E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

গাছে গাছে আমের মুকুল, গুনগুন শব্দে ঘুরে বেড়াচ্ছে মৌমাছি

২০২৪ ফেব্রুয়ারি ২৮ ১৪:২৬:৪০
গাছে গাছে আমের মুকুল, গুনগুন শব্দে ঘুরে বেড়াচ্ছে মৌমাছি

আবু নাসের হুসাইন, সালথা : সোনালি হলুদ রঙে ছেয়ে গেছে আম গাছ। মুকুলের মনকাড়া ঘ্রাণে মন উতালা হয়ে উঠছে।

মৌমাছির দল ঘুরে বেড়াচ্ছে গুনগুন শব্দে। ছোট পাখিরাও মুকুলে বসেছে মনের আনন্দে। এমন দৃশ্যের দেখা মিলেছে ফরিদপুরের সালথা উপজেলার বিভিন্ন এলাকার আম গাছে। এই দৃশ্যটি সবাইকে কাছে টানবে।

দেশের বিভিন্ন এলাকার মত এই উপজেলায়ও দেশীয় আম গাছ ছেঁয়ে গেছে আমের মুকুলে। গাছে গাছে আমের মুকুলের সমারোহ লক্ষ্য করা গেছে। এ অঞ্চলের প্রায় প্রতিটি আম গাছে মুকুল দেখা দিয়েছে।

সালথা উপজেলার কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এ উপজেলায় অনেক এলাকায় আমের চাষ করা হয়। সারা উপজেলা জুড়ে লক্ষাধিক আমের গাছ ও ছোট বড় মিলিয়ে শতাধিক আমের বাগান রয়েছে। আমের মুকুল আসার আগে-পরে যেমন আবহাওয়ার প্রয়োজন, এ বছর তা বিরাজ করছে।

এখন পর্যন্ত কুয়াশা কম এবং আকাশে উজ্জ্বল রোদ থাকায় আমের মুকুল সস্পূর্ণ প্রস্ফুটিত হচ্ছে। হিমসাগর, চোষা, , ল্যাংড়া, ফজলি, আলতাপেটি, রানি পছন্দ, দুধ সর, আমরুপালি, লক্ষনভোগ, ফজলি ইত্যাদি জাতের আম চাষ হয় এ অঞ্চলে।

সরেজমিনে আমচাষীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, তারা ভালো ফলনের স্বপ্ন বুনছেন। তাদের মতে, এ উপজেলার সর্বত্র আমের মুকুল দেখা গিয়েছে।

এসব এলাকার কোনো কোনো গাছে আমের মুকুল থেকে বেরিয়েছে ছোট ছোট আম গুটি।বাগান মালিকরা আমের ভালো ফলন পেতে ছত্রাকনাশক প্রয়োগসহ বাগান পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন।

উপজেলার ভাওয়াল গ্রামের আম চাষী বিল্লাল হোসেন বলেন, আমার ৪টি আমার বাগান আছে। এখানে হরেক রকমের জাতের আম গাছ রয়েছে। সবগুলো গাছই মুকুলে ছেয়ে গেছে। এ বার কুয়াশা কম থাকায় মুকুল ভালোভাবে প্রস্ফুটিত হয়েছে। বড় ধরনের কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে এবং আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এ বছর আমের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে।

উপজেলার খারদিয়া গ্রামের তরুন আমচাষি সৈয়দ জিয়ার হোসেন বলেন, আমার চার একর জমিতে আমের গাছ রয়েছে। প্রতিটি গাছে আমের মুকুল এসেছে। আমরা মুকুলের পরিচর্যা করছি। আশা করি এবার আম খুব ভালো হবে।

সালথা উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা সুদর্শন সিকদার বলেন, সালথায় প্রতিটি অঞ্চলে গাছে গাছে এখন প্রচুর আমের মুকুল দেখা যাচ্ছে। আধুনিক পদ্ধতিতে প্রতিনিয়ত আম চাষী ও গাছ মালিকদের সঠিকভাবে মুকুল পরিচর্যা করার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।

(এএনএইচ/এএস/ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২৪)

পাঠকের মতামত:

২২ এপ্রিল ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test