E Paper Of Daily Bangla 71
World Vision
Walton New
Mobile Version

আঙ্গারিয়া বন্দরে গভীর রাতে লাখ টাকার তেল চুরি

২০২২ মার্চ ০৫ ১৬:২২:০০
আঙ্গারিয়া বন্দরে গভীর রাতে লাখ টাকার তেল চুরি

কাজী নজরুল ইসলাম, শরীয়তপুর : শরীয়তপুর সদর উপজেলার আঙ্গারিয়া বন্দরের দুইটি দোকান থেকে গভীর রাতে ১১ ব্যারেল (ড্রাম) তেল চুরি করে নিয়ে গেছে একটি সংঘবদ্ধ চোর চক্র। সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে তেল চুরির পুরো দৃশ্য ধরা পরলেও এখনও কাউকে সনাক্ত করা যায়নি। এ বিষয়ে শরীয়তপুর সদর পালং মডেল থানায় একটি মামলা হয়েছে। পুলিশ প্রযুক্তি ব্যাবহার করে চোর সনাক্ত ও চুরি যাওয়া তেল উদ্ধারের চেষ্টা করছেন।

দোকান মালিক আফজাল মোল্যা ও স্থানীয়রা জানিয়েছেন, শুক্রবার গভীর রাতে পিকআপ নিয়ে এসে আঙ্গারিয়া পশ্চিম বাজারের আফজাল স্টোরের ৭ ব্যারেল ও হালিম স্টোরের ৪ ব্যারেল মোট ১১ ব্যারেল তেল চুরি করে নিয়ে যায় একটি সংঘবদ্ধ চোর চক্র। এতে দুই ব্যবসায়ীর প্রায় ৩ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী করছেন তারা।

সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টা ৪৪ মিনিটে অন্তত ৫ সদস্যের একটি দল একটি পিকআপ ভ্যান নিয়ে আফজাল স্টোরের সামনে আসে। প্রথমে একজন বাইরে থেকে দোকানটি তালা মেরে দেয়। এর পর পিকাপের পিছনের ত্রিপল দিয়ে ঢাকা বাকি সদস্যরা নিচে নেমে এসে ব্যারেলগুলো পিকাপে তুলে নিয়ে যায়। কিছুক্ষন পর হালিম স্টোরের সামনে থেকে আরও ৪ ব্যারেল তেল নিয়ে তারা চলে যায়।

আফজাল স্টোরের ও মালিক আফজাল মোল্লা জানান, আমাদের দুই দোকান থেকে প্রতি ড্রামে ১৮৫ লিটার করে ৬ ড্রাম সয়াবিন তেল এবং ২০০ লিটার করে ৪ ড্রাম ডিজেল ও ১ ড্রাম কেরোসিন তেল চুরি হয়ে গেছে। তিনি বলেন, বাজারে সিসিটিভি ক্যামেরা ও পাহারাদার (নাইট গার্ড) থাকা সত্বেও এভাবে চুরি হওয়ায় আমরা বিস্মিত হয়েছি। থানায় মামলা করেছি, আমরা দ্রুত আমাদের চুরি হওয়া তেল উদ্ধার ও চোর চক্রকে আটক করার জন্য প্রশাসনকে অনুরোধ করছি।

আঙ্গারিয়া বন্দরের নাইট গার্ড সামসুল হক সরদার (৭০) বলেন, 'আমি চোখে কম দেখি। চুরি কখন হয়েছে তা আমি দেখিনি। এ ব্যাপারে আমি কিছুই বলতে পারবো না।

আঙ্গারিয়া বন্দর পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি সিরাজুল হক মোল্যা বলেন, শরীয়তপুর জেলার সর্ব বৃহৎ ব্যবসায়ী বন্দর আঙ্গারিয়া বাজার। এই বাজারে ৪ জন নাইট গার্ড রয়েছে। রাজারের সন্নিকটে পুলিশ ফাঁড়িও আছে। এরপরও মাঝে মধ্যে রাতে চুরি হচ্ছে। আমাদের বন্দর কমিটির নির্বাচন দুই বছর আগে ইউএনও'র একটি আদেশে বন্ধ হয়েছে। আমরা সঠিকভাবে কাজ করতে পারছিনা। ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়িরা মামলা করেছে। আশা করি দ্রুত সময়ের মধ্য পুলিশ চুরি হওয়া তেল উদ্ধার ও চোর আটক করতে পারবেন।

পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আক্তার হোসেন বলেন, আঙ্গারিয়া বাজারে তেল চুরির বিষয়ে থানায় মামলা হয়েছে। সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে প্রযুক্তির সহায়তায় চোর সনাক্ত ও আটকের সর্বাত্মক চেষ্টা চলছে।

(কেএন/এসপি/মার্চ ০৫, ২০২২)

পাঠকের মতামত:

১৬ জুলাই ২০২৪

এ পাতার আরও সংবাদ

উপরে
Website Security Test