম হল: সজীব (গণযোগাযোগ ও সাংবাদকিতা), সাইদ (আরবি) মুজাহিদুর রহমান (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), হাবিবুল বাসার (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), জাফর (সমাজবিজ্ঞান), রাজু (লাইব্রেরি সায়েন্স), ওয়াসিম খান মুক্ত (ইসলামের ইতিহাস), সোহাগ (আন্তর্জাতিক সম্পর্ক), তরিকুল ইসলাম (সমাজকল্যাণ), ইলিয়াস (আইইআর), আরিফ (তথ্যবিজ্ঞান), জয় (আইন বিভাগ), জসিমউদ্দিন খান (সমাজবজ্ঞিান), মিরাজ (ফার্সি), শিপন।

হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল: মো. রাসলে মিয়া (ম্যানেজমন্টে ও ইনফরমশেন স্টিমেস), রিয়াজ (লোকপ্রশসান), রাকিব বিশ্বাস, সজল মিয়া (ইংরেজি), সোহেল (উন্নয়ন অধ্যয়ন), তারেক (আইন), এমএ হাবিব (ইসলাম শিক্ষা), মাহবুব মিয়া (আরবি), শহদিুল ইসলাম, পারভজে (লোক প্রশাসন), মো. রনি হাসান (দর্শন), সুমন (সমাজকল্যাণ), মো. খালদুন (ফারসি)।

শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল: রাশেদ ইকবাল (ইতিহাস), শ্যামল মালুম (আরবি), নাদির শাহ (ইসলামিক স্ট্যাডিজ), শফিউল আলম সৌরভ (আরবি), আসাদ (ইতিহাস), জাবেদ (আইন), আমানুল্লাহ (সঙ্গীত)।

স্যার এএফ রহমান হল: এসএম সোহেল রানা সম্রাট, মো. তাজবীর সিরাজী শিশির (ইতিহাস), মো. উজ্জল (পালি অ্যান্ড বুদ্ধিস্ট স্ট্যাডজি), রাসেল (উর্দু), গোলাম সারোয়ার সুমন (ব্যবস্থাপনা), বদিউজ্জামান পলাশ (পালি), মো. রেজায়ানুল হক সাকি (তথ্যবজ্ঞিান ও গ্রন্থাগার ব্যবস্থাপনা)।

সূর্যসেন হল: রোকনুজ্জামান (ইতিহাস বিভাগ), আশিকুর রহমান (আইন বিভাগ), নিজামুদ্দীন (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), নুর মো. তৌফিক (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), শিমুল (ইসলামের ইতিহাস), খাইরুল ইসলাম (সমাজবিজ্ঞান)।

কবি জসিমউদ্দীন হল: সোহলে রানা (শান্তি ও সংঘর্ষ), আনোয়ার পারভেজ (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), সালাহউদ্দিন শুভ (দর্শন), সাবিত হোসাইন (সমাজবিজ্ঞান), জুবায়ের মাহমুদ রাজু (বিশ্বধর্মতত্ত্ব), অলিউর রহমান জনি (বাংলা), মেহেদী ইসলাম ফুয়াদ (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), মো. রায়হান (সমাজবিজ্ঞান), মওদুদ আহমেদ (দর্শন), রিয়াজ (দর্শন), শিপন।

মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হল: আবু সুফিয়ান (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), শাওন (সমাজবিজ্ঞান), সাব্বির হোসেন সূর্য (আইইআর), মশিউর রহমান (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), এএসএম মাশোক বিল্লাহ (ইতিহাস), সিকান্দার আলী সুমন (দর্শন), আশকিুর রহমান (হিসাববিজ্ঞান)।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজবিুর রহমান হল: করিম প্রধান রনি (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), ফারহান (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), মতিউর রহমান (পালি), আশরাফুল আলম (বাংলা), আহাদ হোসেন (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), শরিফুল ইসলাম (রাষ্ট্রবিজ্ঞান), লিটন এ আর খান (দর্শন)।

ফজলুল হক মুসলিম হল: ঝলক (মনোবিজ্ঞান), রাকিব (পদার্থ বিজ্ঞান), রনি (গণিত), পারভেজ (পরিসংখ্যান), শিবলী (মৃত্তিকা পানি ও পরিবেশ), শফিক (পদার্থ বিজ্ঞান), সম্রাট (ফার্মেসি), ফজলুল হক (মৃত্তিকা), ইজাজুল কবির রয়েল (প্রাণিবিদ্যা), আবু রায়হান রনী (গণিত)।

অমর একুশে হল: অনিক (গণিত), রিয়াদ (কম্পিউটার সায়েন্স), নিলয়, শাকির, রিয়াদ, নাসির, আবুল হাসনাত, হাসান মোশারফ।

শহিদুল্লাহ হল: মির্জা গোলাম শাবু (পরিসংখ্যান), রাজিব রহমান (মৃত্তিকা বিজ্ঞান), মো. হাসনাত (মৃত্তিকা বিজ্ঞান), ইমন (গণিত), গোলাম সরোয়ার ইমন (গণিত), মাহমুদ (মৃত্তকিা বিজ্ঞান), পিয়াস (বোটানি), রাসেল (বোটানি), গোলাম সারোয়ার ইমন, ফারাবি।

জগন্নাথ হল: সজীব মজুমদার (গণিত), হেমন্ত কুমার সাহা (গণতি), সম্রাট মালাকার (ট্যুরিজম), কৃষ্ণ রায় অনাবিল, সঞ্জিব সিংহ জন, সাহস রায়, তপু সরকার, প্রসেনজিৎ কর্মকার, পাপন দাস, চন্দন মিত্র, গোবিন্দ পাল, অর্জুন চাকমা।

পাঠকের মতামত:

১৫ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test