E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

২৮ বছর পর শহীদ মিনারে বিভাজিত ডাকসুর শ্রদ্ধা

২০২০ ফেব্রুয়ারি ২১ ১৫:২৭:১১
২৮ বছর পর শহীদ মিনারে বিভাজিত ডাকসুর শ্রদ্ধা

স্টাফ রিপোর্টার : মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষাশহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) নেতৃবৃন্দ। এর মাধ্যমে দীর্ঘ ২৮ বছর পর ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানালো ডাকসুর নির্বাচিত কোনো কমিটি।

প্রায় তিন যুগ পরেও শ্রদ্ধা জানাতে আসা ডাকসু নেতৃবৃন্দের মাঝে দেখা গেছে ‘বিভাজন’। দিবসের প্রথম প্রহরে ঢাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ডাকসুর জিএস গোলাম রাব্বানী ও এজিএস সাদ্দাম হোসেনের নেতৃত্বে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ছাত্র পরিবহন সম্পাদক শামস ই নোমান, ডাকসুর সদস্য রকিবুল ইসলাম ঐতিহ্য, চিবল সাংমা, তিলোত্তমা শিকদারসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

তবে তাদের সঙ্গে দেখা যায়নি ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরকে। তিনি শ্রদ্ধা জানান আলাদাভাবে। ভিপি নুরুল হক নুর ও সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেন আলাদাভাবে প্রভাতফেরিতে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রদান করেন। এ সময় বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, একুশের প্রথম প্রহরে রাত ১২টা ১ মিনিটে প্রথমে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপরই পুষ্পস্তবক অর্পণ শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এসময় ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি/আমি কি ভুলিতে পারি’ গানের সুর বাজতে থাকে। পুষ্পস্তবক অর্পণের পর রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থেকে ভাষা আন্দোলনের শহীদদের গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পর স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলীয় প্রধান হিসেবে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের নিয়ে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

উল্লেখ্য, দীর্ঘ ২৮ বছর পর গত বছরের ১১ মার্চ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে নির্ধারণ হয় ডাকসুর নেতৃবৃন্দ।

(ওএস/এসপি/ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০)

পাঠকের মতামত:

২৯ মার্চ ২০২০

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test