E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Technomedia Limited
Mobile Version

বন্ধের পথে ‘স্বপ্নের পদ্মা সেতু ভ্রমণ প্যাকেজ’

২০২২ ডিসেম্বর ০১ ১৩:০২:২৭
বন্ধের পথে ‘স্বপ্নের পদ্মা সেতু ভ্রমণ প্যাকেজ’

স্টাফ রিপোর্টার : পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর সেতু দেখার ব্যাপক আগ্রহ তৈরি হয় মানুষের মাঝে। তখন প্রতিদিনই ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে হাজারো দর্শনার্থী যাচ্ছিলেন সেতু দেখতে। মানুষের এমন আগ্রহ দেখে ‘স্বপ্নের পদ্মা সেতু ভ্রমণ প্যাকেজ’ চালু করে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন। দিন গেছে। কমেছে মানুষের আগ্রহ। ফলে এখন দর্শনার্থীর অভাবে প্যাকেজ বন্ধ হওয়ার পথে।

গত ২৫ জুন বিশাল আয়োজন করে উদ্বোধন করা হয় পদ্মা সেতু। পরে ২২ জুলাই বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় এই প্যাকেজ ট্যুর চালু করে পর্যটন করপোরেশন।

ঢাকা-পদ্মা সেতু-ভাঙ্গা চত্বর-বঙ্গবন্ধু মান মন্দির-ঢাকা রুটে অর্ধদিবসের এই ভ্রমণ পরিচালনা করা হচ্ছিল প্রতি শুক্র ও শনিবার। প্যাকেজের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছিল ৯৯৯ টাকা।

পর্যটন করপোরেশনের কর্মকর্তারা জানান, ঢাকার আগারগাঁওয়ে পর্যটন করপোরেশনের অফিসের সামনে থেকে এই ট্যুর শুরু হয়। পদ্মা সেতু ভ্রমণ করে আবার ঢাকায় ফিরতে পারতেন দর্শনার্থীরা। শুরুতে এই প্যাকেজে ভালোই সাড়া পাওয়া যায়। ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত পরিচালনা করা হয় ২৮টি প্যাকেজ। কিন্তু দিন যতো যাচ্ছে, ক্রমেই কমছে পর্যটক সংখ্যা। আগে যেখানে দুটি এসি ট্যুরিস্ট কোচ পূর্ণ হতো, এখন সেখানে পাওয়া যাচ্ছে ৪-৫ জন। এ কারণে অধিকাংশ সময়ই মাইক্রোবাস দিয়ে নেওয়া হচ্ছে দর্শনার্থীদের।

তবে এখন পর্যন্ত ঠিক কতজন পদ্মা সেতু ভ্রমণে গেছেন, তার সঠিক তথ্য দিতে পারেনি প্রতিষ্ঠানটি।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের ব্যবস্থাপক (ট্যুর ও রেন্ট-এ কার) মো. নজরুল ইসলাম বলেন, পদ্মা সেতু ভ্রমণ প্যাকেজ ট্যুর এখনো চালু আছে। তবে দর্শনার্থী কমেছে আগের চেয়ে। অনেকটা বন্ধের পথে। এখন আর তেমন কেউ বুকিং দেয় না।

মো. নজরুল ইসলাম বলেন, ঢাকার গুলিস্তান, ফুলবাড়িয়া, সায়েদাবাদ থেকে প্রতিদিন শতশত বাস পদ্মা সেতুর ওপর দিয়ে দক্ষিণাঞ্চলে যায়। যাদের ব্যক্তিগত গাড়ি নেই, তাদের অনেকেই এসব বাসে যাচ্ছেন। আর যাদের ব্যক্তিগত গাড়ি আছে, তারা নিজ ব্যবস্থাপনাতেই যাচ্ছেন।

বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের ওই প্যাকেজ নিয়ে কেউ যেতে আগ্রহী হলে ০১৯৪১৬৬৬৪৪৪, ০১৩০০৪৩৯৬১৭ ও ০২-৪১০২৪২১৮ নম্বরে যোগাযোগের মাধ্যমে বুকিং নিশ্চিত করতে পারবেন।

এই প্যাকেজ ট্যুর বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের নিজস্ব এসি ট্যুরিস্ট কোচে আগারগাঁওয়ের পর্যটন ভবন থেকে শুরু হয়। এরপর শ্যামলী, আসাদগেট, সাইন্সল্যাব হয়ে বুয়েটের সামনে দিয়ে হানিফ ফ্লাইওভারে উঠে। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে পদ্মা সেতু অতিক্রম করে। এর ফলে পর্যটকরা দিনের আলোয় পদ্মা সেতু এবং সন্ধ্যা ও রাতের আবহে পদ্মা সেতুর অপরূপ সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারেন।

গত ২২ জুলাই আগারগাঁওয়ের পর্যটন ভবনে এই প্যাকেজের উদ্বোধন করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী। তখন তিনি বলেছিলেন, পদ্মা সেতু চালুর মাধ্যমে খুলে গেছে দেশের দক্ষিণাঞ্চলসহ সমগ্র বাংলাদেশে পর্যটন শিল্পের উন্নয়নের অবারিত দ্বার। ইতোমধ্যে পদ্মা সেতুর দুই পাড়ে এবং দক্ষিণাঞ্চলে পর্যটকদের ঢল নেমেছে। দেশি বিদেশি পর্যটকদের এ চাহিদার ভিত্তিতে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের এই প্যাকেজ ট্যুরের আয়োজন।

(ওএস/এএস/ডিসেম্বর ০১, ২০২২)

পাঠকের মতামত:

০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test