E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

শিরোনাম:

বরগুনা প্রেসক্লাবে তালাবদ্ধ করে সাংবাদিককে মারধরের অভিযোগ

২০২৪ ফেব্রুয়ারি ২০ ২৩:২৯:২৭
বরগুনা প্রেসক্লাবে তালাবদ্ধ করে সাংবাদিককে মারধরের অভিযোগ

মোঃ শাজনুস শরীফ, বরগুনা : বরগুনা প্রেসক্লাবের গেট তালাবদ্ধ করে ভেতরে আটকে কয়েকজন, দৈনিক ভোরের ডাক পত্রিকার বরগুনা প্রতিনিধি তালুকদার মাসউদ নামের এক সাংবাদিককে মারধর করে আহত করার অভিযোগ উঠেছে। ১৯ ফেব্রুয়ারি সোমবার বেলা পৌনে ১১ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

সাংবাদিক তালুকদার মাসউদের অভিযোগ ক্যারাম খেলার সময় ভিডিও করা নিয়ে তর্কের এক পর্যায়ে বরগুনা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও এনটিভির বরগুনা জেলা প্রতিনিধি সোহেল হাফিজের অনুসারিরা তার উপর হামলা করে আহত করে।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত মাছরাঙা টেলিভিশনের বরগুনা প্রতিনিধি মুশফিক আরিফ বলেন, সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে আমরা কয়েকজন বরগুনা প্রসেক্লাবে ক্যারম খেলছিলাম। এসময় প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি সোহেল হাফিজ মুঠোফোনে ভিডিও ধারণ করতে শুরু করেন। এ সময় তালুকদার মাসুদ ও সোহেল হাফিজের পাল্টা ভিডিও শুরু করেন।এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে তর্কের এক পর্যায়ে প্রেসক্লাবের মূল ফটকে তালা দিয়ে সোহেল হাফিজের নেতৃত্বে তার অনুসারী আবুল কাসেম, আরিফুল ইসলাম মুরাদ সহ বেশ কয়েকজন মিলে তালুকদার মাসউদের উপর অতর্কিত হামলা করে আটকে রাখেন। এ ঘটনা নিয়ে সোহেল হাফিজ উদ্দেশ্যমূলক ভাবে একতরফা ফেসবুক লাইভ চালিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে মিথ্যা এবং বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়েছে।

পরে বরগুনা পৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট কামরুল আহসান মহারাজ, অতরিক্তি জেলা প্রশাসক সার্বিক মোঃ ফয়সাল আহমেদ, অতিরিক্তি পুলিশ সুপার মোঃ মোজাম্মেল রেজা , সহকারী কমশিনার (ভূমি) চন্দন কর, বরগুনা সদর থানার অফসিার ইনর্চাজ মিজানুর রহমান এবং ওসি (ডিবি) মোঃ বশির আলম ঘটনাস্থলে গিয়ে হামলায় আহত তালুকদার মাসুদ তালুকদারকে হাসপাতালে পাঠাতে চাইলে সোহেল হাফিজ বাধা দেন। সদর থানার অফিসার ইনর্চাজ মোঃ মিজানুর রহমানের জোরালো হস্তক্ষেপে পুলিশ তালুকদার মাসুদকে দ্রুত বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়।সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর চিকিৎসকদের পরামর্শে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপতালে পাঠানো হয়। সেখান থেকে পুনরায় আশঙ্কাজনক অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

দ্বিপাক্ষিক আলোচনার ভিত্তিতে এই ঘটনার সুষ্ঠু সমাধানের জন্য আগামী ২ র্মাচ এক সমঝোতা বৈঠকের জন্য সময় নির্ধারণ করা হয়। এ বিষয়ে বরগুনা পৌরসভার মেয়র অ্যাডভোকেট কামরুল আহসান মহারাজ বলেন, ঘটনাটি খুবই অনাকাঙ্খিত ও লজ্জানজক। যেহেতু একটা ঘটনা ঘটেছে এটি সমাধান করা আমাদের দায়িত্ব এবং আশা করছি সকলের সহযোগীতায় এর একটা সুষ্ঠু সমাধান আমরা করতে পারব।

এ বিষয়ে এনটিভির বরগুনা প্রতিনিধি ও বরগুনা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি সোহেল হাফিজের সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

বরগুনার প্রবীন সাংবাদিক হাসানুর রহমান ঝন্টু বলেন, যা ঘটেছে খুবই লজ্জাজনক ও আপত্তিকর। এ ঘটনায় আমরা লজ্জিত। আগামী ২ মার্চ এ নিয়ে বৈঠক হবে। আশা করি এ বিষয়ে আমরা সঠিক সমাধানে পৌঁছতে পারব।

এ বিষয়ে বরগুনা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ এ কে এম মিজানুর রহমান বলেন, সবাইকে শান্ত থাকতে বলা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলার অবনতি হয় এমন কিছু যাতে না ঘটে সেজন্য সবাইকে বলা হয়েছে।

(এসএস/এএস/ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২৪)

পাঠকের মতামত:

২২ এপ্রিল ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test