E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

জটিলতার উন্মোচন

দ্বন্দ্ব-সংঘাতপূর্ণ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের নির্বাচন

২০২৩ ডিসেম্বর ০২ ১৬:০৯:০৫
দ্বন্দ্ব-সংঘাতপূর্ণ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের নির্বাচন

দেলোয়ার জাহিদ


কন্টিনজেন্সি থিওরির প্রয়োগ বাংলাদেশে সংঘাতপূর্ণ পরিস্থিতিতে নির্বাচনকে ঘিরে জটিল গতিশীলতা পরীক্ষা করার জন্য একটি লেন্স প্রদান করে। আখ্যানটি আওয়ামী লীগ এবং বিএনপির মধ্যে রাজনৈতিক সমঝোতার মধ্যে অসম্ভবের আপেক্ষিকতা অন্বেষণ করে, একটি শক্তিশালী নির্বাচনী কাঠামোর বিকাশ এবং দেশ পরিচালনার জন্য পারস্পরিক সহযোগিতার কথা চিন্তা করে।

এই কাঠামোটি অসম্ভবের প্রাসঙ্গিক নির্ভরতার মধ্যে পড়ে, জ্ঞানীয় সীমা স্বীকার করে, বিশ্বাসের উপর সামাজিক প্রভাব গুলি অন্বেষণ করে, যৌক্তিক সীমাবদ্ধতার সমাধান করে, উদ্ভূত ঘটনাগুলিকে হাইলাইট করে এবং কোয়ান্টাম মেকানিক্স এর অন্তর্নিহিত অনিশ্চয়তাকে বিবেচনা করে। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে গঠনমূলক সম্পৃক্ততা কি আদর্শগত দ্বন্দ্ব অতিক্রম করতে পারে? সম্ভাবনাটি খোলা মনে, শ্রদ্ধাপূর্ণ যোগাযোগ, সক্রিয় শ্রবণ এবং সাধারণ মূল্যবোধের সনাক্তকরণের মধ্যে রয়েছে যা মধ্যস্থতার মাধ্যমে সমাধান করা যেতে পারে।

জাতীয় স্বার্থের সুস্পষ্ট সংজ্ঞা, বাস্তববাদিতা, স্বচ্ছতা, দীর্ঘমেয়াদী দৃষ্টিভঙ্গি এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক প্রতিনিধিত্ব সহ গুরুত্বপূর্ণ উপাদানগুলি জাতীয় স্বার্থে অভিন্ন ভিত্তি গড়ে তোলা এবং চুক্তি অর্জনের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জাতিসংঘ এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের মতো বৈশ্বিক সংস্থা গুলোর ভূমিকা এবং প্রতিক্রিয়া রহস্যজনক রয়ে গেছে। যদিও অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের আহ্বান পুনর্ব্যক্ত করা হয়েছে, সংঘাতের মূল কারণ - সংঘাতের রাজনীতির অবসান - অধরা রয়ে গেছে। সংঘাত সমাধানে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দৃষ্টিভঙ্গি অস্পষ্ট, এবং সংঘাতের উৎস নির্মূল করার কার্যকর ব্যবস্থা এখনও দেখা যায়নি।

বাংলাদেশের জাতীয় পরিষদ নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক সূচনা বিএনপি এবং এর অংশীদারদের বয়কটের মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়েছে, নির্বাচনী প্রক্রিয়ার উপর ছায়া ফেলেছে। এই বিরোধী দলগুলোর অনুপস্থিতি নির্বাচনের আন্তর্জাতিক গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে উদ্বেগ বাড়ায়। ভয় দীর্ঘস্থায়ী হয় যে ভয় দেখানো এবং সন্ত্রাসী কৌশল ভোটারদের নিরুৎসাহিত করতে পারে, সম্ভাব্য ভাবে অনিশ্চিত বৈশ্বিক বৈধতা সহ একটি কম ভোটদানের নির্বাচনের দিকে পরিচালিত করে, যার সাথে দেশে রাজনৈতিক সংঘাত ও সহিংসতা বৃদ্ধি পায়।

নির্বাচন কমিশন এবং বাংলাদেশে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন নিশ্চিত করার জন্য প্রচেষ্টা চালাতে, বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বিভাজন ও সংঘাতকে আরও বাড়িয়ে তোলার দিকে মনোযোগ সরে গেছে বলে মনে হচ্ছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়, বিশেষ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন এর উন্নয়ন গুলো ঘনিষ্ঠভাবে পর্যবেক্ষণ করে।

উপসংহারে, যদিও অসম্ভবতা তত্ত্ব রাজনৈতিক সংলাপের চ্যালেঞ্জগুলো অন্তর্দৃষ্টি প্রদান করে, নেলসন ম্যান্ডেলার অনুরূপ একটি গঠনমূলক পদ্ধতি অপরিহার্য। জাতীয় স্বার্থ, অগ্রগতি, উন্নয়নে এবং দেশের বৈশ্বিক ভাবমূর্তি বজায় রাখার জন্য আদর্শগত পার্থক্য কাটিয়ে উঠা সর্বাগ্রে। সামনের পথ টি চ্যালেঞ্জিং, তবে সংলাপ এবং সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি বাংলাদেশে আরও সুরেলা রাজনৈতিক ল্যান্ডস্কেপের পথ প্রশস্ত করতে পারে।

লেখক: একজন মুক্তিযোদ্ধা, বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র রিসার্চ ফ্যাকাল্টি সদস্য, সভাপতি, বাংলাদেশ উত্তর আমেরিকান জার্নালিস্ট নেটওয়ার্ক, ও কানাডার বাসিন্দা।

পাঠকের মতামত:

০৫ মার্চ ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test