E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

ডা. জাফরুল্লাহর অক্সিজেন-নেবুলাইজার লাগছে না

২০২০ জুন ০৫ ১১:৫৮:১২
ডা. জাফরুল্লাহর অক্সিজেন-নেবুলাইজার লাগছে না

স্টাফ রিপোর্টার : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বৃহস্পতিবার (৪ জুন) রাতে শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায়। সে কারণে তাকে অক্সিজেন ও নেবুলাইজার নিতে হয়েছিল। তবে সকালের দিকে অবস্থার কিছুটা উন্নতি হওয়ায় তার অক্সিজেন ও নেবুলাইজার লাগছে না।

শুক্রবার (৫ জুন) সকাল ১০টার পর এসব তথ্য জানান গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. ফরহাদ।

তিনি বলেন, ‘গত রাতে শ্বাসকষ্ট ছিল, কাঁশি ছিল। সে কারণে রাতে স্যার (ডা. জাফরুল্লাহ) অক্সিজেন নিয়েছিলে, নেবুলাইজারও নিয়েছিলেন। এখন আর কিছুই লাগছে না, এখন তিনি মোটামুটি ভালো আছেন। তিনি এখন কেবিনেই আছেন। সকালে নাস্তা ও ওষুধ খেয়েছেন তিনি।’

বেলা ১১টা ২০ মিনিটের দিকে ফরহাদ জানান, ‘সকালে নাস্তা, ওষুধ খাওয়ার পর তিনি শুয়েছিলেন। হয়তো শোয়াতে তার কোনো সমস্যা হয়েছিল। সেজন্য আবার শ্বাসকষ্ট অনুভব হয়। নেবুলাইজার মেশিন পাশেই আছে, কিন্তু সেগুলো আর লাগেনি। তিনি এখন ঠিক আছেন।’

তবে শুক্রবার (৫ জুন) সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে জানানো হয়েছে, ‘ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর কিছুটা শারীরিক অবনতি ঘটেছে। আপনাদের সকলের দোয়া চেয়েছেন ডা. চৌধুরী। তিনি বর্তমানে উনার নিজের স্থাপিত প্রতিষ্ঠান গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে ব্রিগেডিয়ার অধ্যাপক ডা. মামুন মুস্তাফি, অধ্যাপক ডা. নজীবের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন আছেন।’

এর আগে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে বলা হয়, ‘ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর জন্য সবাই দোয়া করবেন। উনার শরীর ভালো না। রাতে উনার শ্বাসকষ্ট ছিল। আপনাদের সবার দোয়া খুব প্রয়োজন। ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বর্তমানে উনার স্থাপিত প্রতিষ্ঠান গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।’

গত ২৪ মে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রতি বিশেষ করে ব্রিগেডিয়ার অধ্যাপক ডা. মামুন মুস্তাফি, অধ্যাপক ডা. নজীব এবং তাদের দলের প্রতি ভালোবাসা ও শ্রদ্ধাও জানানো হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।

করোনার নমুনা পরীক্ষা করেন তিনি। সেই পরীক্ষায় তার করোনা পজিটিভ আসে। পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) পিসিআর ল্যাবরেটরিতেও নমুনা পরীক্ষা করান ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। এখানেও তার করোনা পজিটিভ আসে।

এরপর প্লাজমা থেরাপি নেন তিনি। এতে উপকার পাওয়ায় গত ২৮ মে রাতে দ্বিতীয়বারের মতো প্লাজমা নেন। এছাড়া গত ৩০ মে রাতে তৃতীয়বারের মতো ডায়ালাইসিস করান তিনি। সেই সঙ্গে ব্রেথিং (শ্বাস-প্রশ্বাস থেরাপিও নেন ডা. জাফরুল্লাহ)।

গত রবিবার (৩১ মে) ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী জানিয়েছিলেন, তার স্ত্রী ও ছেলেও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ দিন তিনি আরও জানান, তার শ্বাসকষ্ট হচ্ছে। তিনি অক্সিজেন নিচ্ছেন।

(ওএস/এসপি/জুন ০৫, ২০২০)

পাঠকের মতামত:

১০ জুলাই ২০২০

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test