Pasteurized and Homogenized Full Cream Liquid Milk
E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

চালকদের দাবি সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ে

২০১৯ নভেম্বর ২১ ১৫:২৯:৫৩
চালকদের দাবি সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ে

স্টাফ রিপোর্টার : পরিবহন চালকদের ৯ দফা দাবি সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ে পাঠানোয় হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ অডিটরিয়ামে ‘ট্রাফিক সচেতনতামূলক পক্ষ’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তাদের দাবিগুলোর মধ্যে কোথাও অসংগতি থাকলে তা যাচাই-বাছাই করে দেখা হবে। পরিবহন চালক ভাইদের লাইসেন্স দেয়ার বিষয়ে একটা জটিলতা ছিল। সেটি নিয়ে গতকাল বুধবার রাতে পরিবহন মালিকদের সঙ্গে আলোচনা হয়। তাদের দেয়া দাবিগুলো নিয়ে আলোচনা করেছি। লাইসেন্স সংক্রান্ত জটিলতা নিরসনের জন্য চালকদের একটা সময় দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে তারা তাদের লাইসেন্স ঠিক করে নেবে।

আইন না মানা আমাদের সংস্কৃতি হয়ে গেছে উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কেউ আইন মানতে চায় না। যদি সবাই আইন মেনে চলে তবে কোনও সমস্যা থাকে না। শুধু ট্রাফিক আইন নয়, সব পর্যায়ে সবাই আইন মেনে চললে অপরাধ অনেক কমবে। সব পর্যায়ে আইন মেনে চলার সংস্কৃতি চালু হোক, এটাই আমার চাওয়া।

তিনি বলেন, মহাসড়কে যারা বাস-ট্রাক চালায়, তাদের দীর্ঘক্ষণ গাড়ি চালাতে হয়। তাই তাদের নির্দিষ্ট সময় পর বিশ্রামের প্রয়োজন। একজন চালক ৮ ঘণ্টা গাড়ি চালানোর পর তাকে বাধ্যতামূলক বিশ্রাম নিতে হবে। মহসড়কে বিভিন্ন জায়গায় চালকদের বিশ্রামের জন্য বিশ্রামাগার তৈরির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে।

সড়কে আইন প্রয়োগ করতে গেলে অনেকেই পুলিশ কর্মকর্তাদের কাছে নিজের পরিচয় দেন এবং বদলির হুমকি দেন, উল্লেখ করে অনুষ্ঠানে পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, পুলিশের কেউ যদি সড়কে আইন প্রয়োগ করেন, তবে এর জন্য কোনও কর্মকর্তা বদলি হবেন না। এটা আমি আশ্বস্ত করছি। তবে সবার ব্যবহার বিনয়ী হতে হবে।

তিনি বলেন, সড়কে সব স্থানে ‘বাস বে’ না থাকলেও বাস থামার নির্দিষ্ট স্থান রয়েছে। কিন্তু চালকরা সেটা না মেনে বাসস্টপের আগে পরে থামেন। এতে পথচারী ও যাত্রীর সমস্যা হয়। এর জন্য সবাইকে আইন মেনে চলতে হবে।

আইজিপি বলেন, ‘ট্রাফিক শৃঙ্খলা একটি সভ্য জাতির প্রতীক’ এই স্লোগান নিয়ে আমরা সবাইকে সচেতন করার লক্ষ্যে ট্রাফিক সচেতনতামূলক পক্ষ শুরু করেছি।

এর আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স মাঠে বেলুন উড়িয়ে এর উদ্বোধন করেন।

২১ নভেম্বর থেকে ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশে (ডিএমপি) চলবে ট্রাফিক সচেতনতামূলক পক্ষ।

(ওএস/এসপি/নভেম্বর ২১, ২০১৯)

পাঠকের মতামত:

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test