E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

আদিবাসীকে সুদের টাকার জন্য মারলেন মসলেম মন্ডল 

২০২১ এপ্রিল ১৫ ১৮:৩২:৪৮
আদিবাসীকে সুদের টাকার জন্য মারলেন মসলেম মন্ডল 

স্টাফ রিপোর্টার : রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের ঘিকমলা আদিবাসী পাড়ার সুধীর সরকারের ছেলে সুদেব সরকার (৩০) কে সুদে টাকা দিতে অপারগ জানালে শারিরীক ও মানুষিক ভাবে লাঞ্চিত করা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) দুপুরে ঘিকমলা মরাবিলা ব্রিজ সংলগ্ন ছামাদ সরদারের বাড়ির সামনে থেকে সুদেব সরদার কে শারিরীক ভাবে আঘাত করে মোতাহার মন্ডলের বড় ছেলে মসলেম মন্ডল (৩৫) ।

প্রত্যক্ষ কারিদের মাধ্যমে জানাযায়, সুদেব সরদার তার পেশাগত কাজ শেষ করে বাড়ি ফেরার পথে বাড়ি থেকে ১০০ মিটার আগে (ঘটনা স্থল) থেকে সুদের টাকার জন্য মসলেম মন্ডল ও তার ভাই তুজাম মন্ডল, উজ্জল মন্ডল ও জুয়েল মন্ডল মারতে মারতে চিত্রানদীতে নামায়। পরে মসলেম মন্ডলের চাচা ওমর মন্ডল সুদেবের বাড়ি গিয়ে বলেন রাতে শালিশে বসবো, তুই ৪০ হাজার টাকা রেডি করে রাখবি।

আদিবাসী পাড়ায় গিয়ে জানা যায়, সুদেবের কাকা কালু সরকারের বউ অর্চনা সরকার ১ বছর আগে মসলেম মন্ডলের কাছ থেকে ব্যক্তিগত কাজের জন্য ৫ হাজার টাকা ধার নেন। কিন্তু এক সপ্তাহ যেতে না যেতেই মসলেম বাড়ির উপর গিয়ে বলেন ১ হাজার টাকা দাও। সে আরও বলেন প্রতি সপ্তাহে ১ হাজার করে সুদের টাকা দিতে হবে, এভাবে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কথা বলে এক বছর যাবত ৪৫/৫০ হাজার টাকা নিয়েও এখন দাবি করছে আমাকে ১৫ হাজার টাকা দিতে হবে। তবে সুদেব আদিবাসীদের নেত্রীত্র দেওয়ার কারণে সে মসলেম কে বলেন আমি কিছু টাকা দিবো কিন্তু সে বলে তুরা তো বুনো তোদের থেকে মেরেই টাকা নিবো।

এলাকাবাসীর মাধ্যমে জানা যায়, এই মসলেম মন্ডল এত পরিমাণ সুদে টাকার ব্যবসা করে যে তার নাম এখন সুদে মসলেম। এই মসলেমর সুদের টাকা উঠানোর জন্য তার চাচা মেগনেট ওমর মন্ডল সাহায্য করে।

আরও জানা যায়, মসলেম মন্ডল এই আদিবাসী পাড়ায় সুদে টাকা জন্য আর এক আদিবাসী নেতা রাজেন মন্ডলকে একই স্থানে মারে এবং তার থেকে ২ লক্ষ টাকা আদায় করে। শুধু তাই নয় এলাকার বিভিন্ন ব্যক্তিকে টাকা দিয়ে মারধর করে টাকা নিয়ে নেয়।

ওমর মন্ডল এলাকায় ম্যাগনেট ওমর বলে পরিচিত তিনি ধোকা দিয়ে মানুষের থেকে টাকা হাতিয়ে নেয়। সে ও সুদে ব্যবসা করে বলে জানা যায়, তিনি এখন সুদে টাকা ও ম্যাগনেট ব্যবসা করে হয়েছে লাখো পতি।

মসলেম মন্ডল সম্পর্কে জানা যায় সে এক বছর আগেও মানুষের বাড়ি যনদিয়ে সংসার চলতো। অথচ ১ বছর সুদে ব্যবসা করে বাড়িতে দিয়েছে পাকা বাড়ি, সেও এখন হয়েছে লাখোপতি।

এলাকাবাসী ও আদিবাসী পাড়ার প্রতিটি মানুষের দাবি করেন এই সুদ খোর মসলেম ও ওমর মন্ডল কে আইনের আওতায় এনে তাদের শান্তিতে বসবাস করার সুযোগ করে দেওয়া হোক।

(একে/এসপি/এপ্রিল ১৫, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

০৭ মে ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test