E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

শিরোনাম:

গণমাধ্যমের লজ্জা ঢাকবেই সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম!

২০১৬ ডিসেম্বর ০১ ২২:১৭:১৮
গণমাধ্যমের লজ্জা ঢাকবেই সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম!

প্রবীর সিকদার


ফেসবুক তথা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমি এমন সব অসাধারণ বন্ধুকে পাই, যারা প্রচলিত অর্থে লিখিয়ে নন; কিন্তু অসাধারণ তাদের ভাবনার জগত, দারুণ চমৎকার ও প্রচণ্ড সাহসী তাদের প্রকাশ রীতি। ফেসবুক তথা এমন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম আমাদের সামনে না এলে হয়তো ওই বন্ধুদের এমন গুণ প্রকাশ পেতো না, কিংবা আমি তাদের লেখা ও ভাবনার জগত থেকে বঞ্চিত হতাম। এমনকি অনেকের ছোট ছোট লেখায় সামাজিক ও রাজনৈতিক নানা অসঙ্গতির চিত্র এমনভাবে উপস্থাপিত হয়, যা প্রচলিত ও স্বীকৃত গণমাধ্যমকে শুধু ছাড়িয়েই যায় না, গণমাধ্যমকে রীতিমতো লজ্জায় ফেলে দেয়; অবশ্য যদি লজ্জা থাকে।

কেউ স্বীকার করুন আর নাইবা করুন, একজন গণমাধ্যম কর্মী হিসেবে আমার বলতে দ্বিধা নেই , ফেসবুক তথা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপ্রচলিত ধারার গুণী বন্ধুদের এমন উজ্জ্বল ও সরব উপস্থিতি না থাকলে আজকের গণমাধ্যম তথা কালো টাকার পাহারাদার গণমাধ্যমের ভূমিকা, যৎসামান্য যেটুকুই থাকুক, ততোটুকু গণমুখী থাকতো কিনা আমার সন্দেহ রয়েছে। আমার খুব ইচ্ছে হয় , যদি আমার কখনো সেই সুযোগ ও যোগ্যতা হয়, বিশেষ অবদানের জন্য অন্য সব পেশার মানুষকে সরকারী ও বেসরকারি উদ্যোগে যেভাবে পদক ও নানাকিছু দিয়ে সম্মানিত করা হয়, ফেসবুক তথা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় সব গুণী বন্ধুদের জন্য তেমন একটা সম্মাননার ব্যবস্থা আমি করবো।

অবশ্য আমি নিশ্চিত, আমি যদি সেটা করতে ব্যর্থও হই, একদিন না একদিন ফেসবুক তথা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সক্রিয় দারুণ সাহসী ও গুণী লিখিয়েদের এই সমাজ আনুষ্ঠানিকভাবেই সম্মানিত করবে, করবেই।

পাঠকের মতামত:

২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test