E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

পরীক্ষামূলক সম্প্রচারে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সাফল্য

২০১৮ সেপ্টেম্বর ০৪ ২২:৫১:৫২
পরীক্ষামূলক সম্প্রচারে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সাফল্য

স্টাফ রিপোর্টার : উৎক্ষেপণের পর প্রথমবারের মতো পরীক্ষামূলক কার্যক্রমেও সফল হয়েছে বাংলাদেশের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১। দক্ষিণ এশিয়ার শীর্ষ ফুটবল প্রতিযোগিতা সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের সফল সম্প্রচারের মাধ্যমে সেবা সক্ষমতার প্রমাণ দিলো স্যাটেলাইটটি। মঙ্গলবার বিকেলে বিটিভি ও চানেল নাইন বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে এই সাফ ফুটবলের সরাসরি সম্প্রচার করে।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে চলবে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। এই সময়ে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে অন্তত ২০টি বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন পরীক্ষা হবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ কমিউনেকশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটিডেট (বিসিএসসিএল)। এবার সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রডাকশানের দায়িত্বে আছে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল নাইন।

বিসিএসসিএল জানিয়েছে, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে পৌঁছে গেছে এবং ঠিকভাবে কাজ করছে। সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের মতো একটি বড় উপলক্ষকে কেন্দ্র করে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর ব্যবহার সার্ক অঞ্চলে একটি বড় কৃতিত্বের একটি বার্তা পৌঁছে দিয়েছে।

এ প্রসঙ্গে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, প্রথম পরীক্ষাতেই দারুণ সফল বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট। কোনো ধরনের ক্রটি ছাড়া এটি কাজ করছে। অফিসিয়াল হস্তান্তরের আগেই আমরা এর সেবা পেলাম।

উল্লেখ্য গত মে-মাসে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা থেকে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণের মধ্যে দিয়ে বিশ্বের ৫৭তম দেশ হিসেবে বাংলাদেশ স্যাটেলাইট যুগে প্রবেশ করে। ৩১ জুলাই বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র থেকে গাজীপুর ও রাঙামাটির বেতবুনিয়ায় দুটি উপগ্রহ ভূ-কেন্দ্র উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গাজীপুর গ্রাউন্ড স্টেশন থেকে সার্বক্ষণিক মহাকাশে থাকা বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর গতিবিধি ও অবস্থান পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। এর দায়িত্বে আছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ফ্রান্সের থ্যালেস এলিনিয়া।

স্যাটেলাইট মহাকাশে উৎক্ষেপণের পর এখন গ্রাউন্ড স্টেশন থেকে সংকেত দিচ্ছে ও নিচ্ছে। গ্রাউন্ড স্টেশন থেকে ট্র্যাকিং ও কন্ট্রোলিংয়ের কাজ হচ্ছে এবং পুরো সিস্টেমটিকে টেস্ট করা হচ্ছে।

এদিকে সব মিলে স্যাটেলাইটটি উৎক্ষেপণ করতে খরচ হয়েছে দুই হাজার ৭৬৫ কোটি টাকা। আগামী সাত বছরের মধ্যে এই খরচ উঠবে আসবে বলে ধারণা করেছে উৎক্ষেপণকারী সংস্থা বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

(ওএস/এসপি/সেপ্টেম্বর ০৪, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test