E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

করোনা উপেক্ষা করে ওড়াকান্দিতে পূর্ণার্থীর ঢল 

২০২১ এপ্রিল ০৯ ১৬:৩৮:৫৯
করোনা উপেক্ষা করে ওড়াকান্দিতে পূর্ণার্থীর ঢল 

কাশিয়ানী (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি : করোনা পরিস্থিতির মধ্যে সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখেই গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার ওড়াকান্দি ঠাকুরবাড়িতে স্নানোৎসবে অংশ নিতে লাখো পূর্ণার্থীর ঢল নেমেছে। 

গত ১ এপ্রিল কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত জরুরি সভায় জনসমাগম এড়াতে ওড়াকান্দিতে স্নানোৎসব ও বারুণী মেলা বন্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

তবে প্রশাসনের এসব নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে এবারও স্নানোৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে। শুক্রবার ভোর থেকে দেশের নানা প্রান্ত থেকে হাজার হাজার পূর্ণার্থী ঠাকুর বাড়িতে সমবেত হয়েছে। এ ব্যাপারে পুলিশের কোন তৎপরতা দেখা যায়নি।

এই সমাবেশের মধ্যদিয়ে জেলায় ব্যাপকহারে করোনা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

আজ শুক্রবার সকালে শ্রীধাম ওড়াকান্দি ঠাকুর বাড়িতে সরেজমিনে গিয়ে গেছে, শুক্রবার ভোর থেকে বাস, ট্রাক, নছিমন, ইজিবাইক, অটোভ্যানসহ বিভিন্ন যানবাহনে, পায়ে হেঁটে দেশের বিভিন্ন জেলা এবং আশপাশের বিভিন্ন স্থান থেকে দলে দলে হাজার হাজার হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ ঠাকুরবাড়িতে এসেছেন। কামনাসাগর ও দুধসাগর পুকুরপাড়ে স্নান করতে আসা মানুষের উপচেপড়া ভিড়। সেখানে নেই শারিরীক দূরত্ব, নেই কারও মুখে মাস্ক। তবে সেখানে কিছু পুলিশ সদস্যের উপস্থিত থাকলেও তারা নীরব ভূমিকায় ছিলেন।

বাংলাদেশ মতুয়া মহামিশনের সভাপতি মতুয়াচার্য্য পদ্মনাভ ঠাকুর লাখো মানুষের সমাগমের কথা স্বীকার করে বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতিতে জনসমাগম ঠেকাতে আমরা স্নানোৎসবে ভক্তদের আসতে বারণ করে দিয়েছি। কিন্তু ভক্তরা আবেগী হয়ে বাঁধা উপেক্ষা করে স্নানোৎসবে যোগ দিতে ঠাকুর বাড়িতে এসেছেন। সেক্ষেত্রে আমাদের কি করার আছে।’

কাশিয়ানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রথীন্দ্রনাথ রায় বলেন, ‘পুলিশ দিয়ে পরিস্থিতি সামাল দিতে সর্বাত্মক চেষ্টা করেছি। পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক রয়েছে।’

কাশিয়ানী থানার ওসি মো. আজিজুর রহমানে সাথে কথা বলার জন্য একাধিকবার কল করেও তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

উল্লেখ্য, শ্রী শ্রী হরিচাঁদ ঠাকুরের জন্মতিথি উপলক্ষে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার ওড়াকান্দিতে তিন দিনব্যাপী স্নানোৎসব ও বারুণী মেলা অনুষ্ঠিত হয়। এ বছর হরিচাঁদ ঠাকুরের ২১০ তম জন্মতিথি। পূণ্যলাভের আশায় ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, আসাম, মধ্যপ্রাচ্য ও বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থান থেকে লাখ লাখ পুণ্যার্থী স্নানে অংশ নিয়ে থাকেন। হিন্দু ধর্মের মতুয়া সম্প্রদায়ের এ মিলনমেলায় লাখো ভক্তের আগমনে প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে গোটা ঠাকুরবাড়ি। এটি হিন্দু সম্প্রদায়ের একটি অন্যতম তীর্থস্থান। গত ২৭ মার্চ এই তীর্থভূমি ঘুরে গেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

(এল/এসপি/এপ্রিল ০৯, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

০৭ মে ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test