E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

লিবিয়ায় যুবককে জিম্মি করে নির্যাতন : পল্টন থানায় বাবার মামলা

২০২০ জুন ০৫ ১৩:৫৭:২১
লিবিয়ায় যুবককে জিম্মি করে নির্যাতন : পল্টন থানায় বাবার মামলা

স্টাফ রিপোর্টার : লিবিয়ায় মানবপাচারের সঙ্গে জড়িত ১৬ জনের বিরুদ্ধে রাজধানীর পল্টন থানায় মানবপাচার ও সন্ত্রাসবাদ দমন আইনে মামলা করেছেন এক ভুক্তভোগীর বাবা। গত মাস আগে দুই দফায় মোট সাত লাখ টাকায় দালালের মাধ্যমে লিবিয়ায় গিয়ে আটকে পড়া রাকিব নামে ওই যুবকের বাবা বাদী মান্নান মুন্সি বৃহস্পতিবার রাতে এ মামলা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পল্টন থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহিন উদ্দিন জানান, বৃহস্পতিবার রাতে ১৬ জনের নামে পল্টন থানায় ওই মামলা করেন মান্নান মুন্সি। তার বাড়ি শরিয়তপুরে।

শুক্রবার (৫ জুন) সকালে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা উত্তর বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মশিউর রহমান জানান, বৃহস্পতিবার রাতে পল্টন থানায় করা মানবপাচার ও সন্ত্রাসবাদ দমন আইনে মামলাটি আমরা (ডিবি উত্তর) তদন্ত করবো। বাদীর ছেলে রাকিবসহ অন্যান্যদের কীভাবে লিবিয়ায় নেয়া হয়েছে এবং মামলার আসামিরা ছাড়াও আর কারা এর সঙ্গে জড়িত তা তদন্ত করে দেখা হবে।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে মামলার বাদী মান্নান মুন্সি মুঠোফোনে বলেন, গত ৭-৮ মাস আগে পরিচিত মোহসিন ও মনির তার ছোট ছেলে রাকিবকে লিবিয়ায় পাঠানোর কথা বলেন। তারা প্রলোভন দেখান, রাকিব সেখানে অনেক টাকা বেতন পাবে। রাজি হয়ে প্রথম দফায় কিছু জমি-জমা বিক্রি করে সাড়ে তিন লাখ টাকা মোহসিনের হাতে দেন মান্নান মুন্সি। এরপর রাকিবকে লিবিয়ায় পাঠান তারা। কিন্তু সেখানে তাকে জিম্মি করে আরও সাড়ে তিন লাখ টাকার জন্য নির্যাতন করা হয়।

মান্নান মুন্সি বলেন, ‘ক্ষেত-খামারে কাজ করি আমি। ছেলেকে জিম্মি করে মারধর করা হচ্ছে জেনেও বাবা হয়ে কীভাবে সহ্য করি! পরে বাকি জমি-জমা বিক্রি করে মোহসিনের হাতে আরও সাড়ে তিন লাখ টাকা দিই। এ সময় মনির লিবিয়ায়। কিন্তু মারধর বন্ধ হয়নি। সাত লাখ টাকা দেয়ার পরও ফোনে ছেলের কান্না শুনতে হইছে আমার।’

তিনি বলেন, সম্প্রতি লিবিয়ায় সংগঠিত নৃশংস হত্যার ঘটনায় রাকিব বেঁচে গিয়ে ফোন করে জানায়, তিনি পালিয়েছেন। এরপর থেকে আর তার সঙ্গে যোগাযোগ হয়নি। যে বা যারা রাকিবকে জিম্মি করে মারধর করছে তাদের শাস্তি দিতে আইনের আশ্রয় নিয়েছেন বলে জানান মান্নান মুন্সি।

(ওএস/এসপি/জুন ০৫, ২০২০)

পাঠকের মতামত:

০৪ জুলাই ২০২০

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test