Pasteurized and Homogenized Full Cream Liquid Milk
E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

বুয়েটে যাচ্ছেন শিক্ষামন্ত্রী, আন্দোলন প্রত্যাহারের আহ্বান

২০১৯ জুন ১৯ ২৩:১৩:৫৫
বুয়েটে যাচ্ছেন শিক্ষামন্ত্রী, আন্দোলন প্রত্যাহারের আহ্বান

স্টাফ রিপোর্টার : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) চলমান আন্দোলন প্রত্যাহার করার আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। শিক্ষার্থীরা আন্দোলন প্রত্যাহার করলে বৃহস্পতিবার বুয়েট ক্যাম্পাসে গিয়ে তাদের দাবি-দাওয়া মেনে তা বাস্তবায়নের আশ্বাস দেবেন বলে জানা গেছে।

বুধবার ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন, সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী, বুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি খন্দকার জামী উস সানী, সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ গেলে তিনি এমন আহ্বান জানান।

বৈঠকে মন্ত্রী ছাত্রলীগ নেতাদের জানান, শিক্ষার্থীরা যেসব দাবি জানিয়েছে তার কিছু অংশের সিদ্ধান্ত শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের, কিছু অংশ একাডেমিক কাউন্সিল বা সিন্ডিকেটের। উপাচার্যের এককভাবে দাবি মানার সুযোগ কম। তাই বিষয়গুলো পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হবে। মন্ত্রী ক্যাম্পাসে উপস্থিত হয়ে তা বাস্তবায়নের ঘোষণা দেবেন বলেও জানিয়েছেন।

বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল বলেন, বিকেলে শিক্ষার্থীদের ১৬ দফা দাবি নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আমাদের আলোচনা হয়েছে। তিনি আমাদের সকল দাবি মেনে নেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। মন্ত্রণালয়ের পক্ষে যে সকল দাবি বাস্তবায়ন করা সম্ভব তা দ্রুত করা হবে। বুয়েট প্রশাসনের অধীনে যে সকল দাবি আছে তা প্রশাসনের সঙ্গে বসে আলোচনা করে বাস্তবায়ন করার উদ্যোগ নেয়া হবে বলে মন্ত্রী জানিয়েছেন।

রাসেল বলেন, শিক্ষামন্ত্রী স্বপ্রণোদিত হয়ে বৃহস্পতিবার বুয়েট ক্যাম্পাসে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। তিনি সশরীরে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীদের দাবি-দাওয়া নিয়ে কথা বলবেন। সকল দাবি বাস্তবায়নের সুনির্দিষ্ট ঘোষণাও দেবেন বলে জানিয়েছেন।

বুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি খন্দকার জামী উস সানী বলেন, বুয়েট আন্দোলনে যেন রাজনীতি ঢুকে না যায় সেদিকে আমাদের নজর রাখতে আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। আমরা ক্যাম্পাসে যাচ্ছি, শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে যে সকল আলোচনা হয়েছে সেসব শিক্ষার্থীদের কাছে তুলে ধরা হবে। শিক্ষামন্ত্রী আমাদের দাবি মেনে নিয়েছেন তাই আন্দোলন প্রত্যাহারের আহ্বান জানানো হবে।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের সকল দাবি আমাদের সকলের, তাই মন্ত্রী আমাদের দাবি মেনে নেয়ায় এ আন্দোলন সার্থক হয়েছে বলে আমরা মনে করি। আমরা আশা করি আন্দোলকারীদের সঙ্গে বসে আলোচনা করলে সকলে আমাদের কথা শুনবে। শিক্ষামন্ত্রী আমাদের ক্যাম্পাসে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন, তার সম্মানে সকল শিক্ষার্থী আন্দোলন প্রত্যাহার করে মন্ত্রীকে বরণ করে নেবেন আশা করি।

এদিকে বুয়েট আন্দোলনের মুখপাত্র হোসেন সরোয়ার সৈকত বলেন, কারও আশ্বাসে আমরা আন্দোলন প্রত্যাহার করবে না। দৃশ্যমান অগ্রগতি ছাড়া আমাদের এ আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

সৈকত বলেন, এর আগেও ভিসি স্যার আমাদের একাধিকবার আশ্বাস দিয়েছেন। তার আশ্বাস এখনও বাস্তবায়ন হয়নি। এ কারণে আমরা বাধ্য হয়ে আন্দোলনে নেমেছি। আশ্বাস এলেই আন্দোলন প্রত্যাহার করা হবে বিষয়টি ঠিক না।

তিনি বলেন, আমাদের আন্দোলনের প্রেক্ষিতে শিক্ষামন্ত্রী বুয়েট ক্যাম্পাসে আসতে চেয়েছেন। আমরা তাকে সাধুবাদ জানাই, এটি আমাদের আন্দোলনের একটি সফলতা। তবে শিক্ষামন্ত্রী এসে আশ্বাস দিলেই আমাদের আন্দোলন থামবে না। যেই এসে আন্দোলন প্রত্যাহারের সুপারিশ করুক না কেন শিক্ষার্থীরা তা মেনে নেবে না।

এদিকে আন্দোলনে দুই দিনের বিরতি দিয়ে শিক্ষার্থীরা আগামী শনিবার থেকে ফের লাগাতার আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছেন। বুধবার পঞ্চম দিনের মতো আন্দোলন শেষে বুয়েট শিক্ষার্থী আন্দোলনের মুখপাত্র হোসেন সরোয়ার সৈকত বলেন, আমরা পাঁচদিন ধরে রাস্তায় আছি, খেয়ে-না খেয়ে আমাদের দাবির পক্ষে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছি।

সরোয়ার সৈকত বলেন, উপাচার্য শিক্ষার্থীদের নিয়ে ভাবছেন না। শনিবার থেকে আমরা লাগাতার আন্দোলন শুরু করব। আমরা দাবি মানতে বাধ্য করব।

(ওএস/এসপি/জুন ১৯, ২০১৯)

পাঠকের মতামত:

০৯ ডিসেম্বর ২০১৯

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test