E Paper Of Daily Bangla 71
Janata Bank Limited
Technomedia Limited
Mobile Version

কলাপাড়ায় মসজিদে নির্মাণ নিয়ে আনসার সদস্যদের সাথে এলাকাবাসীর ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, আহত ১৪

২০২১ মে ০৭ ১৮:৫১:২২
কলাপাড়ায় মসজিদে নির্মাণ নিয়ে আনসার সদস্যদের সাথে এলাকাবাসীর ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, আহত ১৪

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি : পটুয়াখালীর কলাপাড়া পৌর শহরের নাচনাপাড়া এলাকায় আনসার ব্যাটালিয়ান ক্যাম্পের সদস্যদের সাথে স্থানীয় এলাকাবাসীর প্রায় দেড় ঘন্টা ব্যাপী ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া এবং ইট-পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে। এতে নারী, শিশুসহ ১০জন এলাকাবাসী আহত হয়েছে। তাদের কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আনসার সদস্যদের মধ্যে ৪ জন সদস্য আহত হয়েছে । 

শুক্রবার বেলা একটার পর এলাকায় মসজিদ নির্মানকে কেন্দ্র করে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে কলাপাড়া থানা পুলিশ ও জনপ্রতিনিধিরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়স্ত্রনে আনে।

বিকালে আনসার ব্যাটালিয়ান ক্যাম্পে কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক, কলাপাড়া পৌরসভার মেয়র বিপুল চন্দ্র হাওলাদার, আনসার ব্যাটালিয়ান ক্যাম্পের কমান্ডিং অফিসার মো. কামরুজ্জামান, কলাপাড়া থানার এসএসপি আহমেদ আলী ও ওসি খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমানের উপস্থিতিতে এলাকাবাসীর কাছে আনসার ব্যাটালিয়ান সদস্যরা এলাকাবাসীর কাছে অনাকাঙ্খিত ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন এবং ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

নাচনাপাড়া এলাকার পৌর কাউন্সিলর মো. তারেকুজ্জামান তারেক ও আহতরা জানান, কলাপাড়া আনসার ব্যাটালিয়ান ক্যাম্পের অভ্যন্তরের মসজিদে দীর্ঘ বছর ধরে এলাকার মানুষ নামাজ আদায় করে আসছে। কিন্তু আনসার ব্যাটালিয়ান ক্যাম্পের একাধিক সদস্য করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় ওই মসজিদে সাধারণ মানুষের নামাজ আদায় বন্ধ করে দেয়া হয়। এলাকাবাসী মসজিদে নামাজ পড়তে না পেরে নাচনাপাড়া বেড়িবাঁধের পাশে বন বিভাগের জায়গায় স্থানীয় বন কর্মকর্তার অনুমতি নিয়ে একটি কাঠের মসজিদ নির্মান শুরু করে।

শুক্রবার দুপুরে এলাকার এক মুরুব্বী ক্যাম্পের মনজিদে নামাজ পড়তে যায়। আনসার সদস্যরা ওই বৃদ্ধকে মসজিদ থেকে বের করে দেয় এবং রাস্তার পাশে মসজিদ নির্মান বন্ধ করে দেয়। এ নিয়ে এলাকাবাসীর সাথে আনসার সদস্যদের তর্কাতর্কির এক পর্যায়ে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এ সময় এলাকাবাসীর উপর আনসার সদস্যরা অতর্কিত লাঠি চার্জ ও ইট নিক্ষেপ করে। গ্রামবাসীরা পাল্টা আনসার ক্যাম্পে ইট নিক্ষেপ করে। এ সময় গোটা এলাকায় এক ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়।

এ সময় আনসার সদস্যদের ছোড়া ইট ও লাঠির আঘাতে নুর আলম, তানিয়া, শাহিন, রোজিনা, আবুল কালাম, ফোরকান, শামিম, জেসমিন, রাশিদা ও জাকির হাওলাদার রক্তাক্ত জখম হয়। তাদের কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে আহত ৪ আনসার সদস্যদের নাম জানাতে পারেনি উপস্থিত আনসার সদস্যরা।

এ ব্যাপারে কলাপাড়া আনসার ব্যাটালিয়ান ক্যাম্পের কমান্ডিং অফিসার মো. কামরুজ্জামান বলেন, এলাকাবাসীর ছোড়া ইটের আঘাতে তাদের চার সদস্য আহত হয়েছে। এ অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতির জন্য তিনি এলাকাবাসীর কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছেন এবং ঘটনায় জড়িত আনসার ব্যাটালিয়ান সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান।

এ ব্যাপারে কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, মসজিদ নির্মান ও মসজিদে নামাজ পড়া নিয়ে আনসার সদস্যদের সাথে এলাকাবাসীর কথা কাটাকাটির পর ইট পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শাস্ত রয়েছে। এ ব্যাপারে কোন পক্ষই থানায় লিখিত অভিযোগ করেনি। তবে পুলিশ বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখছে।

(এমকে/এসপি/মে ০৭, ২০২১)

পাঠকের মতামত:

১৫ জুন ২০২১

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test