E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

এক অবিচ্ছেদ্য জীবনের স্বপ্ন

২০১৪ এপ্রিল ১১ ১৫:১০:১৭
এক অবিচ্ছেদ্য জীবনের স্বপ্ন

নিউজ ডেস্ক : আধুনিক সময়, জীবনযাত্রা আর স্বার্থপরতা যখন ক্রমেই বিচ্ছিন্ন করে দিচ্ছে একে অন্যের কাছ থেকে, তখন এক শরীরের ভেতরেই বাসা বাধা দুই জমজ ভাই শিবনাথ সাহু ও শিবরাম সাহু একে অপরের কাছ থেকে কখনো আলাদা হতে চায় না।

যুক্ত যমজ হিসেবে জন্ম নেয়া এই দুই ভাই শরীর কোমড় থেকে জোড়া লাগানো। স্বাভাবিক মানুষের মতো তাদেরও রয়েছে দুটি পা। তবে কোমড়ের কাছে এসে দুজনের দুটি শরীর দুদিকে বেড়ে ওঠায় হাত রয়েছে চারটি। চিকিৎসকদের ধারণা শিবনাথ ও শিবরামের মস্তিস্ক, হৃদপিণ্ড, মেরুদণ্ড, হাত আলাদা হলেও তাদের পাকস্থলি একটাই। চিকিৎসকরা তাই বলছেন চাইলে হয়তো তারা শিবরাম ও শিবনাথকে অস্ত্রোপচার করে আলাদা করতে পারবেন। কিন্তু বেঁকে বসেছে অভিন্ন শরীরের দুই ভাই। তারা নাকি আজন্ম থাকতে চায় এক শরীরেই।

এ বিষয়ে ১২ বছর বয়সী শিবরাম বলে, ‘আমরা আলাদা হতে চাই না। আমরা এভাবেই থাকতে চাই, বুড়ো হয়ে গেলেও।’

ভারতের মধ্যপ্রদেশের একটি ছোট্ট গ্রামে জন্ম নেয়া এই দুই ভাইকে দেখলে অবশ্য কে বলবে তারা গুরুতর রকমের শারীরিক বিকৃতির শিকার। কারণ তারা কোমড়ের ওপরে দুই শরীর নিয়েই স্বাভাবিক মানুষের মতো হেঁটে চলে, খেলে বেড়ায় সবার সঙ্গে। দুজনেরই রয়েছে আলাদা আলাদা জামা, চিরুনি। তবে দুই ভাইয়ের জুতো কিন্তু এক।

শিবনাথ জানায়, তারা দুজনেই স্বাধীনভাবে চিন্তা করতে পারে। এই শরীর নিয়েও তারা সাইকেল চালিয়ে যেমন স্কুলে যেতে পারে তেমনি খেলতে পারে ক্রিকেটও। ওদের বাবা রাজ কুমার (৪৫) জানান, শিবনাথ ও শিবরাম দুজনেই খুব ভালো ছাত্র। লেখাপড়া করে তারা হয়তো অনেক বড় কিছু করতে পারবে। তবে তাদের আলাদা করা নিয়ে তিনি চিন্তিত। কারণ এভাবে থাকলে ভবিষ্যতে দুই ছেলেকে অনেক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হবে।

তিনি বলেন, ‘বিশেষ করে বর্ষাকালে তাদের পক্ষে এই শরীর নিয়ে হাঁটা কষ্টকর হয়ে যায়। সেইসঙ্গে কখনো শিবরাম শুতে চায়তো কখনো বসতে। একই সময় হয়তো শিবনাথ চাইছে ঠিক তার উল্টোটা। তবে খেলার সময় দুজনেই একমত। অনেক চ্যালেঞ্জ নিয়েও তারা প্রাকৃতিক বিকৃতির সঙ্গে লড়াই করে যাচ্ছে।’


তিনি আরো বলেন, ‘ঈশ্বর তাদের এমন করেই তৈরি করেছেন। তাই তাদের এভাবেই চলতে হবে। ওরা এভাবেই থাক। ওদের আলাদা করার প্রয়োজন নেই। আমি কিছুই চাই না।’

তবে শিবরাম ও শিবনাথের পরিবারের কেউ কেউ অবশ্য এখনো আশা ছেড়ে দেননি। ওদের আলাদা করার বিষয়ে ভারতের হরিয়ানার গুরগাঁওয়ে অবস্থিত ফরটিস মেমোরিয়াল রিসার্চ ইনিস্টিটিউটের চিকিৎসক ড. কৃষান চুগ জানান, তিনি শিবরাম ও শিবনাথের ছবি দেখেছেন। তাদেরকে বিচ্ছিন্ন করা সম্ভব। তবে পা দুটো থাকবে শিবরামের। আর শিবনাথকে হয়তো আজীবন হুইল চেয়ারেই থাকতে হবে।


(ওএস/এটি/এপ্রিল ১১, ২০১৪)

পাঠকের মতামত:

২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test