E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

নাগরপুরে কৃষকদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে ‘পার্চিং পদ্ধতি’ 

২০১৮ মার্চ ১৩ ১৭:৩০:৪১
নাগরপুরে কৃষকদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে ‘পার্চিং পদ্ধতি’ 

নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের নাগরপুরে কৃষকদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে ধান ক্ষেতে পার্চিং পদ্ধতি। ধান ক্ষেতের বিভিন্ন ধরনের পোকার আক্রমন ঠেকাতে কীটনাশকের ব্যবহার কমিয়ে পার্চিং পদ্ধতি কাজে লাগিয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে কাজ করছে উপজেলা কৃষি অধিদপ্তর। 

উপজেলার কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, ইরি বোরো মৌসমে ধান ক্ষেতে বিভিন্ন ধরনের পোকা আক্রমন করে থাকে। এসময় পোকার আক্রমন ঠেকাতে কৃষকরা তাদের ক্ষেতে বিভিন্ন ধরনের কীটনাশক ষ্প্রে করে থাকে। কীটনাশক ব্যবহার একদিকে যেমন ব্যয়বহুল অন্যদিকে ঝুকিপূর্ণ।

এ বিষয়টি বিবেচনা করে কীটনাশকের ব্যবহার কমিয়ে ধান ক্ষেতে পার্চিং পদ্ধতির ব্যবহার বাড়াতে উপজেলার প্রতিটি ব্লকে কৃষকদের মাঝে পার্চিং উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। এ উৎসবের মাধ্যমে কৃষকরা পার্চিং পদ্ধতি ব্যবহার ও এর উপকার সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারছে।

উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মো. ইমরান হোসেন জানান, পার্চিং পদ্ধতি হলো ধান ক্ষেতে বাঁশের কঞ্চি পূঁতে পাখি বসার ব্যবস্থা করা। ওই কঞ্চিতে বসে পাখিরা ধান ক্ষেতে আক্রমনকারী পোকা গুলোকে খেয়ে ফেলে। ফলে ক্ষেতে কীটনাশকের প্রয়োজন কম হয়।

তিনি আরো জানান, ইতোমধ্যে উপজেলার মামুদনগর, ভাদ্রা, সহবতপুর, ভারড়া ব্লকসহ অন্যান্য ব্লকে কৃষকদের মাঝে পার্চিং উৎসবের মাধ্যমে সচেতনতা বাড়ানো হয়েছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বিএম রাশেদুল আলম জানান, পার্চিং পদ্ধতির ফলে ধান ক্ষেতের ক্ষতিকর পোকা নিয়ন্ত্রণ করা যায়। ফসলের উৎপাদন ব্যায় কম হয়। কীটনাশকের ব্যবহার কম হয় ও পরিবেশ দূষণ মুক্ত রাখা যায়।

ইতোমধ্যে পার্চিং উৎসবের মাধ্যমে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করার ফলে কৃষকদের মাঝে এ পদ্ধতি ব্যাপক সাড়া ফেলেছে বলেও তিনি জানান।

(আরএসআর/এসপি/মার্চ ১৩, ২০১৮)

পাঠকের মতামত:

২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test