E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

মুক্তিযুদ্ধে লায়ন তাসুগি কিয়োশি

২০১৮ আগস্ট ৩১ ২১:২৩:০৮
মুক্তিযুদ্ধে লায়ন তাসুগি কিয়োশি

প্রবীর বিকাশ সরকার


বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে পৃথিবীর অনেক দেশের নেতৃবৃন্দ এবং সাধারণ মানুষ অকুণ্ঠ সমর্থন জানিয়েছিল। এই যুদ্ধটি ছিল ব্যাপক এবং বিশাল কেননা পরাশক্তিগুলো জড়িত ছিল প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে। আমেরিকা ও চীন ছিল মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষে, পাকিস্তানের পক্ষে প্রত্যক্ষভাবেই। জাপান পরাশক্তি আমেরিকার মিত্র হওয়া সত্ত্বেও এদেশের অনেক রাজনীতিবিদ এবং বুদ্ধিজীবী প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সমর্থন দিয়েছিলেন।

তাঁরা রাজধানী টোকিওসহ দেশের বিভিন্ন শহরে জনমত সংগ্রহ ও অর্থতহবিল গঠনে ব্যক্তিগত এবং দলবদ্ধভাবে কাজ করেছেন। তাঁদের মধ্যে বেশ কয়েক জনের নাম জানা গেলেও আড়ালে রয়ে গেছেন আরও।

কিয়োতো শহরের মোমোয়ামা লায়ন্স ক্লাবের তৎকালীন গভর্নর তাসুগি কিয়োশি তেমনি একজন বিশিষ্ট জাপানি নাগরিক। এর আগে একটি প্রবন্ধে আমি এরকম চার জন বিশিষ্ট জাপানি এবং একজন তিব্বতি নাগরিকের কথা উল্লেখ করেছিলাম, তাঁরা হলেন রবীন্দ্রগবেষক অধ্যাপক কাজুও আজুমা, তানাকা তোশিহিসা, ফুকিউরা তাদামাসা, লায়ন তাসুগি কিয়োশি এবং অধ্যাপক ড.পেমা গিয়ালপো, তখন তিনি টোকিওর এশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদেশি ছাত্র ছিলেন। বর্তমানে জাপানি নাগরিকত্বধারী আন্তর্জাতিক রাজনীতিবিশেষজ্ঞ এবং একাধিক গ্রন্থ রচয়িতা।

লায়ন তাসুগি কিয়োশি সম্পর্কে লিখেছিলাম:

