E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Transcom Foods Limited
Mobile Version

সালথার সেই পিকুলের ভাই সরকারি জায়গা দখল করে দোকান নির্মাণ করছে 

২০২১ এপ্রিল ১৯ ১৭:০৯:৪৫
সালথার সেই পিকুলের ভাই সরকারি জায়গা দখল করে দোকান নির্মাণ করছে 

সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি : ফরিদপুরের সালথায় তান্ডবের মামলার আসামি উপজেলা স্বেচ্ছা-সেবকলীগের কথিত সভাপতি ইমারত হোসেন পিকুলের ভাই এনায়েত মোল্যা এবার সরকারি জায়গা দখল করে দোকান নির্মাণ করার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলা সদরের থানা রোডে হাইওয়ে সড়কের সরকারি জায়গা দখল করে এই দোকান নির্মাণ করছেন তিনি। 

জানা গেছে, দেড় মাস আগে স্বেচ্ছা-সেবকলীগ নেতা পিকুলের ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে তার ভাই সালথা সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের দলিল লেখক এনায়েত হোসেন সরকারি জায়গা দখল করে দোকানঘর নির্মাণ শুরু করে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একাধিকবার বাধা দিলেও তা উপেক্ষা করে ভাইয়ের ক্ষমতাবলে তিনি দোকান নির্মাণ কাজ চলমান রাখে। এ নিয়ে উপজেলা প্রশাসনের সাথে পিকুলের কয়েক দফা বাকবিতন্ড হয়। বর্তমানে নির্মাণ কাজ প্রায় শেষের দিকে।

অভিযোগ রয়েছে, উপজেলা প্রশাসনের সাথে ভাইয়ের এই দোকান নির্মাণ নিয়েই ঝালেমা হয় পিকুলের। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে পিকুল ইউএনও এসিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ফেসবুকে নানা ধরণের উস্কানিমূলক পোষ্ট দিয়ে আলোচনায় আসে। সেই ঝামেলার সুত্রধরে গত ৫ এপ্রিল সালথা উপজেলার পরিষদের সরকারি অফিসে বিএনপি-জামায়াত ও হেফাজতীদের তান্ডবে সরাসরি অংশ নেয় পিকুল ও তার হাতুড়ী বাহিনী। এ সময় হামলাকারীদের দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র সরবারহ করে পিকুল ও তার বাহিনী।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে উপজেলা সদরের একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করে বলেন, যেই সরকারি জায়গায় দোকান নির্মাণের ঝামেলার সুত্রধরে পিকুল ও তার হাতুড়ী বাহিনী সরকারি অফিসে হামলায় অংশ নেয়। সেই জায়াগায় প্রশাসনের চোখের সামনে এখনও কিভাবে তারা নির্মাণ কাজ চলমান রেখেছেন। এটা আমরা বুঝতে পারছি না।

সরকারি জায়গায় দোকান নির্মাণের বিষয় পিকুল ও তার ভাইয়ের সাথে একাধিকবার ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মাদ হাসিব সরকার বলেন, উপজেলা সদরের থানা রোডে হাইওয়ে সড়কের সরকারি অনেকখানি জায়গা দখল করে দোকান নির্মাণ কাজে কয়েক দফা বাধা দেওয়া হলেও তারা বাধা উপেক্ষা করে নির্মাণ কাজ চলমান রেখেছে। এ বিষয় উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আর পিকুল উপজেলা প্রশাসন নিয়ে ফেসবুকে যেসব বাজে লেখালেখি করছে, এ বিষয় থানায় আইসিটি আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

(এন/এসপি/এপ্রিল ১৯, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

১৭ মে ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test