E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

এক হাতেই ভাগ্য বদলের চেষ্টা

২০১৮ এপ্রিল ০১ ১৮:০৩:১০
এক হাতেই ভাগ্য বদলের চেষ্টা

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি : এক হাতেই ভাগ্য বদলের চেষ্টা করছেন সিরাজগঞ্জের শাহজাহান । শারীরিক প্রতিবন্ধি ও ৫২ বছর বয়সে ও থেমে নেই তার কর্মের চাকা। দিনের পর দিন, শত কষ্টের বোঝা মাথায় নিয়ে পরিবারের সন্তানদের ভবিষ্যত ভেবেই মহাসড়কে জীবনের ঝুকি নিয়ে ব্যাটারি চালিত অটো রিক্সা চালিয়ে দু'বেলা দু মুঠো আহার জোগাচ্ছেন ।

সিরাজগঞ্জ জেলার সয়দাবাদ ইউনিয়নের মৃত সদাগর সরকারের ছেলে শাহজাহান সরকার (৫২)। তিনি স্বাভাবিক ভাবেই জন্ম গ্রহন করলেও মাত্র ১০-১১ বছর বয়সেই টাইফয়েড জ্বরের কাছে থেমে যাই জীবনের স্বাভাবিক স্বপ্ন। কেড়ে নেয় শাহজাহানের দুটি পা ও এক হাত।

ডাক্তার, কবিরাজ দিয়ে শত রকমের চিকিৎসা করেও ভালো হয়নি তার হাত ও পা। অবশেষে তার মাঝে ধারণা জন্ম নেয় এই রোগের কোন ঔষধ নেই। সব চিকিৎসা ভেস্তে যায় তার জীবন থেকে। গতকাল রবিবার (৩০ শে মার্চ) সয়দাবাদ এলাকাতে তার সাথে দেখা হলে এমন টাই বলেন প্রতিবেদককে।

কান্না জড়িত কন্ঠে খুব অল্প সময়ের মধ্যে তার জীবনের ঘটে যাওয়া অনেক কষ্টের দরজা খুলে বসেন শাহজাহান। তিনি প্রায় ২০বছর আগে বিয়ে করেন। বর্তমান তিনি এক ছেলে ও এক মেয়ের জনক । মেয়ে স্থানীয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রী, আর ছেলে একই প্রতিষ্ঠানের প্রথম শ্রেনীর ছাত্র।

ছেলে ও মেয়েকে নিয়েই তার যত স্বপ্ন। তার ছেলে ও মেয়েকে আর্দশবান হিসেবে গড়ে তুলতেই প্রতিবন্ধী হয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন জীবন সংগ্রামে। তিনি স্থানীয় একটি এনজিও থেকে প্রায় ৪০হাজার টাকা ঋণ নিয়ে নিজের মতো করে একটি ব্যাটারি চালিত অটো রিক্সা তৈরি করে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত সয়দাবাদ, ইকোপার্ক ও কড্ডা মোড়ের এই ব্যস্থতম মহাসড়কে রিক্সার চাকা গুড়িয়ে ১শত ৫০ থেকে ২শত টাকা রোজগার করে অতি কষ্টে সংসার চালান।

প্রতিদিন রিক্সায় এতো কম আয় কেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে বলেন, আমার এক হাত আর এক পা নেই বলে কেউ আমার রিক্সায় উটতে চাই না। প্রতিবন্ধী শাহজাহান কালো রাুসে টাইফয়েড জ্বরের কাছে হেরে গেলেও হারেননি নিজের কর্ম,সমাজ ও মানবতার কাছে।

তিনি সমাজের বিত্তবানদের উদ্দেশ্যে বলেন,তারা যদি একটু সহযোগীতা হাত বাড়িয়ে ছেলে ও মেয়ের পড়াশোনার খরচ এবং দু'বেলা দু'মুঠো আহারের ব্যবস্থা করে দেয় তাহলে আমাকে আর জীবণের ঝুকি নিয়ে মহাসড়কে অটো রিক্সা চালাতে হবে না।

এ বিষয়ে সয়দাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নবীদুল ইসলামের সাথে ফোনে প্রতিবন্ধি শাহজাহান ব্যাপারে কথা হলে তিনি বলেন, প্রতিবন্ধি শাহজাহান আমার নিকট কখন ও আসেনি তবে আমি জেনেছি যে এক হাত ও এক পা তার নেই। তবু ও সে মহাসড়কে ঝুঁকি নিয়ে রিক্সা চালিয়ে সংসার চালাই। তাই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে,তাকে প্রতিবন্ধি কার্ড ও ১০টাকা কেজি চাউলের কার্ডসহ ইউনিয়ন পরিষদের সকল সুবিধা প্রদান করব।

(এমএএম/এসপি/এপ্রিল ০১, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

১৯ নভেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test