E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

দুটি পরিবারের পানির সংযোগ বিচ্ছিন্নের অভিযোগ মেয়র-কাউন্সিলের বিরুদ্ধে

২০২১ এপ্রিল ১৮ ১৩:৪১:০১
দুটি পরিবারের পানির সংযোগ বিচ্ছিন্নের অভিযোগ মেয়র-কাউন্সিলের বিরুদ্ধে

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি : বরগুনার পাথরঘাটা পৌরমেয়র আনোয়ার হোসেন আকন এবং ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রোকনুজ্জামান রুকুর বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ক্ষমতার জোরে  ওই এলাকার দুইটি পরিবারের পানির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছেন বলে অভিযোগ ওঠেছে তাদের বিরুদ্ধে। একই সঙ্গে ওই দুটি পরিবারকে কোন ধরনের স্থাপনা করতে দিচ্ছেন না ওই ওয়ার্ড কাউন্সিলর রোকন। 

এ ঘটনায় পাথরঘাটা পৌরসভার মেয়র আনোয়ার হোসেন আকন ও কাউন্সিলর রোকনুজ্জামান রুকুসহ সংশ্লিষ্ট পানি শাখায় বারবার গিয়ে অভিযোগ জানালেও কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। পরবর্তীতে ওই ঘটনায় গত ৬ এপ্রিল রাতে পাথরঘাটা থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। এর আগেও ওই একই ঘটনায় পাথরটা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

পানির সংযোগ বিচ্ছিন্ন ও স্থাপনা ছাড়া বসবাসরত পরিবার দুটি হচ্ছে, পাথরঘাটা পৌর এলাকার ২ নম্বর ওয়ার্ডের হাসপাতাল সড়ক সংলগ্ন হনুফা বেগম ও শাহীন মোল্লা।

তাঁরা বলেন, পাথরঘাটা পৌর এলাকার হাসপাতাল সড়কের বাসিন্দা হনুফা বেগম ও শাহীন মোল্লা পৃথক ৫৫৯ ও ৫০৯ নম্বর হোল্ডিং নিয়ে বসবাস করছেন। এই দুই হোল্ডিংয়ে ১২ শতক জমি রয়েছে। কিন্তু ওই ১২ শতক জমিতে কোন ধরনের স্থাপনা করতে দেয়া হচ্ছে না। একই সঙ্গে পৌরসভা থেকে নিয়ম মেনে পানি সংযোগ নেয়া হলেও কাউন্সিলর রোকনুজ্জামান রুকুকে অবগত না করায় তিনি এ পানি সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছেন। পরবর্তীতে গত ৬ এপ্রিল বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে হনুফা বেগমের ঘরে ঢুকে স্থানীয় কাউন্সিলর নির্মাণ কাজে ব্যবহার করা লোহার শাবল, কোদাল বেলচা ও একটি হাতুড়ি নিয়ে যান। এ সময় তার সঙ্গে পৌরসভার কর্মচারী আকবরসহ ৪ থেকে ৫ জন লোক ছিলেন। এ ঘটনায় কাউন্সিলর রোকনুজ্জামান রুকু ও পৌর কর্মচারী আকবরের বিরুদ্ধে পাথরঘাটা থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

তারা আরও বলেন, আমাদের প্রতিবেশী প্রতিপক্ষ আবিদা সুলতানার সঙ্গে কাউন্সিলর রোকনুজ্জামান যোগসাজশে এ কাজ করে যাচ্ছেন। এমনকি আবিদা সুলতানা তার দোতলা ভবনের সঙ্গে একটি সিসি ক্যামেরা স্থাপন করে আমাদের বসবাসের স্থল ভিডিও করছেন প্রতিনিয়ত। যা আমার ও আমাদের পরিবারের জন্য অমানবিক ও লজ্জাকর।

অভিযোগ প্রসঙ্গে আবিদা সুলতানার সাথে মুঠোফোনে অসংখ্যবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রোকনুজ্জামান রুকু বলেন পৌরসভার অনুমোদন ছাড়া উক্ত ঘর নির্মান করায়, ঘর নির্মানের কিছু সামগ্রী জব্দকরাসহ তাকে নোটিশ প্রদান করা হয়েছে। পানির লাইনের সংযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন অবৈধ ভাবে পানির সংযোগ নেয়ায় পৌরসভা কর্তৃপক্ষ লাইনটি বিছিন্ন করেছে।

এ ব্যাপারে পাথরঘাটা পৌরসভার মেয়র আনোয়ার হোসেন আকন বলেন, আপন মামার জমি অন্যায়ভাবে দখল করেছে শাহিন মোল্লা। জমি পাবে সে ৬ শতাংশ। ভূমিদস্যুতা করতে গিয়ে বিভিন্ন জনকে হয়রানি অর্থাৎ লড়াচ্ছে তারাচ্ছে সে। পানির সংযোগ বিচ্ছিন্ন করণ প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, অবৈধ লাইন বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে মাত্র।

(এটি/এসপি/এপ্রিল ১৮, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

০৭ মে ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test