E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

‘সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের অভাব পূরণ হওয়ার নয়’

২০১৭ সেপ্টেম্বর ০৯ ২২:২৬:২১
‘সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের অভাব পূরণ হওয়ার নয়’

সিলেট প্রতিনিধি : অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত পার্লামেন্টারিয়ান হিসেবে শুধু বাংলাদেশে নয়, সারা দুনিয়ার কাছে পরিচিত।

শনিবার সন্ধ্যায় সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন অর্থমন্ত্রী।

দিরাই-শাল্লা সম্প্রীতি পরিষদ সিলেট আয়োজিত স্মরণসভায় অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বাধীন সরকারের পার্লামেন্টে গুপ্তই একমাত্র বিরোধী দলের সদস্য ছিলেন। তখন থেকেই দেশ-বিদেশে তিনি খ্যাতি অর্জন করেন। কষ্ট ও ত্যাগের বিনিময়ে সুরঞ্জিত এ অর্জন আহরণ করেছেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের সংবিধানে উল্লেখযোগ্য পবিত্র যে ভাবনাগুলো স্থান পায় সেগুলোতে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত অবদান রেখেছেন। তাই তিনি অনন্তকাল স্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

স্মৃতিচারণ করে আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, সেনগুপ্ত জন্মের আগে তার বাবাকে হারিয়েছেন। শিশুবেলায় তার মা হারিয়েছেন। দুখু এই ছেলেটিকে শৈশব থেকে আমৃত্যু দিরাই-শাল্লাবাসী তাদের ভালোবাসা দিয়ে দেখাশোনা করেছেন।

সুরঞ্জিত সেনের বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক জীবনের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তিনি বলেন, সুরঞ্জিত পার্লামেন্টের শ্রেষ্ঠ বক্তা। একজন রসিক বক্তা ছিলেন। এরকম কৌশলী বক্তা, উপস্থাপক পার্লামেন্টে আর কেউ নেই।

তিনি বলেন, পার্লামেন্টে গেলে পার্লামেন্টেরিয়ান ভাষা আর রাজনীতির ময়দানে রাজনৈতিক ভাষা প্রয়োগ করতেন। মানুষের মনের ভাষায় কথা বলতে পারতেন। মানুষের মনের কথা সে খুব ভালোভাবে জানত এবং বুঝতে পারত। এরকম নেতার অভাব পূরণ হওয়ার নয়।

সংগঠনের সভাপতি ধীরেন্দ্র চন্দ্র দাসের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, কেন্দ্রীয় সদস্য ও সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক মেয়র বদরউদ্দিন আহমদ কামরান, মুহিবুর রহমান মানিক এমপি, ড. জয়া সেনগুপ্ত এমপি, জাতিসংঘস্থ বাংলাদেশ মিশনের সাবেক রাষ্ট্রদূত ড. একে আব্দুল মোমেন, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী, সহসভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ, গোলাপগঞ্জ উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ইকবাল আহমদ চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সিরাজুল ইসলাম।

এছাড়া বক্তব্য রাখেন গণতন্ত্রী পার্টির সিলেট জেলা শাখার সভাপতি আরিফ মিয়া, ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সিকন্দর আলী, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক সিটি কাউন্সিলর জগদীশ দাস, আজিজুল হক চৌধুরী মতি, অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট শামসুল ইসলাম, সিটি কাউন্সিলর ইলিয়াছুর রহমান ইলিয়াছ, শাল্লা উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মুহিন চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক আল-আমিন চৌধুরী, দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ রায়, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লুৎফুর রহমান এওয়ার মিয়া। সভা পরিচালনা করেন দিরাই-শাল্লা সম্প্রীতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রাণকান্ত দাস ও আবুল কাশেম।

(ওএস/এএস/সেপ্টেম্বর ০৯, ২০১৭)


পাঠকের মতামত:

২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test