E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

গ্রাম বাংলায় বিলুপ্তির পথে হারিকেন

২০১৮ জানুয়ারি ৩১ ১৫:০৮:৪১
গ্রাম বাংলায় বিলুপ্তির পথে হারিকেন

সঞ্জিব দাস, গলাচিপা (পটুয়াখালী) : পটুয়াখালীর গলাচিপায় গ্রামীণ বাংলার জীবনে রাতের অন্ধকার দূর করতে একটা সময় দেশের ৬৪ হাজার গ্রামের মানুষের অন্যতম ভরসা ছিল হারিকেন বা কুপি বাতি (টেমি) ।

সচিবসহ দেশ পরিচালনার দায়িত্বে উচ্চ পর্যায়ে থাকা খোঁজ করলে লক্ষ্য করা যাবে অনেকেই পড়ালেখা করেছেন হারিকেনের মৃদু আলোয়। গৃহস্থালী এবং ব্যবসার কাজেও হারিকেনের ব্যপক চাহিদা ছিল। তবে এখন সেই হারিকেনের ঠাই হয়েছে জাদুঘরে। হারিকেনের স্থান দখল করেছে নানা ধরনের বৈদ্যুতিক বাতি ।

বৈদ্যুতিক ও চায়না বাতির করনে শহরে হারিকেনের ব্যবহার অনেক আগেই বন্ধ হয়েছে। সেই আলোর প্রদীপ এখন গ্রাম থেকেও বিলুপ্ত হচ্ছে। হারিকেন জ্বালিয়েই বাড়ির উঠনে বা বারান্দায় পড়াশোনা করত শিক্ষার্থীরা । রাতের বেলায় পথ চলার জন্য ব্যবহৃত ছিল হারিকেন।

হারিকেনের জ্বালানী আনার জন্য প্রতি বাড়িতেই থাকতো কাচের বিশেষ ধরনেরে বোতল । সেই বোতলে রশি লাগিয়ে ঝুলিয়ে রাখা হতো । হাটের দিনে সেই রশিতে ঝুলাণো বোতল হাতে যেতে হতো হাটে। এ দৃশ্য বেশি দিনের নয়। সৌর বিদ্যুৎ ও পল্লীবিদ্যুতায়নের যুগে এখন আর এমন দৃশ্য চোখে পড়ে না। প্রাচীন বাংলার গ্রামীণ ঐতিহ্য কুপি বাতি (টেমি) ও হারিকেন এখন শুধুই স্মৃতি। গ্রামের অমবস্যার রাতে মিটি মিটি আলো জ্বালিয়ে মানুষের পথ চলার স্মৃতি এখনও তারা করে।

(এসডি/এসপি/জানুয়ারি ৩১, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১৩ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test