Pasteurized and Homogenized Full Cream Liquid Milk
E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

শিরোনাম:

ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর ১৩ সেতু উদ্বোধন

২০১৯ অক্টোবর ১৬ ১২:৩৮:৪৪
ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর ১৩ সেতু উদ্বোধন

স্টাফ রিপোর্টার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মুন্সীগঞ্জের ১৩ সেতুর উদ্বোধন করেছেন।

বুধবার সকাল ১০টার দিকে জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত ভিডিও কনফারেন্স অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এসব সেতু উদ্বোধন করা হয়েছে।

উদ্ধোধনের জন্য এই ১৩ সেতু হল-মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী উপজেলার পাঠানবাড়ি সেতু, আলদি বাজার সেতু, শ্রীনগর উপজেলার বেলতলী সেতু, ছনবাড়ী সেতু, শ্রীনগর বাজার নম্বর-১ সেতু, শ্রীনগর বাজার নম্বর-২ সেতু, আটপাড়া সেতু, হাষাড়া-১ সেতু, হাষাড়া-২ সেতু, সাতগাঁও সেতু, সিরাজদিখান উপজেলার ইমামগঞ্জ সেতু, রসুনিয়া সেতু নম্বর -১, ও রসুনিয়া নম্বর-২ সেতু।

জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ১৩ সেতু উদ্বোধন করছেন। ইতোমধ্যেই প্রস্তুতিমূলক সব কাজ শেষ করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক আরো জানান, মুন্সীগঞ্জ সড়ক বিভাগের অধীন ঝুঁকিপূর্ণ সেতুসমূহ স্থায়ী কংক্রিট সেতু দ্বারা প্রতিস্থাপন (১ম পর্যায়) প্রকল্পের আওতায় থাকছে এই ১৩ সেতু। এই প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ১৬ হাজার ৯৩৯.২১ লাখ টাকা। এই প্রকল্পের মেয়াদ ধরা হয়েছে ডিসেম্বর, ২০১৬ সাল হতে ২০২০ সালের জুন মাস পর্যন্ত। সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তর এ প্রকল্পের বাস্তবায়নকারী সংস্থা। ১৩ সেতুর মোট দৈর্ঘ্য ৫২১.২৬ মিটার ও নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে ৮৮৬২.১৫৪ লাখ টাকা।

এসময় সড়ক ও জনপদ বিভাগের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী আবদুর রহমান জানান, মুন্সীগঞ্জ সড়ক বিভাগাধীন বিভিন্ন সড়কে ৭৮টি ঝুঁকিপূর্ণ বেইলি সেতু ও ১৬টি আরসিসি জরাজীর্ণ সরু সেতুসহ সর্বমোট ৯৪টি সেতুর মধ্যে বিভিন্ন সময়ে ২৫টি সেতু নতুনভাবে আরসিসি, পিসি গার্ডার সেতু দ্বারা প্রতিস্থাপিত হয়েছে। ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে গৃহীত ‘মুন্সীগঞ্জ সড়ক বিভাগাধীন ঝুঁকিপূর্ণ বেইলি, আরসিসি সেতু সমূহ স্থায়ী কংক্রিট সেতু দ্বারা প্রতিস্থাপন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় আরও ১৩টি সেতুর নির্মাণ কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে এবং আট সেতুর নির্মাণ কাজ চলছে। ২০২০ সালের মধ্যে মুন্সীগঞ্জ সড়ক বিভাগাধীন কোন ঝুঁকিপূর্ণ বেইলি ও আরসিসি জরাজীর্ণ সেতু থাকবে না।

সড়ক ও জনপদ বিভাগের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী আবদুর রহমান আরো জানান, ১৩ সেতুর কাজ শেষ হয়েছে চলতি বছরের জুন মাসে। এছাড়া এ প্রকল্পের আওতায় আরো আট সেতুর কাজ চলমান রয়েছে। যার কাজ সম্পন্ন হতে সময় লাগবে ২০২০ সালের জুন মাসের মধ্যে সমাপ্ত হবে।

জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদারের সঞ্চালনায় এ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছেন জেলার তিনটি আসনের তিনজন সংসদ সদস্য (এমপি), জেলার পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মহিউদ্দিনসহ উপজেলা পর্যায়ের জনপ্রতিনিধিগণ।

(ওএস/অ/অক্টোবর ১৬, ২০১৯)

পাঠকের মতামত:

১৮ নভেম্বর ২০১৯

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test