[টোকিও ছাড়িয়ে বহুদূরে দক্ষিণ-পশ্চিম জাপানের কিয়োতো শহরে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের প্রতি সমর্থন গড়ে উঠেছিল। তখন বহির্বিশ্বে মুক্তিযুদ্ধের প্রতি সমর্থন মানেই প্রধানত বাংলাদেশের স্বাধীনতা প্রদানে পাকিস্তানি সামরিক জান্তাকে বাধ্য আর ভারতে আশ্রিত এক কোটি শরণার্থীর ভরণপোষণের ব্যবস্থা করা। তখন শরণার্থীদের জন্য প্রয়োজন প্রচুর অর্থ। সেই অর্থ সংগ্রহে অসামান্য অবদান রেখেছিল কিয়োতোর মোমোয়ামা লায়ন্স ক্লাব--যার ছিল ১০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ওই বছর। সেই সময় এই ক্লাবের গভর্নর পদাধিকারী লায়ন তাসুগি কিয়োশি এগিয়ে এসেছিলেন সর্বশক্তি নিয়ে যে করেই হোক পূর্ব পাকিস্তান থেকে বিতাড়িত এক কোটি শরাণার্থীকে সাহায্য করতেই হবে! আর এটাই হবে ক্লাবের প্রথম আন্তর্জাতিক সহযোগিতা প্রদানের সূচনা। তিনি যখন ক্লাবের গভর্নর হন তখন নভেম্বর মাসের শেষদিক, শরণার্থী শিবিরগুলোতে মানুষের দুর্ভোগ চূড়ান্ত পর্যায়ে, সেইসব দৃশ্য জাপানি সংবাদপত্র ও টিভিতে প্রত্যক্ষ করে মর্মব্যথা অনুভব করেছিলেন। তাঁর আগের গভর্নরের ক্যাবিনেটে কলকাতা লায়ন্স ক্লাব থেকে একটি আবেদন এসেছিল শরণার্থীদেরকে আর্থিক সাহায্য করার জন্য। কিন্তু তেমন সাড়া লক্ষ করা যায়নি। লায়ন তাসুগি গভর্নর হয়েই দ্রুত উদ্যোগ গ্রহণ করেন। তিনি হিসাব করে দেখেন: জাপানে ৯০,০০০ লায়ন-সদস্য রয়েছেন। প্রত্যেক সদস্য যদি এক হাজার কিংবা দশ হাজার ইয়েন চাঁদা প্রদান করেন তাহলে বিশাল এক অঙ্কের তহবিল হয়ে যায়। এটা করা গেলে অন্যান্য সমিতি, সংস্থা, সংগঠনগুলোও এগিয়ে আসবে। তিনি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ভারতীয় দূতাবাস, জাতিসংঘ প্রভৃতি প্রতিষ্ঠান থেকে তথ্য, আলোকচিত্র ইত্যাদি নিয়ে একটি পিআর (পাবলিক রিলেশন্স) প্রামাণ্যচিত্র তৈরি করান। সেটা প্রতিটি লায়ন্স ক্লাবে প্রদর্শন করার পর বিপুল সাড়া পাওয়া যায়। আগ্রহী হয়ে ওঠেন বহু সাধারণ নাগরিক এবং বিভিন্ন সংগঠন। এই সাফল্যজনক প্রচারের কারণে প্রথম দফায় ১০০,০০০,০০ ইয়েনের সমপরিমাণ পণ্যসামগ্রী সংগৃহীত হয়। দ্বিতীয় দফায় ২০০,০০০,০০ ইয়েন সংগ্রহ করা হয়। এই টাকা জাতিসংঘের মাধ্যমে প্রেরিত হয় কলকাতায়। তৃতীয় দফায় সংগৃহীত হয় ২৮০,০০০,০০ ইয়েন। এই সংগ্রহ উপলক্ষে কিয়োতো মিলনায়তনে তৎকালীন শোওয়া স¤্রাট হিরোহিতোর রক্তের আত্মীয় প্রিন্স মিকাসা-নো-মিয়ার উপস্থিতিতে একটি ধন্যবাদ-প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন গভর্নর। এই বিপুল পরিমাণ টাকা সঠিকভাবে কার্যকরী হওয়ার জন্য লায়ন তাসুগি নিজে ভারতে গিয়ে কর্তৃপক্ষকে হস্তান্তর এবং শরণার্থীদের অবস্থা স্বচক্ষে প্রত্যক্ষ করেন। মনে করা হয় জাপান লায়ন্স ক্লাবের এটা ছিল একটি উল্লেখযোগ্য মানবিক সাহায্য তার দীর্ঘ ইতিহাসে। ]

এভাবে যাঁরা বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে মানবিক সমর্থন ও অর্থসাহায্য করেছেন আমরা তাঁদেরকে যে কী শোকাহত করেছিলাম ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্ট স্বাধীনতার সংগ্রামী স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করে, তা ব্যাখ্যা করা কঠিন! মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকেও আমরা কলঙ্কিত করেছি স্বাধীনতাবিরোধীদেরকে ক্ষমতায় বসিয়ে। এমনটি জাপানি নাগরিকরা বাঙালি জাতির কাছে কখনোই আশা করেননি! আমাদের উচিত মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের চেতনাকে সবকিছুর ঊর্ধ্বে তুলে ধরে সেইসব বিদেশি বন্ধুদের ত্যাগ-তিতিক্ষাকে সম্মানিত করা।

লেখক : জাপান প্রবাসী লেখক ও গবেষক

(ওএস/অ/আগস্ট ৩১, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২২ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test