Pasteurized and Homogenized Full Cream Liquid Milk
E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

মৈত্রী মোটর শোভাযাত্রা ঢাকায়

মৈত্রী মোটর শোভাযাত্রা ঢাকায়

২০১৫ নভেম্বর ৩০ ১২:১২:৫৭
মৈত্রী মোটর শোভাযাত্রা ঢাকায়
মৈত্রী মোটর শোভাযাত্রা ঢাকায়

  নিউজ ডেস্ক : প্রায় সাড়ে তিন হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে রোববার রাজধানীতে পৌঁছেছে বাংলাদেশ-ভুটান-ভারত নেপালের (বিবিআইএন) মৈত্রী মোটর শোভাযাত্রা। আগামী মঙ্গলবার বেনাপোল হয়ে কলকাতার উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়বে শোভাযাত্রাটি।


ভারত ও ভুটানে প্রায় তিন হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে শনিবার ফেনীর বিলোনিয়া সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশ প্রবেশ করে পরীক্ষামূলক এ শোভাযাত্রাটি। সেখান থেকে এটি চট্টগ্রাম পৌঁছায়।
রোববার সকাল সাড়ে ৯টায় শোভাযাত্রাটি চট্টগ্রাম থেকে যাত্রা করে বিকেল সাড়ে ৫টায় ঢাকার সোনারগাঁও হোটেলে পৌঁছে। সোমবার এখানেই থাকবে গাড়িবহর। মঙ্গলবার আবারও ভারতের উদ্দেশ্যে ছুটবে। ৪ হাজার ২২৩ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে শেষ হবে যাত্রা।
বিবিআইএন সদস্য দেশ বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত এবং নেপালের মধ্যে সড়কপথে অবাধ যোগাযোগ স্থাপনে গত ১৫ জুন ভুটানের রাজধানী থিম্পুতে চার দেশের পরিবহনমন্ত্রীরা মোটর ভেহিক্যাল এগ্রিমেন্ট (এমভিএ) সই করেন।
চুক্তি অনুযায়ী, আগামী বছরের শুরু থেকে চার দেশের মধ্যে বিনা বাধায় যাত্রী ও পণ্যবাহী যান চলাচল শুরু হবে। তবে এজন্য ট্রানজিট ফি দিতে হবে, তবে সেটি এখনও নির্ধারিত হয়নি। বাংলাদেশ থেকে ছয়টি রুটে প্রতিবেশী তিন দেশে যান চলাচল করবে।
চারদেশীয় অবাধ যান চলাচল চালুর লক্ষ্যে গত ১৫ নভেম্বর ভারতের উড়িষ্যার ভুবনেশ্বর থেকে যাত্রা করে মৈত্রী মোটর শোভাযাত্রা। ভারতের বিহার, পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চল, সিকিম ঘুরে ভুটান যায় শোভাযাত্রাটি। সেখান থেকে ভুটান হয়ে আবারও ভারতের আসাম ও ত্রিপুরা হয়ে বাংলাদেশে আসে।
এরপর চট্টগ্রাম থেকে ২৫৪ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে রোববার বিকেলে সোনারগাঁও হোটেলে শোভাযাত্রাটি পৌঁছালে স্বাগত জানান সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব আবদুল মালেক, আাজহারুল ইসলাম, সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের সচিব শামসুল আলম প্রমুখ।
সোমবার ঢাকায় সেমিনারে অংশ নেবেন শোভাযাত্রায় অংশ নেওয়া চার দেশের কর্মকর্তারা।
২০টি গাড়ির শোভাযাত্রায় বাংলাদেশের ছয় সদস্যের দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপসচিব নিরোদ চন্দ্র মণ্ডল। বিধায়ক প্রবীণ চন্দ্র ভজ দেওয়ের নেতৃত্বে ভারতের ৬৬ জন প্রতিনিধি অংশ নিচ্ছেন। নেপাল ও ভুটানের চারজন করে প্রতিনিধি রয়েছেন। শোভাযাত্রার ব্যবস্থাপ দায়িত্বে রয়েছে ভারতের কলিঙ্গ মোটরস।
সকাল ৯টায় 'ফ্ল্যাগ অফে' চট্টগ্রামের হোটেল রেডিসন থেকে শোভাযাত্রাকে বিদায় জানান মেয়র আজম নাছির উদ্দিন। এর আগে অগ্রভাগে থাকা গাড়ির সামনে ভারতীয় ঐতিহ্য অনুসারে নারকেল ভাঙেন দেশটির প্রতিনিধি নরেশ ভোঁসলে।
এর আগে শনিবার রাত ৮টায় চট্টগ্রামে পৌঁছে মৈত্রী শোভাযাত্রা। ফ্ল্যাগ অনুষ্ঠানে যোগ দেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন ও পুলিশ সুপার একেএম হাফিজ আকতার প্রমুখ।

পাঠকের মতামত:

২০ এপ্রিল ২০১৯

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test